Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

স্বাস্থ্য

মাথা ব্যাথার সাথে যেন পরিচিত না হতে হয় সেজন্য মেনে চলুন কিছু নিয়ম

Rajib Saha

Published

on

 

স্বাস্থ্য বিষয়ক আজকে যে টপিকটি নিয়ে কথা হবে সেটি হচ্ছে মাথা ব্যাথা থেকে কীভাবে নিজেকে রক্ষা করবেন এবং মাথা ব্যাথার প্রাথমিক কারণগুলো তী কী এই নিয়ে।তো চলুন শুরু করা যাক আজকের আর্টিকেলটি।

মাথা ব্যথা বিশ্বজুড়ে সর্বাধিক সাধারণ সাস্থ্য সমস্যাগুলোর মধ্যে অন্যতম – WHO এর অনুমান অনুযায়ী , সমস্ত প্রাপ্তবয়স্কদের  প্রায় 4 শতাংশের প্রতি মাসে 15 দিন বা তারও বেশি সময় ধরে মাথা ব্যথায় ভোগেন এবং যখন মাথাব্যথা আঘাত হানে, বিশেষত মাইগ্রেন,তখন খুব বাজে একটা পরিস্থিতিতে পড়তে হয় সকলেরই। কিছু কারণ আপনার জেনে রাখা ভালো যেগুলোর জন্য সাধারণত মাথা ব্যাথা হতে পারে ঃ
-ডিহাইড্রেশন বা পানিশূন্যতা – পর্যাপ্ত পানি পান না করা হলে এটি হবে।অর্থাৎ দেহে পানির অভাব ও মাথা ব্যাথার একটি কারণ।
-ঘুমের অভাব, অনেক কম ঘুমালে মস্তিষ্কের নানান ধরনের সমস্যা দেখা দেয়।

-ধূমপান করা

-অনেক ক্ষণ ধরে স্মার্টফোন, কম্পিউটার চালানো বা স্ক্রিণের খুব কাছে যাওয়া।এখন একটা বিষয় মাথায় রাখা জরুরী সেটা হলো রাতে কখনোই High Brightness এ ফোনের স্ক্রিণ রাখবেন না, এতে আপনার চোখের মারাত্মক ক্ষতি হবে এবং মাথা ব্যাথার ও কারণ হবে।রাতের বেলায় ব্রাইটনেস কম রাখুন, এছাড়াও প্লে স্টোর থেকে Bluelight Filter app টি Download করতে পারেন।রাতের অন্ধকারে এইসব ধরণের ফ্লিল্টার ব্যবহার করুন।এতে আপনার চোখের ক্ষতি কিছুটা হলেও কমবে,ফলে মাথাব্যাথাজনিত সমস্যা হবে না।

-যাদের চা-কফি খাওয়ার তীব্র অভ্যাস বা ক্যাফেইন জাতীয় খাবারের প্রতি তীব্র ঝোঁক আছে তারা যদি কয়েকদিন চা-কফি না খান তাদেরও মাথা ব্যাথানজনিত সমস্যা দেখা দিতে পারে।

-অতিরিক্ত ক্ষুদা লাগলে বা অনেকক্ষণ ধরে না খেয়ে থাকলেও মাথা ব্যাথা হতে পারে।

-আশ্চর্যজনক হলেও সত্যি যে অনেকের আবহাওয়া পরিবর্তনের সঙ্গেও মাথা ব্যাথার প্রকোপ দেখা দেয়।

-অনেকক্ষণ ধরে বাহিরে রোদে অবস্থান করলে।

-আপনি যদি ধূমপায়ী না হন তাহলেও অনেক সময় দেখা যায় যারা ধূমপান করে তাদের আশেপাশে থাকলেও মাথা ব্যাথা শুরু হবে।

-মেয়েদের ক্ষেত্রে ইস্ট্রোজেন এর পরিবর্তনের ফলে মাথা ব্যাথা শুরু হয়।

এছাড়াও আরও অভ্যন্তরীণ কারণ থাকতে পারে তবে এই কারণ গুলোই সাধারণ কারণ হিসেবে বিবেচ্য।
এখন মাথা ব্যাথা থেকে নিজেকে দূরে রাখতে যে নিয়মগুলো মানবেন

-পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমান।বেশী রাতে ঘুমালে আর খুব সকালে উঠলে দেখা যায় অনেকেরই মাথা ব্যাথা,অস্থিরতা বা দুর্বল লাগে সারাদিন।

