জিমেইল ব্যবহারকারীদের জন্য সুসংবাদ

গুগোল প্রতিনিয়ত নিত্যনতুন পরিষেবা সিস্টেমে যুক্ত করে থাকে। তাছাড়া তাদের যে পরিসেবাগুলো বর্তমানে চালু হয়েছে ওইসব সেবাগুলো তারা নতুন নতুন পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যুগোপযোগী এক্সপেরিয়েন্স নিয়ে আনার চেষ্টা করে। 

গত মাস খানেক আগে গুগল তাদের ইমেইল পরিষেবা জিমেইলে কিছু পরিবর্তন আনে এবং এর ভবিষ্যৎ জিমেইল সম্পর্কে একটি সুস্পষ্ট ধারণা দিয়ে গেল। জিমেইল ব্যবহারকারীরা ইতিমধ্যেই গুগোল হ্যাংআউট, চ্যাট, মিট এর পরিষেবা আওতাভুক্ত হয়েছেন। 

তাছাড়া নতুন একটি ইউজার এক্সপেরিয়েন্স এর নাম হল রুম। যা ফেসবুক মেসেঞ্জার অথবা অথবা হোয়াটসঅ্যাপ এর জন্য ইতিমধ্যেই পেতে চলেছেন। গুগল তাদের জিমেইলে চ্যাট অথবা মিট এর সাথে রুমস এর একটি ট্যাব নিয়ে এসেছে। 

গুগোল চায় তাদের নিয়মিত পরিষেবা গুলো মানুষের যোগাযোগের সর্বোত্তম পর্যায়ে পৌঁছাতে। তারা তাদের সকল সেবা গুলোকে এক জায়গায় নিয়ে আশার মাধ্যমে একটি যুগান্তকারী পরিবর্তন চালু করতে যাচ্ছে। তাই গুগলের নতুন সংস্করণটি উন্মুক্ত হওয়ার মাধ্যমে জিমেইল ছেড়ে গিয়ে বাহিরের অন্য কোন অ্যাপ এ কাজ করার প্রয়োজনীয়তা ফুরাবে। 

তবে সাধারণ ব্যবহারকারীরা প্রথমে এই সেবার আওতাভুক্ত হচ্ছেন না। সর্বপ্রথম g-suite ব্যবহারকারীরা এই জিমেইলের পরিবর্তনগুলো সীমিত আকারে ব্যবহার করতে পারবেন। যারা এন্ড্রয়েড মোবাইলে জিমেইল ব্যবহার করে থাকেন সেখানে খেয়াল করবেন নতুন নকশায় একটি নতুন নেভিগেশন বার যুক্ত হয়েছে যা জিমেইল এর নিচে থাকবে। 

এই পরিসেবাটি শুধুমাত্র জিমেইল অ্যাপটি আপডেট করার মাধ্যমে পাওয়া যাবে। 

নতুন নেভিগেশন বার এর সাথে ট্যাব হিসেবে মেইল, চ্যাট, রুম, মিট থাকবে। পুরনো সংস্করণ এর মতো এখানেও মেইল বাটন এর মাধ্যমে আপনারা মেইল করার সুবিধা পাবেন। এবং এর সাথে অন্য বাটনগুলোর মাধ্যমে চ্যাট ও ও মিট এর সুবিধা পাবেন যারা ইতিমধ্যে অনেকেই পাচ্ছেন। 

তবে মজার ব্যাপার হলো মিট সেবাটি পেতে আপনাদের g-suite ব্যবহারকারী হতে হবে না। কারণ নতুন আপডেটের পরে অনেক সাধারণ ব্যবহারকারী এই সেবাটি পেতে শুরু করেছেন। জিমেইল থেকে অনেকে ভিডিও কল করে তাদের সামগ্রিক মিটিংগুলো সেরে নিতে পারতেন ইতিমধ্যেই। 

কিন্তু অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ এ চ্যাট বাটনটি যুক্ত হলে গুগলের চ্যাট অ্যাপ টি আলাদা করে চালু না করে আপনাদের যে কোনো আলোচনা বা মিটিং সেরে নেয়া যাবে। রমস অথবা নেট এর ক্ষেত্রেও এ সকল সুবিধা এক প্লাটফর্মে এখন থেকে পেতে থাকবেন সাধারণ ব্যবহারকারীরা। 

এবার বলি আপনারা এই সুবিধাটি পেতে কি কি করা লাগবে

ইতিমধ্যে g-suite ব্যবহারকারী হলে আপনাকে এই সুবিধাটি পেতে তেমন বেগ পেতে হবে না। তবে ছোট একটি পরিবর্তনের মাধ্যমে এই কাজটি খুব সহজ ভাবে সম্পন্ন করা যায়। শুধু আপনার এডমিন কে চ্যাট প্রেফারড অপশন সেট আপ করে নিতে হবে। 

এই পরিবর্তনের মাধ্যমে জিমেইলের নতুন নকশা ব্যবহার করতে ব্যবহারকারীরা বাধ্য হবেন। তাই প্রচলিত হ্যাংআউটস এর বদলে সবাইকে গুগোল চ্যাট ব্যবহারে বাধ্য করা হবে। জিমেইলে এই সুবিধাটি পেতে আর মাত্র 15 দিনের মত অপেক্ষা করা লাগতে পারে।

Related Posts

7 Comments

মন্তব্য করুন