গোলাপ ফুল গোলাপ ফুল তুমি আছ কই

গোলাপ ফুল কে না ভালবাসে?
গোলাপ ফুল সবাই ভালবাসে।
গোলাপ ফুল দেখলে সবার ছুঁয়ে দেখতে ইচ্ছে করে।

গোলাপ ফুল মানুষ খুব কাছে রাখতে চায়। কেউ যদি সুন্দর একটি গোলাপ পায় তাহলে সেটি পকেটে পুরে নেয়।

আমি একদিন পথের ধারে যাচ্ছিলাম।দেখলাম একটি লোক দূরে কোথাও যাচ্ছে। আমি বললাম কই যাচ্ছ? সে বলল আন্দীর পাড়।আমি বললাম, এত দূরে? সে বলল,গোলাপ ফুল’ আনতে হবে? তাই বলে এত দূরে? সে বলল, যেখানেই থাক গোলাপ ফুল’ আমার চাই।

প্রেমিক প্রেমিকাকে ভালবাসে। প্রেমিকা রোজ বলে, তুমি আমাকে গোলাপ ফুল দাওনা কেন? প্রেমিক বলে, গোলাপ ফুল অনেক দূর’। প্রেমিকা বলে,’তাই বলে কি হয়েছে? গোলাপ ফুল আমার চাই’। প্রেমিক একদিন গিয়ে তাকে গোলাপ ফুল এনে দেয়।তখন তাদের ভালবাসা অনেক গাঢ় হয়।

গোলাপ ফুল নিয়ে কবিতা লিখেছিলেন কবি শ্যাম বাহাদুর থাপা। সে কবিতা অনেক বিখ্যাত হয়েছিল। তিনি বলেন,আমি যদি গোলাপ ফুল নিয়ে কবিতা না লিখতাম তাহলে কেমন করে বিখ্যাত হতাম!

গোলাপ ফুল নিয়ে গবেষণা করেছিলেন জ্যোতিন্দ্র নাথ রায়। তিনি গবেষণা করে দেখেছিলেন, গোলাপ ফুলের অন্তরমহলে একটি বিশেষ বস্তু আছে।তিনি বলেন,গোলাপ ফুলে যদি বিশেষ বস্তু’ না থাকত আমি কেমন করে দুকলম লিখতাম!

গোলাপ নাকি একদিন হেসে উঠে বলেছিল যে আমাকে ভালবাসবেনা।তার মরণ হবে। একদিন শুনলাম জঙ্গার পাড়ে এক নারী মারা গেছে। শেষে শুনলাম, তিনি নাকি গোলাপ ফুলের শোকে মারা গেছে। সেখানেও নাকি অনেক কাহিনী ছিল।

ঘুমের ঘোরে মানুষ স্বপ্ন দেখে। সেই স্বপ্নেও মানুষ গোলাপ ফুলের সাধনা করে।

মানুষ যেদিন স্বর্গে যাবে সেদিনও গোলাপ ফুলের সাধনা করবে। কারন, গোলাপ ফুল সৌন্দর্যের প্রতীক।

আমি আজ একটি কবিতা শোনাবঃ গোলাপ ফুল তুমি আছ কই

গোলাপ ফুল গোলাপ ফুল তুমি আছ কই?
তুমি ছাড়া আমি বল কেমনে রই
যেখানেই যাবে তুমি সেখানেই যাব আমি
তুমি ছাড়া আমি যে গঙ্গা নই

গোলাপ ফুলের প্রেমে পড়েছিলেন রাবড়ি দেবী
তিনি বলেন গোলাপ ফুল ছাড়া আমি কেমনে থাকি
সেই কথাটি আমি ওগো কানে কানে কই
গোলাপ ফুল গোলাপ ফুল তুমি আছ কই?

আসলেই গোলাপ ফুল ছাড়া থাকা যায়না। আমি যদি কখনও পীর হিমালয়ের দেশে যাই সেখানেও গোলাপ ফুল খুঁজব।কারন, গোলাপ ফুল ছাড়া সে সফর সার্থক হবেনা।

আমার দাদা করম আলী একদিন বলেছিলেন, তুই যদি আমাকে একটি গোলাপ ফুল এনে দিতে পারিস আমি তোমাকে বিশাল বড় এক’ পুরস্কার দেব।আমি তাকে একটি গোলাপ ফুল এনে দিয়েছিলাম।তিনি আমাকে ইয়া বড় এক শান কাঠি উপহার দিয়েছিলেন।

আজ আমি যেই বাড়িতে যাব সেখানে নাকি অনেক গোলাপ ফুল ফুটেছে। দেখব, সবচেয়ে সুন্দর গোলাপ কোনটি।

হরে কৃষ্ণ রাম একদিন মসজিদে গেলেন।মসজিদ থেকে তিনি ফিরে এলেন।একজন বললেন কেন? বললেন, এখানে গোলাপ ফুল নেই। গোলাপ ফুলের পূজাই বড় পূজা’।

মানুষ যখন ডাব পাড়তে গাছের আগায় উঠে তখন সে গোলাপ ফুল খোঁজে। সে চিন্তা করে, ওখানে গোলাপ ফুল থাকলে কিছুক্ষণ সাধনা করা যাবে। একজন তো একদিন বলেই ফেলছিল, ওখানে গোলাপ ফুল নেই ওখানে আমি যাব।

এই যে আকাশে এত তারা তার একটিও কিন্তু গোলাপ ফুলের কথা বলেনা।কারন, তারা গোলাপ ফুলের চেয়েও সুন্দর। তারা বলে, গোলাপ ফুল না থাকলে আমরা কি এত সুন্দর হতাম।

গোলাপ ফুল নাকি একদিন হাসতে হাসতে মরে গিয়েছিল।সে বলে,আমি এত সুন্দর আমি না মরলে কি হয়!

ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে মানুষ কত জায়গায় যায়।মানুষ সেখানেও ভাবে একটি গোলাপ ফুল থাকলে বড় ভাল হত।

চিৎকার দেওয়ার আগে মানুষ কি চিন্তা করে? গোলাপ ফুল থাকলে চিৎকারের পরে কোন সমস্যা হবেনা।

ভাই ভাই সম্পর্ক কত মধুর।সেখানে একটি গোলাপ ফুল থাকলে সে সম্পর্ক আরও মধুর হয়ে উঠে।

মা তার সন্তানকে কি বলে? তুই বাজারে গেলে একটি গোলাপ ফুল নিয়ে আসিস,কাল তোর বাবার জন্মদিন।

সেয়ানা পাগল নামে এক লোক ছিল। সে দিন-রাত শুধু গোলাপ ফুল খুঁজত।সে বলত, গোলাপ ফুল না হলে আমার সেয়ানা গিরি ফুটে উঠেনা।

মজার ব্যাপার হল,এই দেশে কোন গোলাপ ফুল নেই। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, একদিন শ্যাম ব্যানেগাল যাব।

Related Posts

23 Comments

মন্তব্য করুন