Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

দেশের খবর

আগামী মাসেই আসতে পারে কাঙ্ক্ষিত ভ্যাকসিন!

Priyam Biswas

Published

on

আগামী মাসেই আসতে পারে কাঙ্ক্ষিত ভ্যাকসিন:

পুরো বিশ্ব করণা ভাইরাসের থাবায় জর্জরিত। আর্থিক মন্দার সম্মুখীন হতে হচ্ছে প্রায় সব দেশেই। যদি অতি দ্রুত কোন কার্যকরী পদক্ষেপ না আসে তবে বিশ্বের প্রায় 50 কোটি লোক দরিদ্র ও বেকার হয়ে পড়বে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। আর এই সকল সমস্যার মাঝে আশার বাণী শুনিয়েছেন অক্সফোর্ডের বিশ্ববিদ্যালয়ের করণা ভাইরাসের ভ্যাকসিনটী।
বিশেষজ্ঞদের মতে এই ব্যক্তিটি 100% কার্যকর। যদি 100% কাজ না করলেও 80% কাজ করবে বলে জানিয়ে ছিল ভ্যাকসিনটি নির্মাতারা এমনকি তারা কোন প্রাণীর উপর পরীক্ষা না করে প্রথমেই মানুষের ওপর তার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে করে ছিল। আর তারা জানিয়েছে যে খুব শীঘ্রই আসতে চলেছে খুশির সংবাদ। আর সেটা হয়তো আগামী মাসে অর্থাৎ জুন মাস এর মধ্যে আসতে পারে।
বিশ্ববিদ্যালয় মেডিসিন বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে এ পর্যন্ত কয়েকশো মানুষকে দেওয়া হয়েছে এই ভ্যাকসিনটি ।যদি যদি এই ভ্যাকসিনটি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদন পায় তবে সব থেকে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে যে ব্যাপকহারে তৈরি করা কারণ এ পর্যন্ত প্রায় 50 লক্ষ মানুষ গণনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে আর প্রতিদিন প্রায় 10 হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়ে চলছে , এছাড়াও এ পর্যন্ত প্রায় 212 টিরও বেশি দেশে কোন ভাইরাসের প্রকোপ দেখা গিয়েছে। দুই-একটি দেশ ছাড়া প্রায় সব দেশেই করো না ভাইরাসের প্রভাবে অস্থিতিশীল হয়ে পড়েছে সেখান কার সামাজিক ও অর্থনৈতিক ব্যবস্থা।
আরে করোনা ভেকসিন এর ওপর প্রায় সব দেশেরই অধিকার রয়েছে। তাই এই চাহিদা মেটানোর জন্য দরকার ব্যাপকহারে উৎপাদন কিন্তু উৎপাদন এক নিমিষেই সম্ভব নয়। এই ব্যাপক হারে উৎপাদন তাই এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে।
উল্লেখ্য যে এই ভ্যাকসিন ট্রায়ালের জন্য প্রায় আট শত জনকে বেছে নেওয়া হয়েছে এ 800 জনের মধ্যে অর্ধেক মানুষ প্রায় চারশত জনকে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে আর বাকি 400 জনকে দেওয়া হয়নি। যাদেরকে করোনা ভাইরাস এর ভ্যাকসিন দেওয়া হয়নি তাদেরকে অন্য একটি ইনজেকশন দেওয়া হয়েছে যেটি রক্ত জমাট হতে দিবে না বরঞ্চ রক্তকে তরল রাখতে সাহায্য করবে। কারণ করণা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সব থেকে বড় সমস্যা হচ্ছে রক্ত জমাট বেধে যাওয়া।
তবে চিকিৎসক ব্যতীত কোনো রোগী জানবে না যে তাদেরকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে তাদেরকে দেওয়া হয়নি এই ব্যাপারে আর তাদেরকে 24 ঘন্টা অবজারভেশনে রাখা হয়েছে।
এই ভ্যাকসিন টি তৈরি করা হয়েছে শিম্পাঞ্জিৱ শরীরেৱ একটি সাধারণ জ্বরের ভাইরাস থেকে। তাই অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে এ ভাইরাসটি ন্যূনতম 80% হলেও কার্যকর হবে। আর বর্তমানে তারা এই ভ্যাকসিন থেকে আরেকটু মডিফাই করে এমনভাবে তৈরি করছে যাতে সুস্থ হয়ে যাওয়া রোগীর যেন দ্বিতীয়বার আর করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত না হয়।