-নরম বালিশে ঘুমানোর চেষ্টা করুন।শক্ত বালিশে অনেকেরই ঘাড় ব্যাথা, মাথা ব্যাথা হয়ে থাকে।

-প্রতিদিন ৭-৮ গ্লাস পানি খান

-চা-কফি এমনভাবে খান, যেন অভ্যস্ত না হোন।

-বেশীক্ষণ রোদে থাকবেন না।গরমে বাইরে গেলে ছাতা নিয়ে বের হলে বেশী ভালো হয়।

-মিষ্টি আলু সিদ্ধ করে খাবেন,গাজর,সবুজ আর হলুদ সবজি,মাইগ্রেনের ব্যাথার জন্য অনেক উপরারী।
-স্ট্রেস থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। এর জন্য মাঝে মাঝে হালকা গান শুনুন।

-নিয়মিত হালকা-পাতলা ব্যায়াম করুন।

উপরোক্ত নিয়মগুলো মেনে চললে মাথা ব্যাথার প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা গড়ে তুলতে পারবেন।
আশা করি আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগেছে। মনযোগ দিয়ে পড়ার ধন্যবাদ।
সবাই ভালো থাকবেন,সুস্থ থাকবেন।

­

Advertisement
32 Comments

32 Comments

  1. Koli Talukder

    Koli Talukder

    May 22, 2020 at 7:47 pm

    Ok

  2. Maria Hasin

    Maria Hasin

    May 22, 2020 at 8:17 pm

    Okay😍

  3. sulay man

    sulay man

    May 22, 2020 at 8:30 pm

    thanks

  4. Muktadir Hasan

    Muktadir Hasan

    May 22, 2020 at 9:21 pm

    ok

  5. Md Ahsan Habib

    Md Ahsan Habib

    May 22, 2020 at 9:49 pm

    Nice

  6. Sakib khan

    Sakib khan

    May 22, 2020 at 11:51 pm

    Gd

  7. Mojammal Haque

    Mojammal Haque

    May 23, 2020 at 12:09 am

    Hummm

  8. Ibna Mezan

    Ibna Mezan

    May 23, 2020 at 2:08 am

    good info

  9. Hridoy Khan

    Hridoy Khan

    May 23, 2020 at 2:35 am

    ygimhjl l

  10. Md Ruhul Amin

    Md Ruhul Amin

    May 23, 2020 at 8:48 am

    good

  11. Arshia joya

    Arshia joya

    May 23, 2020 at 9:52 am

    Vlo lglo

  12. Md Rakib

    Md Rakib

    May 23, 2020 at 10:10 am

    valo tix

  13. Md jahidul islam shakil

    Md jahidul islam shakil

    May 23, 2020 at 10:39 am

    ধন্যবাদ

  14. Riad Hasan

    Riad Hasan

    May 23, 2020 at 12:22 pm

    Nice

  15. Md Golam Mostàfa

    Md Golam Mostàfa

    May 23, 2020 at 12:29 pm

    So Good!

