Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

টিপস এন্ড ট্রিকস

কিভাবে ভালো মানের পোস্ট অথবা ইউনিক আর্টিকেল লিখবেন? আর্টিকেল লিখে ইনকাম।

Online Desk

Published

on

আজ আমি আপনাদেরকে বলবো কিভাবে ভাল মানের আর্টিকেল অথবা পোস্ট লিখতে হয়। আশা করি পুরো পোস্টটি কষ্ট করে শেষ পর্যন্ত পড়বেন।

বর্তমানে ইন্টারনেটের বাজারে একজন আর্টিকেল লেখক এর মূল্য অনেক। একজন আর্টিকেল লেখক  হতে গেলে আর্টিকেল এর বিষয় অনেক কিছু জ্ঞান থাকতে হয় – মনে যা চাইল তাই লিখে পোস্ট করে দিলাম এভাবে কখনোই আর্টিকেল লেখক হওয়া যায় না,  সবকিছুর মতোই আর্টিকেল লেখার ও একটা নিয়ম রয়েছে। একটি ওয়েবসাইটের বা ব্লগের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে আর্টিকেল। তার জন্য দরকার একজন দক্ষ লেখক।

আর অনলাইনে আর্টিকেল লেখকদের মাঝে সবসময় প্রতিদ্বন্দ্বিতা লেগেই থাকে।কার পোস্ট বেশি ইউনিক এবং ভালো করতে পারে? কে বেশি পাঠক পাচ্ছে? কেউ কাউকে জায়গা করে দেয় না বরং এখানে নিজের জায়গা নিজেকেই করে নিতে হয়।

তাই নিজেকে একজন দক্ষ আর্টিকেল লেখক হিসেবে গড়ে তুলতে হলে নিচের পয়েন্ট গুলোর দিকে ভালোভাবে নজর দিতে হবে।

* ক্যাটাগরি অথবা বিভাগ নির্বাচন:

একজন দক্ষ আর্টিকেল লেখক প্রথমে তার ক্যাটাগরি নির্বাচন করে। আর্টিকেল বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। যেমন: নিউজ, ইন্টারনেট, আউটসোর্সিং, ফ্রিল্যান্সিং, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, টিউটোরিয়াল, বায়োগ্রাফী, রিভিউ, অভিজ্ঞতা শেয়ার ইত্যাদি।

* বিষয়ের উপর সুস্পষ্ট ধারনা:

আপনি যেই বিষয়ে লিখবেন তার উপর সুস্পষ্ট ধারনা থাকা আবশ্যক, যদি স্পষ্ট ধারনা না থাকে তবে জেনে নিবেন, কেননা আপনার লেখার সাহায্যেই আরেক জন বুঝবে। তাদের বিভিন্ন প্রশ্ন থাকতে পারে সেগুলোর সমাধান আপনাকেই দিতে হবে, তাই বিষয়ের উপর বিস্তারিত ধারনা নিয়েই লিখতে বসবেন।

* ব্যাকরণ, বানান, বিরাম চিহ্নের সঠিক ব্যাবহার:

ইংরেজী আর্টিকেল লিখতে গ্রামার তো অবশ্যই প্রয়োজন আর বাংলায় লিখার জন্যও বাক্যের আকাঙ্ক্ষা, আসক্তি, যোগ্যতা, চলিত ও সাধু রীতির মিশ্রন এসব বিষয় ঠিক রাখতে হবে। আমরা ইচ্ছেমত বাংলা লিখে থাকি কিন্তু বানান অনেকেই ঠিক মতো জানি না, যেমন: বাধা আর বাঁধা, পরা আর পড়া, জা আর যা এসব কিন্তু এক নয় আবার অনেক দেখা যায় – বড় উপন্যাস লিখেই চলেছি কিন্তু কোথাও দাড়ি কমা নেই, এমন লিখা বুঝতে অবশ্যই সকলের সমস্যায় পড়তে হয়, তাই এসব বিষয় জেনেই লেখা শুরু করা উচিত। সহজ ভাষায় শুদ্ধ বাক্য এবং সহজ শব্দের হতে হবে, তাহলেই সহজেই বুঝতে পারবে আপনার আর্টিকেল।

* প্যারা করে লিখা:

আর্টিকেল লিখার সময় একটানা 10-12 লাইন না লিখে প্যারা প্যারা করে লিখবেন, এতে বিষয় বস্তু বুঝতে সুবিধা হয় পাঠকেরা পড়তে স্বস্তি বোধ করে। তাই বলে অতিরিক্ত লাইন স্পেস দিবেন না।

