আপনার সবথেকে পছন্দের অ্যান্ড্রয়েড ফোন সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য জেনেনিন

আসসালাম উলাইকুম, পাঠকবৃন্দ আশা করি আপনারা সবাই ভালো আছেন এবং সুস্থ আছেন। করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে নিজেকে এবং আপনার পরিবারকে সচেতন রাখেন। আজকে আমি আপনাদের সবথেকে প্রিয় আয়ন্ড্রয়েড ফোন সম্পর্কে লিখা শুরু করছি তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করি তাহলে-


📢 Promoted post: বাংলায় আর্টিকেল লেখালেখি করে ইনকাম করতে চান?

অ্যান্ড্রয়েড কী?

আপনি যদি ইন্টারনেট ব্যবহারকারী হন তবে অবশ্যই আপনার নামটি অ্যান্ড্রয়েড শব্দটি শুনে থাকতে হবে। আজ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলি সারা বিশ্বে সর্বাধিক ব্যবহৃত হয় কারণ অ্যান্ড্রয়েড সর্বদা মানুষের প্রয়োজন বোঝে এবং যুক্তিসঙ্গত মূল্যে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলি চালু করে। আপনি যদি একজন অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীও হন এবং বর্তমানে অ্যান্ড্রয়েড ফোনে এই নিবন্ধটি পড়ছেন তবে অবশ্যই আপনার আজকের এই নিবন্ধটি অবশ্যই পড়া উচিত। কারণ এই নিবন্ধে আমরা আপনাকে বলব অ্যান্ড্রয়েড কী? তাকে বিস্তারিতভাবে বর্ণনা করছি।

👉Read more: ফুল নিয়ে ক্যাপশন (সাদা ফুল, কৃষ্ণচূড়া ফুল, সূর্যমুখী, সরষে ফুল, রঙ্গন ফুল) উক্তি, স্ট্যাটাস

অ্যান্ড্রয়েড কী? এটি সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য!

অ্যান্ড্রয়েড গুগল দ্বারা বিকাশ করা একটি মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম। অ্যান্ড্রয়েড লিনাক্স কার্নাল এবং অন্যান্য ওপেন সোর্স সফ্টওয়্যার থেকে নির্মিত। যা বিশেষভাবে টাচ স্ক্রিন এবং ট্যাবলেটটিতে কাজ করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। তবে বর্তমানে গুগল তাদের ইন্টারফেসের ভিত্তিতে আকর্ষণীয় বৈশিষ্ট্যগুলি সরবরাহ করে কেবল অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনই নয় বাজারে অ্যান্ড্রয়েড টিভি, ঘড়ি ইত্যাদি ডিভাইস বাজারে নিয়েছে। আজ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ভারত বিশ্বজুড়ে সর্বাধিক ব্যবহৃত অপারেটিং সিস্টেম। অ্যান্ড্রয়েডের ইন্টারফেসটি স্ক্রিনে ভার্চুয়াল কীবোর্ড টেপিং, সোয়াইপিং, পঞ্চিং ইত্যাদির সাথে বেশ আকর্ষণীয়। এর সাথে সাথে, অভ্যন্তরীণ হার্ডওয়্যার অ্যাক্সিলোমিটার, জাইরোস্কোপ এবং প্রক্সিমিটি সেন্সার ইত্যাদি সাধারণত একটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে পাওয়া যায়।

অ্যান্ড্রয়েড কখন এবং কেন চালু হয়েছিল?

২০০৭ সালে যখন অ্যান্ড্রয়েড চালু করা হয়নি, তখন আমরা কেবল ফোনে উপস্থিত ইনবিল্ট গেমস বা অ্যাপ্লিকেশনগুলি ব্যবহার করতে পারি। এর পরিপ্রেক্ষিতে, ২০০৭ সালে, গুগল লিনাক্স সফ্টওয়্যার ভিত্তিক অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম চালু করেছে। যার কারণে আমরা আজ স্মার্টফোনে সহজেই অনেক গেমস, সোস্যাল অ্যাপস চালাতে পারি।

grathor-ads

অ্যান্ড্রয়েডের ইতিহাস

অ্যান্ড্রয়েড ইনক (সংস্থা) শরবতে ডিজিটাল ক্যামেরা হিসাবে অ্যান্ড্রয়েড চালু করার পরিকল্পনা করছিল। তবে ভবিষ্যতে ক্যামেরার পরিবর্তে আরও ক্যামেরার পরিবর্তনগুলি দেওয়া, অ্যান্ড্রয়েড ইনক। ২০০৩ সালে অ্যান্ডি রুবিন সহ আরও তিনজন ব্যক্তি আবিষ্কার করেছিলেন। তবে দু’বছর পরে জুলাই ২০০৫ এ গুগল এটিকে অ্যান্ড্রয়েডের শক্তিশালী ভবিষ্যতের কার্যকর সম্ভাব্যতা হিসাবে $ ৫০ মিলিয়ন ডলারে কিনেছিল। এবং অ্যান্ডি রুবিনকে অ্যান্ড্রয়েড বিকাশকারী খেতাব দিয়েছেন। ২০০৮ সালে প্রথম অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন চালু করার পরে, অ্যান্ড্রয়েড পর্যায়ক্রমে বৈশিষ্ট্যগুলি আপগ্রেড করার জন্য নতুন সংস্করণ (গুলি) প্রবর্তন করে। আজ অ্যান্ড্রয়েড বিশ্বব্যাপী ১০০ টি ভাষায় উপলভ্য। এ ছাড়া,  অ্যান্ড্রয়েড এর প্রথম সংস্করণ ১.০ নভেম্বর ২০০৭ সালে চালু হয়েছিল। বর্তমানে অ্যান্ড্রয়েডের সর্বশেষতম সংস্করণ হ’ল “পাই” ৯.০ যা আগস্ট ২০১৮ এ চালু হয়েছিল। ২০১১ সালের পর থেকে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলি পুরো বিশ্বে সবচেয়ে বেশি কেনা।

সর্বোপরি, অ্যান্ড্রয়েড ফোন কেন মানুষের প্রথম পছন্দ?

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের জনপ্রিয়তার মূল কারণ এটি উপস্থিত অপারেটিং সিস্টেম যা কোনও ব্যবহারকারীর পক্ষে এটি ব্যবহার করা খুব সহজ। এগুলি ছাড়াও গুগল প্রদত্ত আপডেটগুলি সরাসরি অ্যান্ড্রয়েড সিস্টেমে প্রাপ্ত হয়। এগুলি ছাড়াও অন্যান্য মূল কারণটি হ’ল অ্যান্ড্রয়েড সমরফোন অন্যান্য আইওএস, উইন্ডোজ ইত্যাদি অপারেটিং সিস্টেমের তুলনায় সস্তা। আজকের নিবন্ধে আপনি সহজ ভাষায় শিখেছেন অ্যান্ড্রয়েড কী? আমরা আশা করি এই নিবন্ধটি আপনার জন্য কার্যকর হবে। এছাড়াও, আপনার যদি কোনও প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকে তবে নীচে মন্তব্য করে আমাদের জানান।

📢 Promoted Link: Unlimited Internet Package Teletalk 2022 3G, 4G

Related Posts

12 Comments

মন্তব্য করুন