  16. Liyana Rasa

    Liyana Rasa

    May 23, 2020 at 2:00 pm

    Gd

  17. Sabina Akter

    Sabina Akter

    May 23, 2020 at 2:22 pm

    Hm

  18. Anisur Rahman

    Anisur Rahman

    May 23, 2020 at 2:32 pm

    nice

  19. Shahin Shan

    Shahin Shan

    May 23, 2020 at 3:16 pm

    gd post

  20. Nisat Anzum

    Nisat Anzum

    May 23, 2020 at 3:58 pm

    Good post

  21. Shahed Ahamed

    Shahed Ahamed

    May 23, 2020 at 5:01 pm

    Good

  22. Fahema Akter

    Fahema Akter

    May 23, 2020 at 6:37 pm

    Gd

  23. Emon Rafiq

    Emon Rafiq

    May 23, 2020 at 8:52 pm

    Okay

  24. Mehedi Islam Noman

    Mehedi Islam Noman

    May 23, 2020 at 9:20 pm

    Humm

  25. Trisad Saha

    Trisad Saha

    May 23, 2020 at 10:14 pm

    Gd

  26. Albi Chy

    Albi Chy

    May 23, 2020 at 10:48 pm

    ভালো পোস্ট। ধন্যবাদ

  27. Kamal Chy

    Kamal Chy

    May 23, 2020 at 11:20 pm

    সুন্দর পোস্ট।ধন্যবাদ

  28. Khairul Kabir

    Khairul Kabir

    May 24, 2020 at 1:28 am

    matha betha khub koshter

  29. Avijit Sharma

    Avijit Sharma

    May 24, 2020 at 11:56 pm

    good

  30. Ratul Foysal

    Ratul Foysal

    May 26, 2020 at 11:40 pm

    Nc

You must be logged in to post a comment Login

Leave a Reply

স্বাস্থ্য

এমন কিছু মিথ্যা কথা যা আমরা ছোট বেলা থেকে সত্য বলে ভেবে আসছি

Ankon Meer

Published

on

স্বাভাবিক ভাবেই আমারা ছোট বেলা থেকেই যেসকল গল্প শুনে থাকি তা আমরা মনে প্রাণে বিশ্বাস করে ফেলি কুসংস্কার হওয়া সত্ত্বেও। কিন্তু বাস্তবে তা ভুল। আমাদের আজকের আর্টিক্যালে আমরা এমনই কিছু মিথ্যার উদঘাটন করতে চলেছি যা আপনারা সত্য বলে বিশ্বাস করে আসছেন।
১. সেভিং:
আপনারা হয়তো শুনে থাকবেন যে বেশি বেশি সেভ করলে দাড়ি ঘন এবং তারাতাড়ি বাড়ে। এরই জন্য আমরা অনেকেই ছোট বেলা থেকেই সেভ করা শুরু করে থাকি। কিন্তু বাস্তবে তা মিথ্যা। দাড়ি ঘন, কালো বা তারাতাড়ি বাড়া সম্পুর্নটাই নির্ভর করে নিজেদের শারীরিক অবস্থার উপর। যার গ্রোথ যেমন হয় তার দাড়ি চুল তেমনই হয়।
২. কাছ থেকে টিভি দেখা:
বেশিরভাগ মানুষ এটা মনে করে থাকে যে বেশি কাছ থেকে টিভি দেখলে চোখের ক্ষতি হয়। কিন্তু বাস্তবে আমাদের এই ধারার কোনো বৈজ্ঞানিক প্রমাণ নেই। এবং কোনো বৈজ্ঞানিক আজ পর্যন্ত টিভি খুব কাছ থেকে দেখা সম্পর্কে চোখের কোনে ক্ষতি খুঁজে পায়নি। কিন্তু খুব কাছ থেকে টিভি দেখা বাচ্চাদের জন্য খুবই খারাপ অভ্যাস। তাই বাচ্চাদের থেকে এই অভ্যাস ত্যাগ করার জন্য মা বাবা এইসব কথা বলে থাকেন। কিন্তু আমরা এগুলোকে চোখের ক্ষতির সাথে তুলনা করে ফেলেছে। এবং সত্যও ভেবে ফলে। কিন্তু বাস্তবে তা মিথ্যা।
৩. ব্যায়াম করার সময় খাওয়া:
আমরা অনেকেই বিশ্বাস করে থাকি যে ব্যায়াম করার সময় কিছু খেলে শরীরের ক্ষতি হয়। তাই আমরা ব্যায়াম করার সময় খাবার দাবার থেকে দূরে থাকি। কিন্তু আমাদের এই ধারনা ভুল। অলিম্পিকে যারা খেলে তারাও ব্যায়াম করার সময় নিজেদের খাবার দাবার ঠিক রাখে। হ্যা কিছু কিছু খাবার আছে যা ব্যায়াম করার সময় খেলে শারীরিক ক্ষতি
হতে পারে। এবং এমন কিছু খাবার আছে যা খেলে শরীরের আরো উপকার হয়।
৪. সাবান ব্যাক্টেরিয়া ধ্বংস করে:
আমরা প্রতিনিয়ত টিভি তে বিভিন্ন সাবানের বিজ্ঞাপন দেখতে পাই। আর এইসকল বিজ্ঞানে বলে থাকে যে সাবান ব্যাক্টেরিয়া ধ্বংস করে। কিন্তু সত্য কথা হলো সাবান কোনদিনই এইসকল ব্যাক্টেরিয়া মারতে পারে না। তবে তারা পুরোপুরি ভাবে মিথ্যা বলে না। সাবান আমাদের শরীরের এবং হাতের ব্যাক্টেরিয়া ওয়াস করতে পারে

আজকের জন্য এইটুকুই আমাদের পরের আর্টিক্যালে আমরা এরকম আরো কিছু মিথ্যা নিয়ে আলোচনা করবো যা আমরা সত্য বলে ভেবে আসছি