* ছবির ব্যবহার:

আর্টিকেল যে বিষয়ে লিখবেন সেই সম্পর্কিত এক বা ততোধিক ছবি আপলোড করে দিবেন, মনে রাখবেন ছবি যেন অন্য কোন  ব্লগ থেকে কপি করা যাবে না। যদি বাধ্যতামূলক কপি করা লাগে তাহলে আপলোড করার আগে অবশ্যই ছবিটি কে নিজের মতো করে এডিট করে নিবেন ।

* ভুল তথ্য এবং অপ্রয়োজনীয় লিখা বর্জন:

পুর্বেই পয়েন্টে বলেছি যেই বিষয়ের উপরে লিখবেন তা সম্পর্কে জেনে নিবেন, তাহলে ভুল হবার সম্ভাবনা থাকে না, যদি কোনো ইনফরমেশন ভুল দিয়েও ফেলেন তাহলে কমেন্টে স্বীকার করে নিন, এতে আপনার লেখার প্রতি পাঠকের বিশ্বাস বাড়বে। আর প্রয়োজন ছাড়া কোন প্রকার তথ্য লিখবেন না যেটি আপনার ক্যাটাগরির সঙ্গে কোনো সম্পর্কই নেই।

* শর্টফর্ম ত্যাগ করা:

অলসতা আর টেক্সট এর যুগে সকলেই শর্ট ফর্ম ব্যাবহার করে অভ্যস্ত তাই বলে আর্টিকেলে শর্টভাবে লিখতে যাবেন না, হয়তো এমন অনেক পাঠকেই আছে যারা আপনার শর্ট ফর্ম বুঝবে না। তাই আর্টিকেলগুলো একটু সময় নিয়ে সুন্দর ভাবে গুছিয়ে লিখবেন।

হ্যাপি আর্টিকেল রাইটিং। গ্রাথর ডট কম এ পোস্ট লিখে ইনকাম করতে চান?

ধন্যবাদ সবাইকে।

আউটসোর্সিং

বিকাশে দ্রুততম সময়ে কুইজ খেলে ৫০০ টাকা জিতে নিন।

Abid Asif

Published

on

Bkash quiz

আপনারা অনেকেই জানেন যে, বিকাশ থেক প্রতিদিন ৫০০ জন কে ৫০০ টাকা করে পুরস্কার দেয়া হচ্ছে। এর জন্য আপনাকে শুধুমাত্র ৩ টি সহজ প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। যারা দ্রুততম সময়ের মধ্যে ৩ টি প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে পারবে, তাদের মধ্যে প্রথম ৫০০ জন পাবেন ৫০০ টাকা করে পুরস্কার। তবে যেদিন কুইজ খেলবেন সেদিন অবশ্যই একটি লেনদেন করতে হবে ওই নাম্বার থেকে। হতে পারে সেটা ১০ টাকা সেন্ড মানি করলেন বা মোবাইল রিচার্জ করলেন । এই অফারটি চলবে সেপ্টেম্বরের ৩০ তারিখ পর্যন্ত।

এখন কাজের কথায় আসি। অনেকেই ৪/৫ সেকেন্ডের মধ্যে কুইজ খেলেও বিজয়ী হতে পারছেন না।আবার অনেকেই ১ সেকেন্ডের মধ্যে প্রশ্নের উত্তর দিয়ে বিজয়ী হচ্ছেন। যারা ৪/৫ সেকেন্ডে উত্তর দিচ্ছেন তারা ভাবছেন, ১ সেকেন্ডে কিভাবে  উত্তর দেয়া সম্ভব? হ্যা ১ সেকেন্ডে উত্তর দেয়া সম্ভব, এজন্য আপনার ৪ টা জিনিস দরকারঃ

  1. দ্রুতগতির ইন্টারনেট (চেষ্টা করবেন ভাল ওয়াই ফাই ব্যবহার করতে। ওয়াই ফাই না থাকলে বা ওয়াই ফাই এর স্পীড কম হলে, যদি এম্বি কিনেন, তাহলে আপনার আশে পাশের মোবাইল টাওয়ারের কাছাকাছি বসে কুইজ খেলার চেষ্টা করবেন।)
  2. অল্প এম্বির ব্রাউজার (আমি পাফিন (Puffin Browser) ব্যবহার করি )
  3. একটি ভাল স্মার্টফোন (র‍্যাম দুই জিবি বা এর বেশি হলে ভাল হয়। র‍্যাম কম হলে চেষ্টা করবেন ফোনের ব্যাকগ্রাউন্ডে যেন কোন এপ ওপেন না থাকে। মোবাইলের ধীরগতির কারণেও অনেক সময় ইন্টারনেট ব্রাউজার স্লো হয়ে যায়)
  4. প্রচুর ধৈর্য্য। ধৈর্য্য ছাড়া আপনি কোন কিছু অর্জন করতে পারবেন না।

