★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

কিভাবে কসমেটিক সামগ্রীর ব্যবসা শুরু করবেন? (Cosmetics Business Guide)

আমাদের চারপাশের মার্কেটগুলোতে বরাবরের মতই কসমেটিকস সামগ্রীর পণ্যের চাহিদা বেশি থাকে। প্রতিদিনই কেউ না কেউ কসমেটিকস পণ্য কেনার জন্য দোকানগুলোতে ভীড় করে থাকে।

আর এই থেকে বলা যায়, যারা এখনকার সময়ে Cosmetics Business শুরু করবেন ভাবছেন তারা ভুল সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন না। সঠিকভাবে করতে পারলে এই বিজনেস থেকে প্রচুর অর্থ আয় করার সম্ভবনা থাকছে। তবে যেকোনো ব্যবসা শুরুর আগে আমাদের বেশ কিছু বিষয় সম্পর্কে চিন্তা ভাবনা করতে হয়। এছাড়া কিভাবে আপনারা এই বিজনেস শুরু করতে পারেন ইত্যাদি বিষয়গুলো নিয়ে আমরা আজ বিস্তারিত জানবো। তবে চলুন মূল আলোচনায় আসা যাক।

কসমেটিকস ব্যবসা কি? (What Is Cosmetics Business)

কসমেটিকস সামগ্রীর সাথে আমরা সবাই পরিচিতি। মেয়েদের নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন কসমেটিকস এর পণ্য নিয়ে পরিচালিত ব্যবসাকে বলা হয় কসমেটিকস বিজনেস। মুদির দোকানের ব্যবসার চেয়েও বর্তমানে এই বিজনেস অনেকটা লাভজনক। বর্তমানের মুদি বাজারে প্রতিযোগিতা অনেকটাই বেশি, তবে Cosmetics Business এর ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা খুব একটা নয়। সঠিক প্ল্যান অনুযায়ী পরিচালনা করতে জানলে অবশ্যই এই বিজনেস আপনার জন্য সেরা ক্যারিয়ার অপশন হবে। এখন জেনে নেওয়া যাক এই বিজনেস এর শুরুটা কিভাবে করবেন।

কিভাবে শুরু করবেন Cosmetics Business?

যেকোনো ব্যবসা শুরুর পূর্বে কিছু বিষয় সম্পর্কে চিন্তা করতে হয়। আপনি যে কয়েকটি ধাপে Cosmetics Business শুরু করতে পারেন সেগুলো নিচে দিয়ে দেওয়া হলো।

[bsa_pro_ad_space id=7]

১. পরিকল্পনা: যেকোনো বিজনেস শুরু করার পূর্বে সেটি সম্পর্কে আগে থেকে পরিকল্পনা করাটা জরুরী একটি বিষয়। একটি বিজনেস এর অনেকগুলো ধাপ থাকে বাজেট, প্রোডাক্ট, স্থান ইত্যাদি। এসব বিষয় আপনাকে বিজনেস শুরুর পূর্বে থেকে পরিকল্পনা করে রাখতে হবে। আর তাই আমাদের প্রথম ধাপ অনুসারে আপনি আপনার পুরো ব্যবসা সম্পর্কে একটি পরিকল্পনা করে নিন।

২. সঠিক স্থান নির্বাচন: বিজনেস শুরুর পূর্বে সঠিক স্থান নির্বাচন করাটাও অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ। স্থান বলতে আমরা মার্কেট নির্বাচনের বিষয়ে কথা বলছি। যেমন ধরুন আপনার বিজনেস এর নিশ Cosmetics, কিন্তু আপনি দোকান দিয়েছেন ইলেকট্রিক মার্কেট যেখানে সে স্থানে। এক্ষেত্রে আপনার কোনো লাভ হবে না। আপনাকে এমন একটি স্থান বা মার্কেটে ব্যবসা শুরু করতে হবে যেখানে Cosmetics products এর চাহিদা বেশি।

৩. প্রোডাক্ট/ক্যাটাগরি নির্বাচন

Cosmatics Business এর ক্ষেত্রেও বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর ক্যাটাগরি রয়েছে। Beauty Product, Make-up Product, Skin care products, Face wash ইত্যাদি।

আপনি আপনার দোকানে কোন কোন ক্যাটাগরির পণ্য নিয়ে ব্যবসা শুরু করবেন সেটি নির্বাচন করে নিন।

৪. বাজেট পরিকল্পনা

যেকোনো বিজনেস এর সাথে বাজেট কথাটি জড়িত। অর্থাৎ আপনার বিজনেস এর শুরুতে কত টাকা খরচ করতে হবে এই বিষয়ে আপনাকে পরিকল্পনা করতে হবে।

কেননা বাজেট নির্ধারণ না করে ব্যবসা শুরু করলে পরবর্তীতে আপনার অসুবিধা হতে পারে।

৫. মার্কেটিং

যখন প্রশ্ন আসে বিজনেস এর লাভ সম্পর্কিত, তখন মার্কেটিং বিষয়টি অবশ্যই জড়িত। মার্কেটিং এমন একটি টেকনিক যার দ্বারা আপনি সহজে আপনার বিজনেস বড় করতে পারেন।

মোটামুটি এই ৪ টি বিষয়ের উপর ধ্যান দিলে আপনি কসমেটিকস ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। দেখা হবে পরের আর্টিকেল নিয়ে, আল্লাহ হাফেজ