Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

দেশের খবর

করুনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছে অক্সফোর্ড

Ankon Meer

Published

on

তাহলে কেমন আছেন আপনারা। আজকের আলোচনা শুরু হবে একটি খুশির সংবাদ নিয়ে বুঝে গিয়েছেন খুশির সংবাদ টা কি। আমরা সকলে ভাবছি এ ভাইরাস কবে শেষ হবে কবে যাবে মনে হয় অপেক্ষার দিনগুলো শেষ। অবশেষে আবিষ্কার হয়েছে এই ভ্যাকসিন। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা কোনাবাড়িতে ভ্যাকসিন আবিষ্কৃত হয়েছে এবং তারা জানিয়েছেন তাদের এই ভ্যাকসিনে দ্বারা কোন ভাইরাস ধ্বংস করা যাবে।1077 জনের উপর পরীক্ষা চালিয়েছেন তারা ইনজেকশন দিয়েছেন তাদের বডিতে এন্টিবডি তৈরি করেছিল এবং টি-কোষ তৈরি করে যা করোনা ভাইরাস এর বিপক্ষে লড়াই করতে সক্ষম করে। এই ভাইরাসের জন্য বৃহত্তর ভাবে বিচারকার্য চলছে তার এখনও ফল পাওয়া যায়নি খুব শীঘ্রই এর ফল পাওয়া যাবে বিচারকার্য সঠিক হলে ভ্যাকসিন সর্বস্তরের প্রচার করা হবে।
যুক্তরাজ্য ইতিমধ্যে ভ্যাকসিনের 100 মিলিয়ন অর্ডার করেছে। আসুন এবার জেনে নেই বাংলাদেশের কোন ভাইরাসের এখন কি অবস্থা চলছে। 24 ঘণ্টায় নতুন আক্রান্ত 3 হাজার 57 জন। এবং মোট আক্রান্ত 2 লাখ 10 হাজার 510 জন। এত সংখ্যক আক্রান্ত একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কিন্তু কোন ভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা অনেক বেশি। 24 ঘন্টায় মোট সুস্থ 1841 জন এবং মোট সুস্থ 11 লাখ পাঁচ হাজার 399 জন। 24 ঘন্টায় মৃত্যুর পরিমাণ 41জন এবং মোট মৃত্যুর পরিমাণ 2709 জন।24 ঘন্টায় বাংলাদেশে করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে 12898 টি। এবং এখন পর্যন্ত করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে 10 লাখ 54 হাজার 559 টি। আসুন এবার মোট আক্রান্তের বিন্যাস জেনে নেই। আইসোলেশন এ আছেন 92 হাজার 402 জন 43.9%. মৃত্যু হয়েছে 1.3 %। এবং মোট সুস্থ হয়েছেন 115 399 জন।54.8%. শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি 6 আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে ভাইরাসের কারণে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার জন্য নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে দেশের সব প্রতিষ্ঠানগুলো আগামী 6 আগস্ট পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।
আসুন জেনে নেই কারণ ও চিকিৎসা সেবা প্রদানকারী বেসরকারি হাসপাতালের তালিকা 1: এবার কেয়ার হসপিটাল ,ঢাকা। 2: স্কয়ার হসপিটাল ,ঢাকা। 3: ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হসপিটাল, ঢাকা। 4:আনোয়ার খান মর্ডান মেডিকেল কলেজ হসপিটাল, ঢাকা। 5: এনাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল, ঢাকা। 6: ইউনাইটেড হসপিটাল লিমিটেড, ঢাকা। 7: ল্যাবএইড হসপিটাল ,ঢাকা। 8:জয়নুল হক সিকদার উইমেন্স মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল প্রাইভেট লিমিটেড, ঢাকা। 9: এএমজেড হসপিটাল লিঃ ঢাকা। 10: ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল ,ঢাকা। 11:আহসানিয়া মিশন ক্যানসার এন্ড জেনারেল হসপিটাল ,ঢাকা। 12:বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব হেলথ সাইন্স জেনারেল হসপিটাল, ঢাকা। 13: ইম্পেরিয়াল হসপিটাল লিমিটেড, চিটাগং। 14: ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ হসপিটাল ,ব্রাহ্মণবাড়িয়া। 15: টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ এন্ড রফাতুল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতাল ,বগুড়া। 16:ডক্টর ফরীদা হক মেমোরিয়াল ইব্রাহিম জেনারেল হসপিটাল কোভিদ ডায়াগনস্টিক ল্যাব ,গাজীপুর। 17: ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হসপিটাল ,গাজীপুর। 18: প্রাভা হেলথ বাংলাদেশ লিমিটেড ঢাকা। 19:শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব মেমোরিয়াল কেপিজে স্পেশালাইজড হাসপাতাল এন্ড নার্সিং কলেজ, গাজিপুর। 20: ডঃ লাল প্যাথ ল্যাব বাংলাদেশ প্রাইভেট লিমিটেড ,ঢাকা।

