★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

বিষন্নতা,দুঃখ,হতাশা,একাকীত্ব অনুভব করছেন তার কিছু কারণ ও বাচাঁর উপায় জেনে নিন

হেলো বন্ধুরা আসা করি ভালো আছেন।আল্লাহর রহমতে আমিও ভাল আছি।তো আজকে আপনাদের মাঝে নিয়ে এলাম এমন একটি পোস্ট যা থেকে আমরা বিষন্নতা,দুঃখ,হতাশা,একাকীত্ব অনুভব করছেন তার কিছু কারণ ও বাচাঁর উপায় বলবো।তো কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক আজকের এই পোস্টটি।

জীবনে দুঃখ,কষ্ট,হতাশা,ডিপ্রেশন,ফ্রাস্টেশন ও বেদনা এসকল কিছুর প্রধান কারণ আমরাই।এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে কীভাবে?তো চলুন জেনে নেই কীভাবে আপনি বা আমরা এসকল কিছুর মূলে রয়েছি।আপনি ডিপ্রেশন এ ভুগছেন,আপনার জীবনে যে সুখ বলতে একটি জিনিস ছিল তা ভুলে গেছেন,জীবনে একাকীত্বই আপনার পরম বন্ধু,আবার দেখেন আপনার প্রিয় মানুষের সাথে বিচ্ছেদের কারণে নিজের মাথায় প্রচন্ড রাগ জমে রয়েছে যার ফলে ফ্যামিলির সাথে খারাপ আচরণ করছেন।এসব করার পাশাপাশি নিজের পিতা-মাতার মন খারাপের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছেন।



এবার একটু ভালোভাবে চিন্তা করেন এই যে এত কিছু হলো তাতে আপনার লাভ কী কোনো লাভ নেই বরং আপনার হাসিখুশি জীবনের বারোটা বাজিয়ে নিজেকে একঘরে করে রাখলেন।অপরদিকে আপনার পিতা-মাতাও অসুখে পড়ে গেল।

এসব ঘটণার মূল কারণ আপনার অধৈর্য্যতা।অধৈর্য্যতা কিন্তু ধ্বংসের মূল করাণ।আপনি একজনকে ভালোবাসেন সে কি আপনাকে ভালোবাসে সে কি আপনার যোগ্য না বুজে কাউকে ভালো লাগলে Realtion এ চলে যান।পরে তাকে ছাড়া আপনি বাচঁবেন না জীবনটা শেষ করে ফেলেন।এসব ভালোবাসা করার আগে দেখে-চিন্তে করবেন তাহলে লাইফ আর ডিপ্রেশনে ও হতাশার লাইফ হবে না।আর যারা ধৈর্য ধরে তারা জীবনে হতাশ হয় না ও ধৈর্যের ফল মিষ্টি হয়।তো সবসময় ধৈর্য ধরে দেখেশুনে কাজ করবেন।

আশা করছি টিউটোরিয়ালটি আপনাদের ভালো লেগেছে ভালো লাগলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন কোথা কোন ভুল থাকলে মার্জিত ভাষায় ধরিয়ে দিবেন এবং অবশ্যই আপনাদের বন্ধু-বান্ধব এবং ফ্রেন্ড সার্কেলের মধ্যে শেয়ার করবেন যাতে তারা উপকৃত হতে পারে। আজকের মত এখানেই বিদায় ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন খোদা হাফেয ইনশাল্লাহ পরবর্তীতে আবারও দেখা হচ্ছে।আর সবসময় গ্রথোরের সাথে থাকবেন।