Advertisement
37 Comments

37 Comments

  1. Md Rakib

    Md Rakib

    May 22, 2020 at 3:49 pm

    asle valo

  2. MD Rahul

    MD Rahul

    May 22, 2020 at 3:53 pm

    g

  3. MD Rahul

    MD Rahul

    May 22, 2020 at 3:53 pm

    good news

  4. firoz alam niloy

    firoz alam niloy

    May 22, 2020 at 4:11 pm

    good news

  5. Fatiha tus ilma

    Fatiha tus ilma

    May 22, 2020 at 5:13 pm

    Good

  6. Tanvir hossen

    Tanvir hossen

    May 22, 2020 at 6:29 pm

    Good

  7. Maria Hasin

    Maria Hasin

    May 22, 2020 at 8:20 pm

    Okay

  8. Zillur Rahman

    Zillur Rahman

    May 22, 2020 at 8:42 pm

    আসলে তো ভালই হবে

  9. Muktadir Hasan

    Muktadir Hasan

    May 22, 2020 at 9:25 pm

    what?

  10. Md Ahsan Habib

    Md Ahsan Habib

    May 22, 2020 at 9:57 pm

    Nice

  11. Albi Chy

    Albi Chy

    May 22, 2020 at 11:46 pm

    Good job

  12. Mojammal Haque

    Mojammal Haque

    May 23, 2020 at 12:16 am

    Humm

  13. Md Nesar Uddin

    Md Nesar Uddin

    May 23, 2020 at 2:45 am

    ভালো

  14. Md Ruhul Amin

    Md Ruhul Amin

    May 23, 2020 at 8:51 am

    good

  15. Riad Hasan

    Riad Hasan

    May 23, 2020 at 12:20 pm

    Very nice

  16. Riad Hasan

    Riad Hasan

    May 23, 2020 at 12:25 pm

    Good

  17. Md Golam Mostàfa

    Md Golam Mostàfa

    May 23, 2020 at 12:32 pm

    Allah doya korun

  18. Ibna Mezan

    Ibna Mezan

    May 23, 2020 at 12:43 pm

    good news

  19. Anisur Rahman

    Anisur Rahman

    May 23, 2020 at 2:36 pm

    nice

  20. Shahin Shan

    Shahin Shan

    May 23, 2020 at 3:17 pm

    ok

  21. Humayun Kabir

    Humayun Kabir

    May 23, 2020 at 5:07 pm

    Gd

  22. Fahema Akter

    Fahema Akter

    May 23, 2020 at 6:43 pm

    Gd

  23. Trisad Saha

    Trisad Saha

    May 23, 2020 at 10:18 pm

    Gd

  24. Sharif Zindaneee

    Sharif Zindaneee

    May 23, 2020 at 10:23 pm

    GD

  25. Kamal Chy

    Kamal Chy

    May 23, 2020 at 11:24 pm

    সুন্দর পোস্ট।ধন্যবাদ

  26. Priyam Biswas

    Priyam Biswas

    May 24, 2020 at 1:14 am

    Tnx to all

  27. Khairul Kabir

    Khairul Kabir

    May 24, 2020 at 1:30 am

    inshallah dekha jaak ki hoe

  28. Mainul islam Robin

    Mainul islam Robin

    May 24, 2020 at 11:09 am

    Just nice

  29. Arshia joya

    Arshia joya

    May 24, 2020 at 11:55 am

    Thanks

  30. Aminul Islam Shawon

    Aminul Islam Shawon

    May 24, 2020 at 1:47 pm

    Thanks

  31. Asadullah Jilani

    Asadullah Jilani

    May 24, 2020 at 8:52 pm

    tnx

  32. Avijit Sharma

    Avijit Sharma

    May 25, 2020 at 12:02 am

    good

  33. Mehedi Islam Noman

    Mehedi Islam Noman

    May 25, 2020 at 8:57 am

    Gd

  34. Md jahidul islam shakil

    Md jahidul islam shakil

    May 25, 2020 at 9:21 pm

    মনে হয় না আসবে

  35. Nisat Anzum

    Nisat Anzum

    May 28, 2020 at 11:36 pm

    ভালো

You must be logged in to post a comment Login

Leave a Reply

দেশের খবর

বাংলাদেশের কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত জানতে হলে পোস্ট টি একবার পড়ে দেখুন।