Advertisement
5 Comments

5 Comments

  1. Maria Hasin Mim

    Maria Hasin Mim

    July 22, 2020 at 1:16 pm

    Sofol hote aro onekta poth baki

  2. Marzia Rahman

    Marzia Rahman

    July 22, 2020 at 1:42 pm

    ভাই, এটা “করুনা” না, করোনা হবে। টাইটেল এ নিজে লিখসে, তাই এই অবস্থা। আর ভিতরের সব তথ্য কপি-পেস্ট করা। বুঝি না, এসব পোস্ট কিভাবে এপ্রুভ হয়। আর আমরা নিজেদের লেখা দিলেও এপ্রুভ করে না।

  3. Md Golam Mostàfa

    Md Golam Mostàfa

    July 22, 2020 at 5:37 pm

    আহা! লেখার কি শ্রী!!

  4. Shehab Hossain

    Shehab Hossain

    July 27, 2020 at 12:47 am

    Oh ty

  5. Mahfuzur Rahman

    Mahfuzur Rahman

    August 6, 2020 at 2:11 am

    Falto jottosob

You must be logged in to post a comment Login

Leave a Reply

দেশের খবর

বন্যায় সাধারন মানুষের অবস্থা এবং করনীয় কি কি।

Abu Bakkar Siddik

Published

on

হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই আশা করি সবাই ভাল আছেন আল্লাহর রহমতে আমি অনেক ভালো আছি।

আজকে আমরা আলোচনা করব বন্যা পরিস্থিতি উন্নত হলেও মানুষের অবস্থা কিরূপ।

বর্তমানে সময় কোন ভাইরাসের কারণে অনেক মানুষ অনেক অসুবিধায় আছে।

এবং এখনো বাইরে চলাকালীনই বন্যা পরিস্থিতি অবনতি হয়েছিল যার কারণে মানুষ আরো ভোগান্তিতে পড়েছে।

বর্তমান সময়ে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেও অনেক দীর্ঘস্থায়ী হওয়ায় মানুষে অনেক অসুবিধা হচ্ছে।

বন্যা পরিস্থিতি পানি অনেক অবনতি হওয়ার কারণে ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে।

বন্যা পরিস্থিতি অবনতির কারণে রাস্তাঘাট ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে গ্রাম অঞ্চলে।

রাস্তাঘাট দাঙ্গার কারণে আজ সাধারণ মানুষের চলাচলের ক্ষেত্রে অনেক সমস্যা দেখা দিয়েছে।

বন্যা পরিস্থিতি আরো অবনতি হওয়ার কারণ দীর্ঘমেয়াদী এই বন্যা।

দীর্ঘমেয়াদী ও বন্যার কারণে মানুষের ঘরে খাবার বিশুদ্ধ পানির অভাব দেখা দিয়েছে।

বিশুদ্ধ পানির কারণে অনেক লোকের বিভিন্ন রকমের রোগ হচ্ছে।

এবং বন্যা পরিস্থিতির অবনতির কারণে মানুষ নিজের সন্তানদের চিকিৎসা করাতে পারছে না হাসপাতলে গিয়ে।