প্রথমে আপনার ফোনে যত এপ চালু আছে সব অফ করে দিবেন। ফোন বেশী স্লো হলে ফোন রি-স্টার্ট দিবেন। অপ্রয়োজনীয় কোন এপ থাকলে তা ডিলেট করে দিবেন। এবার গুগল প্লে স্টর থেকে পাফিন ব্রাউজার (Puffin Browser) ইনস্টল করে নিন। কয়েক মিনিট লাগবে ইনস্টল হতে। ইনস্টল হবার পর পাফিন ব্রাউজার ওপেন করে এখানে কুইজ খেলার লিংক এ ঢুকে আপনার বিকাশ নাম্বার দিয়ে কুইজ খেলতে থাকুন। লক্ষ্য করে দেখুন এবার প্রশ্নের উত্তর দেবার পর রিলোড টাইম অনেক কমে গিয়েছে।

এখন আপনাকে ১/২ সেকেন্ডের মধ্যে উত্তর দেয়ার জন্য যা করতে হবে, তা হল- প্রশ্ন না পড়ে উরাধুরা ক্লিক করতে হবে যতক্ষন না আপনার তিনটা প্রশ্নের উত্তরই সঠিক হয়। দশবারে না হলে একশ বার, একশবারে না হলে দুইশ বার, এভাবে খেলে যেতে হবে। আমাকে প্রায় এক ঘন্টারও বেশী সময় এভাবে খেলতে হয়েছে শেষ পর্যন্ত ১ সেকেন্ডে উত্তর দেইয়া সম্ভব হয়। এবং এর জন্য প্রয়োজন ধৈর্য্য ধরে বার বার কুইজ খেলে যাওয়া।

মোটকথা, আপনাকে প্রশ্ন এবং অপশন না পড়ে যতদ্রুত সম্ভব প্রশ্নের নিচের অপশন এ ক্লিক করতে হবে। এভাবে অনেক বার চেষ্টা করলে একবার না একবার অবশ্যই আপনি সফল হবেন, শুধুমাত্র দরকার ধৈর্য্য এর। যদি ১ সেকেন্ডে উত্তর দিয়ে ফেলেন, তখনি সাথে সাথে বিকাশ এপ এ ঢুকে একটি লেনদেন করে ফেলুন। আমি বিকাশ আইডি থেকে ১০ টাকা মোবাইল রিচার্জ করেছিলাম। লেনদেন না থাকলে কিন্তু টাকা পাবেন না।

আপনার বিকাশ আইডি না থাকলে এই লিংক থেকে বিকাশ এপ ডাউনলোড করে নিনঃ https://bka.sh/next?c=signup&uuid=C1GGP73O1

ডাউনলোড করার পর আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ছবি এবং আপনার বিস্তারিত তথ্য এপ এ দিয়ে ঘরে বসে নিজে নিজেই বিকাশ আইডি খুলতে পারবেন।

এই পোস্টটি যদি আপনার উপকারে আসে তাহলে অন্যদের সাথেও শেয়ার করুন এবং কিছু জানার থাকলে পোস্টের নীচে কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।

Continue Reading

টিপস এন্ড ট্রিকস

মোবাইল থেকে কম্পিউটারে যেকোনো তথ্য সেন্ড করুন একদম সহজেই।বেস্ট ট্রিক্স এন্ড টিপ্স।

Naimul Islam

Published

on

আপনাদের অনেক সময় মোবাইল থেকে জরুরী তথ্য ল্যাপটপ অথবা কম্পিউটারে নিতে হয়। অথবা ল্যাপটপ এবং কম্পিউটারের স্টুরেজ বেশি থাকে বিধায় মোবাইলের স্টোরেজ খালি করার জন্য আপনারা অনেক সময় বিভিন্ন ধরনের ছবি, তথ্য ল্যাপটপে নিয়ে থাকি। আপনারা চাইলে বিভিন্নভাবে মোবাইল থেকে ল্যাপটপ বা কম্পিউটারে বিভিন্ন ধরনের তথ্য সেন্ড করতে পারেন। অথবা শেয়ার করতে পারেন। এর মধ্যে কতগুলো বিশেষ পদ্ধতি আছে। যার মাধ্যমে আপনার চাইলে সেটি ল্যাপটপ অথবা কম্পিউটারে নিতে পারবেন। 