Mainul islam Robin

Published

on

আসসালামুআলাইকুম বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই আশা করি ভাল আছেন আজ আমি আপনাদের মাঝে আরও একটি নতুন ট্রিকস শেয়ার করার জন্য এসেছি।
আজ আমি আপনাদের কে বলবো যে বাংলাদেশের কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত। তাহলে বন্ধুরা চলুন শুরু করা যাক।
কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত সেটা এখান থেকে জেনে নিন।
. চাদপুর- ইলিশ।
২. রাজশাহী- আম এবং রাজশাহী সিল্ক শাড়ি।
৩. টাঙ্গাইল- চমচম এবং টাঙ্গাইল শাড়ি।
৪. দিনাজপুর- লিচু, কাটারিভোগ চাল,চিড়া, এবং পাপড়ের জন্য বিখ্যাত।
৫. বগুড়া- দই
৬. ঢাকা- বেনারসি শাড়ি, বাকরখানি
৭. কুমিল্লা- রসমালাই, খদ্দর (খাদি)।
৮. চট্রগ্রাম- মেজবান, শুঁটকি।
৯. খাগড়াছড়ি- হলুদ।
১০. বরিশাল- আমড়া।
১১. খুলনা- সুন্দরবন,সন্দেশ, নারিকেল এবং গলদা চিংড়ি।
১২. সিলেট- কমলালেবু,চা,এবং সাতকড়ার আচার।
১৩. নোয়াখালী-নারিকেল এবং ম্যাড়া পিঠা।
১৪. রংপুর- তামাক এবং ইক্ষু।
১৫. গাইবান্ধা-রসমন্জুরী।
১৬. চাপাইনবাবগন্ঞ্জ- আম, শিবগঞ্জের চমচম,কলাইয়ের রুটি।
১৭. পাবনা- ঘি এবং লুঙ্গি
১৮. সিরাজগঞ্জ- পানিতোয়া, ধানসিঁড়ির দই।
১৯. গাজীপুর- কাঠাল,পেয়ারা।
২০. ময়মনসিংহ-মুক্তা গাছার মন্ডা।
২১. কিশোরগঞ্জ- বালিশ মিষ্টি।
২২. জামালপুর- ছানার পোলাও,ছানার পায়েস এবং বুড়ির দোকানের রসমালাই।
২৩. মুন্সীগঞ্জ- ভাগ্যকুলের মিষ্টি।
২৪. নেত্রকোনা- বালিশ মিষ্টি।
২৫. ফরিদপুর- খেজুরের গুড়।
২৬. রাজবাড়ী- চমচম এবং খেজুরের গুড়।
২৭. মাদারীপুর- খেজুরের গুড় এবং রসগোল্লা।
২৮. সাতক্ষীরা- সন্দেশ।
২৯. শেরপুর- ছানার পায়েস এবং ছানার চপ।
৩০. বাগেরহাট- চিংড়ি এবং সুপারি।
৩১. যশোর- খেজুরের গুড়, খই, জামতলার মিষ্টি।
৩২. মাগুরা- রসমালাই।
৩৩. নড়াইল- পোড়া সন্দেশ, খেজুর গুড় এবং এই খেজুরের রস।
৩৪. নাটোর- কাঁচাগোল্লা, এবং বনলতা সেন।
৩৫. মেহেরপুর- মিষ্টি সাবিত্রী এবং রস কদম্ব।
৩৬. চুয়াডাঙ্গা- পান, তামাক এবং ভুট্টা।
৩৭. ঝালকাঠি- আটা।
৩৮. ভোলা- নারিকেল এবং মহিষের দুধের দই।
৩৯. পটুয়াখালী- মহিষের দই, কুয়াকাটা।
৪০. পিরোজপুর- পেয়ারা, নারিকেল, সুপারি, আমড়া।
৪১. নরসিংদী- সাগর কলা।
৪২. নওগাঁ- চাল, সন্দেশ।
৪৩. মানিকগঞ্জ- খেজুরের গুড়।
৪৪. রাঙামাটি- আনারস, কাঠাল, কলা।
৪৫. কক্সবাজার- মিষ্টি পান।
৪৬. বান্দরবান- হিল জুস এবং তামাক।
৪৭. ফেনী- মহিষের দুধের ঘি এবং খন্ডলের মিষ্টি।
৪৮. লক্ষ্মীপুর- সুপারি।
৪৯. কুষ্টিয়া- তিলের খাজা এবং কুলফি আইসক্রিম।
৫০. ব্রাক্ষ্মনবাড়িয়া- তাদের বড়া এবং ছানামুখী।
৫১. মৌলভীবাজার- ম্যানেজার স্টোরের রসগোল্লা।
৫২. জয়পুরহাট- উত্তরাঞ্চলে শস্য ভান্ডারের খ্যাত।
৫৩. নারায়াগঞ্জ- সোনালী আঁশ পাটের জন্য বিখ্যাত।
৫৪. শরীয়তপুর- পাট, আদা, পেঁয়াজ, টমেটো।
৫৫. কুড়িগ্রাম- ধান , পাট, তামাক।
৫৬. নীলফামারী- তামাক।
৫৭. সুনামগঞ্জ- পাথর শিল্প, মৎস্য, ধান, সিমেন্ট শিল্প।
৫৮. হবিগঞ্জ- সাদা সিলিকা বালু।
৫৯. পঞ্চগড়- ইট ,বালি, পাথর, চা ,তরমুজ।
৬০. ঠাকুরগাঁও- আলু, ভুট্টা, কাঁঠাল।
৬১. বরগুনা- নারিকেল ও সুপারি।
৬২. লালমনিরহাট- তিস্তা নদী, তিস্তা রেলসেতু।
৬৩. গোপালগঞ্জ- বঙ্গবন্ধু সমাধিসোধ, মধুমতি নদী, কোর্ট মসজিদ।
৬৪. ঝিনাইদহ- ধান, পাট, গম, রসুনআমি পটুয়াখালী জেলার আপনারা কে কোন জেলার তা কমেন্টে জানিয়ে দিন। পোস্ট টি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।