গ্রাম অঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতি অনেক বিষয়ে পরিণত হয়েছিল কিন্তু বর্তমানে দেখা দিয়েছে শহরাঞ্চলেও বৃষ্টির জন্য বন্যা সৃষ্টি হয়েছে।

শহরাঞ্চলে এত পরিমাণে বৃষ্টি হয়েছে যে সেখানে বন্যার সৃষ্টি হয়েছে।

আমরা যারা দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে বসবাস করছে তাদের বন্যা পরিস্থিতির অবনতি অনেক কম হয়ে থাকে।

এবং আমরা যারা দেশটির উত্তরাঞ্চলে বসবাস করছে তাদের বন্যা পরিস্থিতি অনেক ভয়াবহ।

এবং এ বন্যা পরিস্থিতি আমাদের যা-যা করতে হবে।

গ্রামাঞ্চলের যুক্ত প্রতিবছর বন্যা হওয়াটাই স্বাভাবিক। সে ক্ষেত্রে আমাদের প্রত্যেক বছরে এমন ফসল আবাদ করতে হবে যে প্রশ্নগুলো পানিতে নষ্ট হয় । যেমন:আমন ধান।

কেননা এই যে আগাম বন্যা পরিস্থিতি যতই অবনতি হোক না কেন।

অন্তত দুই সপ্তাহের মধ্যে মারা যায় না অর্থাৎ দুই সপ্তাহের অধিক সময় ধরে থাকে।

সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Continue Reading

দেশের খবর

বন্যা পরিস্থিতিতে আমাদের যা যা করতে হবে।

Abu Bakkar Siddik

Published

on

কেমন আছেন সবাই। আশা করি সবাই ভাল আছেন।আপনাদের দোয়ায় আল্লাহর রহমতে আমি অনেক ভালো আছি।।

তো প্রত্যেক দিনের মতো আজকেও আমরা কোন না কোন টপিক নিয়ে আলোচনা করবো।।

আমাদের আজকের টপিক হচ্ছে: বন্যা পরিস্থিতি আমাদের করণীয় কি কি??

আসলে বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাস এবং দ্বিতীয়তঃ বন্যার আক্রমণ অনেক মারাত্বক ভাবে লেগেছে।।

আরে বন্যা পরিস্থিতির মধ্যে আমাদের বিভিন্ন ধরনের রোগ হয়ে থাকে।।

আজ আমরা জানবো এই বন্যা থেকে কিভাবে চলাচল করলে আমরা রোগ থেকে মুক্তি পেতে পারি।।
তো বন্যা পরিস্থিতিতে আমাদের প্রত্যেকেই প্রথমে যে কাজটি করতে হবে।তা হচ্ছে পরিশুদ্ধ এবং বিশুদ্ধ পানি পান করতে হবে এবং বিশুদ্ধ খাবার খেতে হবে।।

আমরা যদি এই সময় বিশুদ্ধ পানি পান করে এবং খাবার খেতে কি খাবার খেয়ে থাকে ইনশাআল্লাহ আমাদের রোগ অনেক কম হবে।।

আর আমাদের যদি কোন কারনে রোগ হয়ে থাকে।তাহলে অবশ্যই আমাদের নিকটবর্তী ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।এবং ডাক্তারের বিধি-নিষেধ অনুযায়ী আমাদের চলতে হবে।।

তাছাড়া বন্যা পরিস্থিতির এই সময়ে আমাদের ঘরে অবশ্যই শুকনো খাবার মজুদ রাখতে হবে। যাতে যেকোনো সময় আমরা এই খাবারগুলো খেতে পারি।।

আর আমাদের পরিবারে যদি কোন ছোট সন্তান থাকে তাহলে।অবশ্যই তাদের অনেক ভালো ভাবে খেয়াল রাখতে হবে।যাতে তারা কখনো পানির কাছাকাছি যেতে না পারে। এবং তারা যেন পানি না যেতে পারে। সে ব্যাপারে আমাদের অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে।।