অবশ্যই পড়বেনঃ১/এড দেখে ধুমচে আয় করুন।পেমেন্ট বিকাশে।

২/প্লে স্টোরে এপ ইন্সটল রিওয়ার্ড নিন মাসে ৩-৫ ডলার ক্রেডিট। ১০০% প্রুফসহ   একদম ফ্রীতে।  

যেমনঃ ইউএসবি পোর্টের মাধ্যমে নিতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে যেকোনো একটি ইউএসবি পোর্ট মোবাইল এবং ল্যাপটপ এর মধ্যে নিতে হবে ইউএসবি। আমরা যে চার্জার ব্যবহার করি যার মধ্যে দেখবেন অনেক চার্জারে ইউএসবি পোর্ট থাকে। সেটি আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। অথবা এখনকার দিনের ল্যাপটপের ইউএসবি পোর্ট দিয়ে দেয়া হয় সেটি ব্যবহার করার ফলে আপনাকে প্রথমত মাই পিসি অথবা মাই কম্পিউটার ঢুকতে হবে। এরপর একটি দেখবেন আপনাত ফোনের নামে একটি হার্ডডিস্ক অথবা নতুন একটি ফাইল এসেছে অথবা নতুন একটি এসেছে যেটা আপনার ইউএসবি পোর্টের মোবাইলের স্টোরেজ কে বোঝায়। এখানে আপনাকে ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করার পর যে সকল ফোনের মেমোরিতে যে সকল তথ্য আছে সবগুলো ফাইল আকারে থাকবে। সেখান থেকে আপনাকে যেকোন যে তথ্যটি আপনি কম্পিউটারে নিতে চান সেটি কি আপনাকে থেকে কাট (Cut) করতে হবে এবং কাট করে নিয়ে আপনাকে  সেটা কম্পিউটারের যেকোনো একটি ফাইলে পেস্ট করতে হবে। পেস্ট করে নেওয়ার পর আপনার কম্পিউটারের সাথে সরাসরি চলে যাবে। এভাবে আপনারা চাইলে যেকোন তথ্য চাইলে মোবাইল থেকে ল্যাপটপ অথবা কম্পিউটারে নিতে পারবেন।

পরবর্তীতে আছে আপনারা চাইলে শেয়ার ইট (Share it) এর মাধ্যমে নিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ যাতে Share it app টি থাকে। সেটি আপনাদের অবশ্যই ল্যাপটপে ইন্সটল রাখতে হবে। তারপর আমাদের মোবাইলে যে শেয়ারইট থাকে সেখান থেকে আপনারা যে কোন একটি ফাইল শেয়ার করতে চাইলে অবশ্যই “শেয়ার অন পিসি” একটি অপশন এ ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করার পর আপনাকে পিসিতে শেয়ার করার সমস্ত বিষয়ে বিভিন্ন পাসওয়ার্ড সেট করে অথবা স্ক্যানারের মাধ্যমে মোবাইল থেকে যেকোন ফাইল শেয়ার করতে পারবেন। কাজে দুই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যে কোনো কিছু শেয়ার করতে পারবেন পিসি অথবা ল্যাপটপ।ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করে পাশে থাকবেন।ধন্যবাদ।

Continue Reading

উইন্ডোজ টিপস

ল্যাপটপে কিভাবে ব্যবহার করবেন এন্ড্রয়েড এপ্স?দেখে নিন।

Naimul Islam

Published

on

অনেক সময় বিভিন্ন দরকারে আপনাকে ল্যাপটপে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস এবং অ্যান্ড্রয়েড সকল সুযোগ সুবিধা নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে। যেমন ধরুন, আপনি ল্যাপটপে একটি গেমস খেলতে চান।যেটি কিনা অ্যান্ড্রয়েডে খেলা সম্ভব। যেমনঃ ফ্রী ফায়ার, ক্লাশ অফ ক্লানস ইত্যাদি। এসব গেম আপনারে চাইলে  ল্যাপটপে খেলতে পারবেন। কিন্তু কিভাবে সম্ভব? কেননা এসব অ্যাপস তো আমরা জানি যে অ্যান্ড্রয়েডে খেলা সম্ভব।অর্থাৎ কম্পিউটারে নয়। কিন্তু এমন একটি সুযোগ আছে যার মাধ্যমে আপনাদের সকল অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস এবং যত সকল সুবিধা আছে তা আপনারা ল্যাপটপেও ব্যবহার করতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে কি করতে হবে আমি আপনাকে সম্পূর্ণ বিবরনের সাথে বলছি। 

