★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে ভূমিকা রাখতে পারেন এবং পাশাপাশি অর্থ আয় করতে পারেন★এখানে ক্লিক করে বিস্তারিত জানুন★

কখন একজনের প্রতি আরেকজনের ভালোবাসার অনুভূতি জন্মায়?

আসসালামুআলাইকুম, কেমন আছেন সকলে? আশা রাখছি আপনারা সবাই বেশ ভালো আছেন। টাইটেল দেখে নিশ্চই বুঝে গিয়েছেন আজকের আর্টিকেলটা হতে যাচ্ছে ভিন্ন কিছু নিয়ে। কখন একজনের প্রতি আরেকজনের ভালোবাসার অনুভূতি জন্মায়, কখন একটা মানুষ প্রেমে পড়ে, এর বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা কি এসকল বিষয় নিয়ে লেখা হয়েছে এই আর্টিকেলটা। আশা করছি পুরোটা মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

আমাদের জীবনে ভালোবাসা এমন এক ধরনের অনুভূতি, যেটি আমাদের অজান্তেই হয়ে যায়। আমরা বুঝতেও পারিনা কখন আমাদের আরেকজনের প্রতি ভালো লাগার অনুভূতি জন্মায়। এটা কেও বলতে পারবে না কখন, কাকে, কার ভালো লাগবে। কারণ বললাম যে, ভালোবাসা অন্যরকম অনুভুতি যেটি আমাদের অজ্ঞাতেই আমাদের জীবনে চলে আসে। তবে এই ভালোবাসা বা এর অনুভূতি অনেক শক্তিশালী। একবার ভেবে দেখুন তো, কতটা শক্তিশালী হলে ভালোবেসে মানুষ তার জীবন সঙ্গীর জন্য জীবন পর্যন্ত দিয়ে দেয়।

কতটা শক্তিশালী না হলে বিভিন্ন বড় বড় কবি, শিল্পীরা এটি নিয়ে নানান কবিতা, গান, ছন্দ লিখে গেছে। পৃথিবীর সকল মানুষের মধ্যেই এই অনুভূতি কাজ করে থাকে। তবে মনের মধ্যে নিশ্চই একটা প্রশ্ন আসে, ঠিক কোন সময় আমাদের মনে এই অনুভুতির জন্ম হতে পারে।


সত্যি বলতে, ভালোবাসা আসলে কি, কখন আমাদের মনে আরেকজনের জন্য ভালোবাসার জন্ম হয়, কখন আমরা প্রেমে পড়ি বা কার সাথে প্রেমে পড়বো এসব প্রশ্নের সঠিক উত্তর বা ব্যাখ্যা আজও পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন মনবিজ্ঞানি, কবি, শিল্পী, বিভিন্নভাবে এর সংজ্ঞা দিলেও, সেগুলো ছিল আলাদা আলাদা।

অর্থাৎ মূল উত্তর কারোর কাছেই নেই যে কখন আমরা প্রেমে পরবো আরেকজনের সাথে। গবেষকদের মতে, ভালোবাসার এই সম্পর্কটি হয় আত্মার সাথে। তবে বর্তমান যুগে এর সংগা একদমই ভিন্ন। এখনকার প্রেম ভালোবাসা গুলোতে ঘোরাঘোরি, সময় কাটানো, সবার সামনে ভালোবাসার প্রদর্শন করা এগুলোকে এক প্রকার ফ্যাশন হিসেবেই ধরা হয়। তবে মূল কথায় গেলে বলা যায়, স্বাভাবিকভাবে আমাদের কাওকে বেশি ভালো লেগে গেলে, মনের সাথে মনের মিল হয়ে গেলেই আমরা একজন মানুষের প্রেমে পরে যায়। আমাদের মধ্যে এক প্রকার ভালোবাসার অনুভূতির জন্ম হয়। বলা হয় ভালো লাগা থেকে ভালোবাসার জন্ম হয়।

বৈজ্ঞানিক ভাবে বলা হয়, যখন কোনো মানুষ আরেকজনের প্রেমে পড়ে তখন তার শরীরের যেকোনো একটি অংশ সক্রিয় হয়। যেমন একজন ব্যক্তি নেশা করলে তার মাঝে সাময়িক আনন্দের সূচনা হয় তেমনি প্রেমে পড়লে মানুষের মধ্যে এক আনন্দ এবং ভালো লাগার সৃষ্টি হয়, কিন্তু এই আনন্দ হয়ে থাকে দীর্ঘসময়ের জন্য।


দীর্ঘসময়ের এই ভালোবাসার অনুভূতিকে পাওয়ার জন্যেও মানুষ আরেকজনের সাথে ভালোবাসার যেকোনো মাত্রা ছড়িয়ে যেতে পারে।

একজন প্রেমে পড়া ব্যক্তি এবং একজন সাধারণ ব্যক্তির মস্তিকে কিছু ভিন্নতা দেখা যায়। এটাও বলা যায় হরমোন জনিত কারণে আমাদের মধ্যে এই ভালোবাসার অনুভূতিকে পাওয়ার স্বাদ জাগে।

আশা করছি বিষয়টা আপনারা বুঝতে পেরেছেন। তো এই ছিল আজকের আর্টিকেল, কেমন লাগলো জানাবেন। আল্লাহ হাফেজ।

1 Comment

মন্তব্য করুন