Continue Reading

স্বাস্থ্য

গ্যাস্ট্রিক এর সমস্যা হতে মুক্তি পেতে জেনে নিন কতগুলো কার্যকরী টিপস

Shat rong

Published

on

গ্যাস্ট্রিক কিংবা অ্যাসিডিটির সমস্যায় ভোগেন না এমন মানুষ নেহাৎ কম পাওয়া যাবে । আজকাল গ্যাস্ট্রিক ও অ্যাসিডিটি যেন মানুষের নিত্যদিনের সমস্যায় পরিণত হয়েছে। অনেকেই এই সমস্যার জন্য ঔষধ খেতে খেতে বিরক্ত। তবে কিছু  টিপস ফলো করলে অনেকটাই গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে নিজেকে দূরে রাখা সম্ভব। তাহলে চলুন জেনে নিই গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে নিজেকে দূরে রাখার উপায়গুলো সম্পর্কে ।

♦ নিয়মমত সঠিক সময়ে খাবার খাবেন । এজন্য আগে থেকেই ঠিক করে রাখুন খাবারের নির্দিষ্ট সময়।

♦ খাবার খাওয়ার সময় তাড়াহুড়ো করে না গিলে , আস্তে আস্তে চিবিয়ে খাবার খাবেন । এতে খাবার ভালভাবে ডাইজেস্ট হতে পারবে।

♦ সকালে খালি পেটে কয়েক গ্লাস পানি পান করুন ।

♦ অতিহার বা অনাহার পরিহার করুন ।

♦ একবারে বেশী পরিমাণ খাবার খাবেন না ।এতে হজমে সমস্যা দেখা দিতে পারে । তারচেয়ে অল্প অল্প খাবার কয়েকবারে খেতে পারেন।

♦ পঁচা , বাঁসি, খাবার খাবেন না । একবেলার রান্না করা খাবার বাসি হয়ে গেলে তা অন্য বেলায় খাবেন না ।

♦ পেট খালি রাখবেন না । পেট খালি না রাখতে কিছু সময় পরপর অল্প অল্প করে খাবার  খান।

♦ প্রতি বেলায় খাওয়ার পর একটু হাঁটাহাটি করার অভ্যাস করুন। রাতে খাবার খাওয়ার পর সাথে সাথে শোয়ার জন্য যাবেন না । কিছুক্ষন হাঁটাহাঁটি করে শুতে যাবেন ।

♦ তেল, চর্বিজাত খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন । রান্নার সময় যতটা সম্ভব কম তেল ও মশলা ব্যবহার করুন।

♦ বেশি আঁশযুক্ত খাবার খাওয়ার অভ্যাস করুন । এক্ষেত্রে নানা ধরনের শাক-সব্জি খেতে পারেন।

♦ লাউ কিংবা কাঁচাপেপের তরকারি খেতে পারেন । লাউ ও কাঁচা পেপের তরকারী গ্যাস্ট্রিক এর সমস্যাকে দূরে রাখতে সাহায্য করে।

♦ ভাজা-পোড়া জাতীয় খাবার গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা বাড়িয়ে দেয় । তাই ভাজা-পোড়া জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলুন।

♦ প্রতিদিন কমপক্ষে আট গ্লাস পানি পান করুন।

♦ ইসুভগুলের ভূষি খেলে পেট ভালো থাকে। সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে ইসুভগুলের ভূষির শরবত পান করুন।

♦ দুশচিন্তা মুক্ত থাকুন । দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকতে যোগ ব্যায়াম করতে পারেন।

♦ ক্যাফেইন জাতীয় পানীয় যেমন চা, কফি প্রভৃতি যতটা সম্ভব কম পান করবেন ।

♦  ফাস্ট ফুড এড়িয়ে চলুন । এছাড়া রাস্তার ধারের অস্বাস্থ্যকর খাবার খাবেন না ।

♦ সুষম খাবার খাবেন। ফলমূল খাবেন।

♦ পরিমিত ঘুমাতে হবে । বেশী রাত জাগার অভ্যাস থাকলে তা ত্যাগ করুন ।

উপরিউক্ত টিপসগুলি মেনে চললে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা থেকে নিজেকে অনেকটাই দূরে রাখা সম্ভব হবে ।

তবে কারো যদি গ্যাস্ট্রিকের সমস্যা
খুব বেশি থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ঔষধ খাবেন।

সবাই ভাল থাকুন । ধন্যবাদ।

Continue Reading

স্বাস্থ্য

মুখে দুর্গন্ধ? নিয়ে নিন চমৎকার একটি সমাধান!