তাহলে বন্ধুরা আজকের মতো এই পর্যন্তই। পরবর্তীতে আবার আসবো আপনাদের মাঝে কোনো একটি নতুন পোস্ট নিয়ে সেই পর্যন্ত সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন ধন্যবাদ।

Continue Reading

দেশের খবর

বাংলাদেশের করোনা ভাইরাসের বিস্তার প্রার্দুভাব

Mehat Hossain Ruman

Published

on

  • আসসালামু আলাইকুম

    সবাই কেমন আছেন আশা রাখি সবাই ভাল আছেন। ইনশাআল্লাহ ভালো থাকবেন এবং ভালো থাকার চেষ্টা করবেন। বর্তমান বিশ্বে যখন মহামারী আকার ধারণ করছে তখন কিভাবে ভাল থাকে বলেন তবু আমরা ভালো থাকার চেষ্টা করব, সাবধানে থাকবো, বর্তমান বিশ্বে যখন করোনা ভাইরাস আক্রান্ত Covid19।
    বাংলাদেশের করোনা ভাইরাস এর ব্যাপক বিস্তার লাভ করছে দিন দিন এর প্রকোপ বেড়ে চলছে
    ভবিষ্যতে কি হয় তা জানা মুশকিল যেখানে ইউরোপ-আমেরিকার মতো বড় বড় রাষ্ট্র বড় হুমকির মুখে পড়তে যাচ্ছে সেখানে বাংলাদেশ মত ছোট দেশ কি বা করতে পারে।
    প্রথম যখন চীনের উহান শহর থেকে করোনাভাইরাস উৎপত্তি হয় তখন ধীরে ধীরে সেটা প্রভাব বিস্তার লাভ করে ধীরে ধীরে সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়ে। আমেরিকা, রাশিয়া, ইতালি, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, ব্রাজিল ইত্যাদি। পৃথিবীর প্রায় 210 টি দেশে করোনা ভাইরাস এর বিস্তার ছড়িয়ে পড়ে। বাংলাদেশে প্রথম একই মার্চ করোনাভাইরাস এর রোগীর নমুনা পরীক্ষা করা হয়। ধীরে ধীরে পুরো বাংলাদেশের ছড়িয়ে পড়ে।
    বর্তমান বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় 50 লাখের মতো এবং মৃতের সংখ্যা সাত লাখের কাছাকাছি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন 35 হাজার 620 জন
    গত 24 ঘন্টা বাংলাদেশ মোট।
    নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে: ১১৫৮৫
    মোট :৩০৮৯৩০
    আক্রান্ত হয়েছে:২৫৪৫
    মোট:৪৭১৫৩
    মৃত্যু :৪০
    মোট মৃত্যু: ৬৫০
    সুস্থ:৪০৬
    মোট সুস্থ:৪৭৪৫
    কথা 24 ঘন্টা বরিশাল শহরে 11 জন পুলিশের শরীরে করনা পাওয়া গেছে এবং তাদের সাময়িকভাবে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
    দিন দিন এর প্রকোপ বেড়ে চলছে। বর্তমানে প্রায় 30 টির বেশী ভ্যাকসিন তৈরি করেছে কিন্তু এর কার্যপ্রণালী বিশেষ কিছু ক্ষতি করতে পারে না। তাই আমাদের নিয়মিত নিজের স্বাস্থ্যবিধি চলতে হবে। প্রতিদিন কম ভালো দশবার সাবান পানি দিয়ে নিজের হাত অত্যন্ত 20 সেকেন্ড ধুতে হবে, মুখে মাক্স পড়তে হবে, এবং হাতে হ্যান্ড গ্লাভস পড়তে হবে, সবসময় হাতে সেনেটারী জীবাণুনাশক হাতে মারতে হবে বিশেষ কোনো কারণ ছাড়া ঘরের বাইরে যাওয়া হবেনা যাওয়া না খুব প্রয়োজন হলে মাস্ক পরে বের হতে হবে। নিয়মিত স্বাস্থ্যবিধি স্বাস্থ্যসম্মত মেনে চলতে হবে। স্বাস্থ্যসম্মত খাবার ফলমূল খেতে হবে তেল জাতীয় খাবার থেকে বিরত থাকতে হবে
    এবং আশেপাশে কোন করোনা ব্যক্তি থাকলে তার কাছ থেকে দূরে থাকতে হবে। হাঁচি-কাশির, সময় মাস্ক ও নুমাল ব্যবহার করতে হবে। স্বাস্থ্যসম্মত বিধি মেনে চলতে হবে জীবন যাপন করতে হবে এবং সব সময় সতর্ক থাকতে হবে।

