জি.পি.এস ফ্রিল্যান্সার থেকে মাসে ১০,০০০ টাকা থেকে শুরু করে ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করুন খুব সহজেই

আউটসোর্সিং বাজারে জি.পি.এস ফ্রিল্যান্সিং প্লাটফর্ম খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বর্তমানে ২,০০,০০০ ফ্রিল্যান্সার একযোগে এই সাইটে কাজ করে টাকা উপার্জন করছে।

বর্তমান প্রজন্মে আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং করে ছাত্র-ছাত্রীরা ঘরে বসেই মাসে ১০,০০০ টাকা থেকে শুরু করে ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করছে। ইনকামের জন্য ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোসিং খুবই চাহিদাসম্পূর্ণ একটি জায়গা যেখানে খুবই সহজেই বেকারত্বকে দূর করে উপার্জন করা সম্ভব করে উঠেছে।

অনলাইন বাজারে কয়েক হাজার ফ্রিল্যান্সিং সাইট বর্তমানে চলমান আছে যা থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা প্রতিনিয়তই উপার্জন করে আসছে। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং দুনিয়াতে নিজেদের শক্ত অবস্থান ধরে রেখেছে “জি.পি.এস” ফ্রিল্যান্সার নামের কোম্পানি। বর্তমানে তাদের সার্ভারে মোট ২,০০,০০০ ফ্রিল্যান্সার একযোগে কাজ করছে। কোম্পানিটি অন্যান্য কোম্পানি থেকে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। সাইটটি ৬ মাস ধরে অনলাইন বাজারে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

এই ফ্রিল্যান্সিং কোম্পানি বর্তমানে ফ্রিল্যান্সারদের জন্য ৭০,০০,০০০ লক্ষ টাকা অনলাইনে বিনিয়োগ করেছেন। এছাড়াও তারা প্রায় ১,০০০০০০০ কোটি টাকা মতন উপার্জন করেছে। সাইটটির বিশেষত্ব হচ্ছে, সাইটটি অন্যান্য সাইট থেকে বেশ আকর্ষণীয় ও খুব দ্রুত ট্যাস্কগুলো এপরূভ করে থাকে। এছাড়াও ফ্রিল্যান্সারা বেশী হওয়াতে এখানে সারাদিনই কাজ পাওয়া যায়। ফ্রিল্যান্সাররা সাইটে বিভিন্নভাবে তাদের কার্য সম্পাদন করে থাকে। এখানে ফ্রিল্যন্সাররা দুইভাগে বিভক্ত যার ভেতর একটি হচ্ছে বাইয়ার এবং আরেকটি হচ্ছে ওয়ার্কার।

এই দুই সিস্টেমে সাইটের বিভিন্ন কার্য  সম্পাদন হয়ে থাকে। এছাড়াও অনলাইন বাজারে বেশ কিছু ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং সাইট আছে। এদের ভেতর কম বেশী সবসময়ই বেশ প্রতিদন্দ্বিতা লক্ষ্য করা যায়। তবে জি.পি.এস ফ্রিল্যান্সার মাত্র ৬ মাস আউটসোর্সিং বাজারে এসে প্রায় কয়েক কোটি টাকা উপার্জন করে ফেলেছে। এর মূল কারণ হচ্ছে তাদের ওয়ার্কার অন্যান্য সাইট থেকে অনেক বেশী।

এছাড়াও তাদের পেমেন্ট সিস্টেমও খুবই ভালো। সর্বোচ্চ ৭২ ঘন্টার ভেতর তারা পেমেন্ট করে থাকে। সাইটের গ্রাফিকাল ডিজাইন অত্যন্ত ভালো যা খুবই সহজেই ফ্রিল্যান্সারদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে থাকে। আপনি যদি ছাত্র-ছাত্রী হন কিনবা অযথা সময় ঘরে বসে কাটাচ্ছেন। তাহলে আপনি আপনার গুরুত্বপূর্ণ সময় এই জি.পি.এস ফ্রিল্যান্সারে ব্যয় করে খুব সহজেই মাসে ১০,০০০ টাকা থেকে ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন।

এইজন্য আপনার প্রয়োজন ইন্টারনেট কানেকশন, মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ ও প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার। এছাড়াও আপনি ইউটিউব থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করে কাজ করতে পারেন। দিন দিন অনলাইন আউটসোর্সিং পেশা জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। প্রতিদিনই বিভিন্ন অনলাইন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীর নিজের স্কিল ডেভেলপড করে আসছে। এছাড়াও কম্পউটার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নিজের ক্যারিয়ার নিজেই পছন্দ করে নিচ্ছে।

তবে অন্যান্য দেশের তূলনায় আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সারদের সুযোগ-সুবিধা বাংলাদেশে খুবই কম। অন্যান্য দেশের সার্ভার অত্যন্ত শক্তিশালী হওয়ার কারণে সেখানে কখনই অনলাইনে ফ্রিল্যান্সিং করে ছাত্র-ছাত্রীদের ভোগান্তির শিকার হতে হয়না। এছাড়াও বাংলাদেশে ফ্রিল্যান্সারদের আর্থিক লেনদেনও বেশ ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে যা অন্যান্য দেশে একেবাড়েই দেখা যাই না।

এরপরও ছাত্র-ছাত্রীরা নিজের বেকারত্বকে মুঁছে দিয়ে অনলাইনে তাদের জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। আউসোর্সিং বা আইটি কাজে দক্ষতা না থাকলে এখান থেকে বেশী উপার্জন করা সম্ভব নয়। এছাড়াও একটি শক্ত নেটওয়ার্ক স্থাপনের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সাররা খুব সহজেই প্রতি মাসে ঘরে বসে ১০,০০০ টাকা থেকে শুরু করে ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত ইনকাম করতে পারে।

আপনিও খুব সহজেই অনলাইনে দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে বিপুল পরিমাণে টাকা উপার্জন করতে পারবেন ঘরে বসেই। এজন্য আপনি আপনার প্রয়োজনীয় সময় অযথা ব্যয় না করে অনলাইনে ঘরে বসে বিভিন্ন কাজ করে খুব সহজেই টাকা উপার্জন করতে পারবেন। আউটসোর্সিং পেশা সামনের দিনে আরো বৃদ্ধি বা প্রসারিত হবে এটাই সবার প্রত্যাশা।

সাইটের লিংকঃ https://gpsfreelancer.com/

Related Posts

8 Comments

মন্তব্য করুন