Priyam Biswas

Published

on

দেখে নিন কিভাবে মুখের দুর্গন্ধ দূর করবেন:
কেমন আছেন সবাই আশা করছি সকলেই ভাল আছেন।
আমাদের অনেকেই মুখের দুর্গন্ধজনিত সমস্যায় ভুগে থাকে, আর এটি নিরাময় নিয়ে নিন ঘরোয়া একটি সহজ সমাধান তাও আবার সহজলভ্য বেকিং পাউডার দিয়ে। বেকিং সোডা মুখের উচ্চ অ্যাসিডিক স্তরকে কমিয়ে দেয় । এটি দাঁত, মাড়ি বা হাড়ের কোনো ক্ষতি করে না। চলুন তবে দেখিনা কিভাবে এটি মুখের দুর্গন্ধ দূর করে:

আমরা প্রতিদিনই টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত পরিষ্কার করে থাকি আর সেই টুথপেস্টের সাথে যদি আধা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন এবং এটি দিয়ে ব্রাশে নিয়ে দাঁত ব্রাশ করুন। এই পদ্ধতি অবলম্বন করে প্রায় সাত দিন ধরে দাঁত ব্রাশ করে দেখুন, দেখবেন মুখের দুর্গন্ধ অনেকটাই কমে যাচ্ছে দিন দিন। এই টুথপেস্ট দাঁত এবং মুখের গহ্বর পরিষ্কার এবং দুর্গন্ধযুক্ত সমস্যা সমাধানের জন্য যাদুর মতো কাজ করে।

কুমকুম গরম পানিতে আধা চামচ সোডা যুক্ত করুন এবং কিছু সময় অপেক্ষা করুন যাতে সম্পূর্ণ সূরাটি গরম পানিতে দ্রবীভূত হয়ে মিশে যেতে পারে এবং এই মিশ্রণটি মাউথওয়াশ হিসেবে ব্যবহার করুন।এটি সবচেয়ে সহজ মাউথওয়াশ যা আপনার মুখ থেকে দুর্গন্ধ দূর করতে সাহায্য করে। তাছাড়া এই মিশ্রণটি মুখে সকল ব্যাকটেরিয়াকে কোনো পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া ছাড়াই মেরে ফেলতে সক্ষম।
এছাড়াও বেকিং সোডা লেবুর সাথে মিশিয়ে দুর্গন্ধ প্রতিরোধে একটি কার্যকর মিশ্রণ তৈরি করে ফেলতে পারেন। 1 কাপ পানির সাথে 1 চা চামচ বেকিং সোডা, একটি সম্পূর্ণ লেবুর রস এর সাথে ভালো করে মিশিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন দুর্গন্ধ দূর করার একটি কার্যকর মিশ্রণ। লেবুতে এসিটিক এসিড সমৃদ্ধ আর এই অ্যাসিড দুর্গন্ধ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া কে নির্মূল করতে সক্ষম। এই মিশ্রণটি অবশ্যই মুখের ভিতর থেকে তিন মিনিট পরিমাণ রেখে দিয়ে এরপর ভাল করে মুখ দুই থেকে তিনবার ধুয়ে নিবেন সপ্তাহে এই মিশ্রণটি দুই থেকে তিন দিন ধরে দিবেন।
তবে লবণের সাথে বেকিং সোডা মিশিয়ে আপনি চাইলে দুর্গন্ধ প্রতিরোধে মিশ্রণে তৈরি করতে পারেন। কারণ ব্যাকটেরিয়া একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ পিএইচ পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে আর লবণ এবং বেকিং সোডা মিশ্রণে যে উৎপন্ন হয় তা ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলতে অত্যন্ত কার্যকর কারণ এই মিশ্রণের ফলে তৈরি পিএইচ ব্যাকটেরিয়া সহ্য করতে পারে না এটি ব্যাকটেরিয়ার কেবিনে চলতে পারে। আর এই মিশ্রণ তৈরি করার জন্য এক চামচ লবণ আর এক চামচ বেকিং সোডা ভালো করে মিশিয়ে পানির সাথে গারগেল করুন। ধরে এই পদ্ধতি সপ্তাহে অন্তত 3 দিন প্রয়োগ করুন দেখবেন ভাল ফল পাবেন। ধন্যবাদ।

Continue Reading