    তবু আমরা সব সময় আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে দোয়া প্রার্থনা করব তিনি যেন আমাদের সুস্থ রাখেন।
    সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন এটাই কামনা
    Stay Home
    Stay Safe
    সবাইকে আসসালামু আলাইকুম।

Continue Reading

দেশের খবর

ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ আসছে আগামী বুধবার জেনে নিন নিসর্গ কোথায় কোথায় আঘাত হানবে !

Shahed Ahamed

Published

on

পাঠক,

চলুন সরাসরি কথা না বলে চলে যায় কাজের কথায় 2020 সাল আমাদের জন্য যেন একটা অভিশপ্ত একের পর এক দুর্যোগ আসতে চলেছে নানা রকমের দুর্ভিক্ষ তারা নানা রকমের কারণে আমাদের এই দেশটা বা গোটা বিশ্ব তার ভয়ের মধ্যে রয়েছে।।

2020 সালের প্রথম থেকে আমরা নানারকম সমস্যায় জরিয়ে আছি।
এদিকে নানারকম রোগে ভুগছি একের পরে তারপর আবার নানা ধরনের ঝড় এসে আমাদের লন্ডভন্ড করে দিচ্ছে।

গেল কিছুদিন আগে একটি ঝড় এসে আমাদের সারাদেশে প্রায় সবকিছু লণ্ডভণ্ড করে দিয়েছে সেটার নাম হলো আমফান।
খুব ভয়াবহ এবং অনেক ক্ষতি সাধন করেছে দেশের অনেক ঘরবাড়ি নষ্ট করে দিয়েছে এবং দেশে 8 থেকে 15 জনের মতো প্রাণ গেছে এই ঝরের কারণে।

যে ঝড় আসতে চলেছে তার নাম হলো নিসর্গ।
বর্তমানে ভারতের আবহাওয়াবিদরা এটা নিশ্চিত করেছে যে এই ঝড়
সম্পূর্ণ নাকি ভারতের উপর দিয়ে বয়ে যাবে।
অন্য কোথাও আঘাত আনবে না তারা বলেছ আগামী বুধবার গুজরাট ও উত্তর মহারাষ্ট্র উপকূলে আছড়ে পড়বে এই ঘূর্ণিঝড় ।

নিসগর্ বাংলাদেশে আসার বা বাংলাদেশ কোন রকম ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার চান্স নাই।

যদি এইটা বাংলাদেশের দিকে আসে তবে বাংলাদেশের কোন প্রভাব পড়বে না এবং কোন ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।

ঝড়ের গতিবেগ টা সম্পন্ন তারা বলতে পারিনি তবে ঝড় আসলে সেটা নির্ধারণ করতে পারবে এটা বলেছে তারা।

সুতরাং আমাদের দেশে অর্থাৎ বাংলাদেশে কোন রকম গুজব ছড়ানোর কোন মানেই হয়না। আমাদের দেশে কোনো আঘাত আনবে না কোনো ক্ষয়ক্ষতি করবে না সোনা আমরা এটা থেকে সাবধান থাকবো যেন কোন রকম গুজব না ছড়ায়।

ভারতের মুম্বাই শহরে সবথেকে বেশি আঘাত হানবে।

তাই আপনারা গুজব ছড়াবেন না অন্যের গুজব ছড়ানো থেকে বিরত থাকুন আর নিজেকে সচেতন রাখুন আজকের মতো এখানেই শেষ করছি।

অনেক ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন

Continue Reading