ল্যাপটপে বিভিন্ন ধরনের এন্ড্র‍্যেড অ্যাপস ইনস্টল এর জন্য আপনাকে বিশেষ একটি এপ্লিকেশন ইন্সটল করতে হবে। এই অ্যাপ্লিকেশনটি হলো একটি এন্ড্রয়েড ভার্সন অথবা ইমুলেটর। আপনারা চাইলে যেকোনো ধরনের অ্যান্ড্রয়েড সিস্টেম আপনারা ল্যাপটপেও পারবেন অর্থাৎ আপনাকে শুধুমাত্র একটি অ্যাপ্লিকেশনের মত করে ইমুলেটর এপ্লিকেশনটি ইন্সটল করতে হবে। এবং সেই এপ্লিকেশনটি  যখন উপেন করবেন তখন এর ভিতরে গুগল প্লে স্টোর থেকে শুরু করে গুগল প্লে সার্ভিস সকল কিছুই থাকবে। আপনি সেখান থেকে গুগল প্লে স্টোর এর মাধ্যমে যে কোনো অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল করে খুব সুন্দর ভাবে সেখানে চালাতে পারবেন। যেকোনো ধরনের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন। এরমধ্যে আমি আপনাকে ভালো ভালো কতগুলি ইমুলেটর অ্যাপ্লিকেশনের নাম বলব যেগুলো সম্পূর্ণ ফ্রিতে আপনারা চাইলে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন সরাসরি ইন্টারনেট থেকে। ভালো এবং একটি বিশ্বস্ত সাইট থেকে ডাউনলোড করবেন কেননা এখনকার সময়ে কিভাবে আপনাকে স্ক্যাম অথবা ম্যালিসিয়াস এপ্লিকেশন দিয়ে দিবে আপনি তা বুঝতে পারবে না। কাজেই বিশ্বস্ত সাইট থেকে ডাউনলোড করার চেষ্টা করবেন। কত গুলো বেস্ট ইমুলেটর অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে আছেঃ

১/ARChon

২/Bliss OS

৩/Bluestacks

৪/GameLoop

৫/Genymotion

আপনারা চাইলে এই সকল অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে যেকোনো একটি এপ্লিকেশন ইন্সটল করলে পারবেন অথবা ডাউনলোড করতে পারবেন। তবে এর মধ্যে বেশির ভাগ বাংলাদেশ ইউজাররা ব্লু স্টেক এবং গেম লুপ ব্যবহার করে থাকে। এর মধ্যে আপনি চাইলে ব্লুস্টেক ইন্সটল করে ব্যবহার করতে পারেন। এটি ফ্রিতে আপনার ইন্সটল করতে পারবেন।32 bit Windows এর জন্য ব্লুস্টেক ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করেন। ইন্সটল করে নেওয়ার পরে আপনাকে এর মধ্যে ঢুকতে হবে।

অবশ্যই পড়বেনঃ

১/এড দেখে ধুমচে আয় করুন।পেমেন্ট বিকাশে।

২/প্লে স্টোরে এপ ইন্সটল রিওয়ার্ড নিন মাসে ৩-৫ ডলার ক্রেডিট। ১০০% প্রুফসহ   একদম ফ্রীতে।  

অ্যাপ্লিকেশন এর মাঝে আপনারা গুগল প্লে সার্ভিস এবং গুগল প্লে স্টোর পেয়ে যাবেন। গুগল প্লে স্টোরে ক্লিক করার মাধ্যমে আপনার যে সকল অ্যাপ গুলো প্রয়োজন সেগুলো ইন্সটল করতে পারবেন। অথবা আরও একটি সিস্টেম আছে সেটা হলো আপনি চাইলে সরাসরি মোবাইল থেকে ল্যাপটপে শেয়ার ইট এর মাধ্যমে যে সকল কিছুর প্রয়োজন সেগুলো দিয়ে দিতে পারেন। ল্যাপটপে এরপর আপনার অ্যাপ্লিকেশনের ঢুকে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারবেন। এটা আপনারা দেখলেই বুঝবেন যে আপনার বুঝতে পারবেন কিভাবে ল্যাপটপে চাইলে অ্যান্ড্রয়েড সকল সুযোগ-সুবিধা নিতে পারেন। অথবা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারেন।

Continue Reading






গ্রাথোর ফোরাম পোস্ট

Mojammal Haque
অনুরোধ
Saleh Mohammed
কমেন্ট