যেহেতু বন্যার পানির অনেক ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে।তাই, আমাদের আগে থেকে যেকোনো ধরনের চুল বানাতে হবে।যেটি আমরা খাটের উপরে আমরা রান্না করতে পারি।।

এবং অবশ্যই আমাদের চলাচলের জন্য নৌকা বানাতে হবে।যাতে আমরা বন্যা পরিস্থিতি সময় ও ভালোভাবে চলাচল করতে পারি। এবং আমাদের মন কখনো যেতে অস্থিরতা না করে।।

আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ
।।

Continue Reading

দেশের খবর

২৯ শে জুলাই ২০২০ সালের করোনার আপডেট সবাই শুনন।

Abu Bakkar Siddik

Published

on

কেমন আছেন সবাই আশা করি সবাই ভাল আছেন। আমি এখন ভালো আছি।

আমাদের বর্তমান বিশ্বে বর্তমানে এক মহামারী দেখা দিয়েছে এই মহামারী হয়েছে মূলত করোনা ভাইরাস এর কারনে আজকে করোনাভাইরাস আলোচনা করব।।।

আজকে আমি আপনাদের যখন ওভারের চতুর্থ দেবো একটা মূলত পি এম এস স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের থেকে সংগৃহীত।।।

আজ রোজ বুধবার পিএম স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে সংগৃহীত হয়েছে যে,,,

29 জুলাই 2020 এ কারণে আক্রান্ত হয়েছে 3009 জন।।।

আরে নিয়ে মোট করোনাভাইরাস বাংলাদেশ আক্রান্ত সংখ্যা 2 লক্ষ 30 হাজার 217 জন।।।।

এবং গত 24 ঘন্টা পারোনা বাড়িয়েছে বাংলাদেশের মৃত্যু হয়েছে 35 জন।।।।

এ নিয়ে দেশটিতে মোট করোনাভাইরাস মৃতের সংখ্যা হচ্ছে 3035 জন।।।

আর কত 24 ঘন্টা করোনাভাইরাস এর পরীক্ষা করা হচ্ছে 14 হাজার 127 জন।।।

এ নিয়ে দেশটিতে করনা বয়সের মোট পরীক্ষা করা হয়েছে 11 লাখ 51 হাজার 288 জন।।।

এবং গত 24 ঘন্টায় দৃষ্টিতে করোনাভাইরাস সুস্থ হয়েছে 2878 জন।।।

এনিয়ে দেশটিতে করোনা ভাইরাসে মোট সুস্থ হয়েছে 1 লক্ষ 30 হাজার 292 জন।।।।

আর এটাই হলো করোনা ভাইরাসের বাংলাদেশের সর্বশেষ পরিস্থিতি।।।

বর্তমান বিশ্ব কোন ভাইরাসের কারণে নাজেহাল হয়ে পড়েছে আর তাই আমাদের বাংলাদেশকে রক্ষা করার জন্য আমাদের প্রত্যেক নাগরিকের করছে সরকারি বিধি বিধান ও নিয়ম নীতি সুন্দরভাবে মেনে চলা।।।

আমাদের সরকারের বিধান মেনে চলি তাহলে দেখা যাবে যে আল্লাহ তা’আলা অবশ্যই এই ভাইরাস থেকে রক্ষা করবে’।।।

এলাকায় সকল বিধি-নিষেধ মেনে চলবো।।

আর ডাক্তারের মতে আমাদের সব ধরনের পৃথিবী দান করুন এবং পুষ্টিকর খাবার খাব।।।

আমরা চলাচলের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি সাবধানতা অবলম্বন করব সোশিয়ালিস্টিক।।।

আর আপনার যদি কোথাও যায় তাহলে অবশ্যই মাস ব্যবহার করব হাত প্লাস ব্যবহার করব।।

আপনার দুই রাকাত নামাজ পড়ে আমাদের সকলের জন্য দোয়া করব যাতে আমাদের বাংলাদেশের সব নাগরিকই করো না বাইরে থেকে রক্ষা পেতে পারে।।।

Continue Reading