জিমেইল দিয়ে হাজার হাজার টাকা আয়

জিমেইল দিয়ে হাজার হাজার টাকা আয় 🙂🙂

জিমেইল একাউন্ট তৈরি করা যে খুবই সহজ তা আমার বলার অপেক্ষা রাখে না।শুধুমাত্র নাম,ফোন নাম্বার আর একটি মনে রাখার মতো পাসওয়ার্ড হলেই জিমেইল একাউন্ট  খোলা যায়।

জিমেইল আমরা বিভিন্ন কাজেই ব্যবহার করে থাকি।ছবি পাঠানো,ম্যাসেজ পাঠানো,বিভিন্ন ওয়েবসাইটে রেজিষ্ট্রেশন করা ইত্যাদি। এগুলো ছাড়াও জিমেইল একাউন্ট  দিয়ে যে টাকা আয় করা যায় তা হয়তো অনেকেই জানেন,আবার কেউ কেউ হয়তো প্রথম বারের মতো শুনছেন।তো বেশি বকবক না করে চলুন শুরু করি।

হায় বন্ধুরা,

আমি মোঃ তাহমিদ আলম আজকে আপনাদের বলবো,কিভাবে জিমেইল একাউন্ট  দিয়ে টাকা আয় করা যায়।

মূলত,আমি যে উপায় টি বলবো তা হচ্ছেঃ জিমেইল একাউন্ট  বিক্রি করে অনলাইন থেকে টাকা আয়।

একটি জিমেইল একাউন্ট  খোলা মাত্র ২ মিনিটের ব্যাপার।আপনি যতো বেশি জিমেইল খুলবেন তত বেশি জিমেইল বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারেন।এই জিমেইল একাউন্ট গুলোর দাম ৫ টাকা থেকে ২০ টাকা বা তারও বেশি হতে পারে।এটা সম্পুর্ন আপনার উপর নির্ভর করে যে,আপনি কত টাকায় জিমেইল টি বিক্রি করবেন।

ধরুন,আপনি ৩০ টি জিমেইল (৩০*২=৬০) ৬০ মিনিটে তৈরি করেছেন।একটি জিমেইল যদি ১০  টাকায় বিক্রি করেন তবে,৩০ টি জিমেইল একাউন্ট  দিয়ে আপনি (৩০*১০) ৩০০ টাকা আয় করবেন শুুধু মাত্র ১ ঘন্টায়।

সুতরাং, বেশি বেশি টাকা আয়ের জন্য বেশি বেশি জিমেইল একাউন্ট  তৈরি করতে হবে।

প্রশ্ন হচ্ছে,

#১ জিমেইল একাউন্ট গুলো কোথায় বিক্রি করবেন?

ফেইসবুকে বিভিন্ন গ্রুপ রয়েছে যেখানে জিমেইল কেনা-বেচা হয়।আপনারা সেখানে জিমেইল বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারেন।

#২ ফেইসবুকের কোন কোন গ্রুপে জিমেইল কেনা-বেচা হয়?

#১ জিমেল মার্কেটিং।

#২ জিমেইল মার্কেটিং বিডি।

এমন বিভিন্ন গ্রুপ ফেইসবুকে খোঁজ করলেই পেয়ে যাবেন।যেখানে জয়েন হয়ে খুব সহজেই আপনারা আপনাদের জিমেইল বিক্রি করতে পারবেন।

#৩ যারা জিমেইল কিনবে তারা,ঐ জিমেইল গুলো কি করবে? 

যারা আপনাদের কাছ থেকে জিমেইল গুলো কিনবে তারা অন্যদের কাছে কিছুটা বেশি দামে জিমেইল গুলো বিক্রি করবে অথবা লিড জেনারেশন, সিপিএ মার্কেটিং এর মতো যেকল কাজে অসংখ্য জিমেইল প্রয়োজন সেখানে ব্যবহার করবে।

#৪ একটা ফোন নাম্বার দিয়ে কয়টা জিমেইল একাউন্ট  খোলা যায়?

একটা ফোন নাম্বার দিয়ে ৪/৫ টা জিমেইল একাউন্ট  খোলা যায়।তার বেশি কেউ খুলতে পারবে না।

#৫ তবে আনলিমিটেড/অসংখ্য জিমেইল একাউন্ট খুলবেন কিভাবে?

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন এবং জিমেইল মার্কেটিং এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এটাই।

অসংখ্য জিমেইল একাউন্ট খোলার জন্য আপনার প্রয়োজন একটি ভিপিএন ( আশা করি ভিপিএন কি?তা আপনারা জানেন)।ফ্রি ভিপিএন দিয়ে আনলিমিটেড জিমেইল একাউন্ট খুলতে পারবেন না। এজন্য প্রয়োজন প্রিমিয়াম ভিপিএন।যা আপনারা গুগল প্লে স্টোর থেকে পেয়ে যাবেন।

এককথায়, একটি প্রিমিয়াম ভিপিএন ক্রয় করে আপনারা অসংখ্য জিমেইল একাউন্ট খুলতে পারবেন। যা দিয়ে হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

সর্বপরি,,সফল হবেন ই হবেন এমন ইচ্ছা আর ধৈর্য্য থাকলে আপনি জিমেইল মার্কেটিং করে মাসে হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারবেন।

তো,আমি মোঃ তাহমিদ আলম আজ এখানেই বিদায় নিচ্ছি।শীঘ্রই দেখা হবে আবারও। ততক্ষণ ভালো থাকবেন।আর হ্যাঁ এতক্ষণ সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

আল্লাহ হাফিজ!

 

Related Posts

16 Comments

  1. ধন্যবাদ আপনাকে কমেন্ট করার জন্যে। ভাই,এভাবে ১০০% সম্ভব।আমি এই কাজ করি।আমার সাথে আরো অনেকে আমার গ্রুপে কাজ করে।
    আপনি কি বোঝাতে চাচ্ছেন একটু পরিষ্কার করে বলুন।কোন জায়গায় আপনার সমস্যা রয়েছে

  2. জনাব তাহমিদ আলম আপনাকে ধন্যবাদ। আমি জিমেই ক্রিকেট করে বিক্রি করতে চাই যার জন্য আপনার সহায়তা প্রয়োজন।আমার কন্টাক নং ০১৬২৭১৬৭৫১১।প্লিজ কল মি।

মন্তব্য করুন