তিনটি প্রধান বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্ক যা নতুন ব্লগারদের জন্য গুগল অ্যাডসেন্সের বিকল্প হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।

যদি আপনি একজন নতুন বা ছোট ব্লগার হন এবং আপনার সাইট থেকে ইনকাম করার স্বপ্ন দেখে থাকেন, তাহলে আপনার জন্য এই পোস্টটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমি আশা করি এই পোস্টটি আপনার জন্য একটি গোল্ডেন অপর্টিউনিটি হতে পারে।

Propellerads: প্রপেলার অ্যাডস হল একটি এড নেটওয়ার্ক এবং এটি ছোট ওয়েবসাইট জন্য একটি আদর্শ সাইট। আপনার সাইটে এড বসাতে কোনও বিশেষ দক্ষতা প্রয়োজন নেই এবং এটি খুব সহজভাবে সেট আপ করা যায়।

প্রথমেই, আপনাকে এখানে সাইন আপ করতে হবে এবং তারপরে একটি এড ট্যাগ নিতে হবে যা আপনার সাইটে সেট করতে হবে। এরপর, প্রতি 1000 ভিউয়ের জন্য 8-10 ডলার সিপিসি ভিত্তিতে পেমেন্ট করা হয় এবং মাত্র 5 ডলারে পেমেন্ট নেওয়া যায়।

এই সাইটের সুবিধাগুলি হল: এডব্লক বাইপাস, দ্রুত সক্রিয়করণের সুবিধা, পরিষ্কার এড, যে কোনও মনেটাইজ সাইটে এই এড ব্যবহার করা যায় এবং 24/7 সাপোর্ট উপলব্ধ।

এবং অসুবিধা হলঃ আপনি সেই অ্যাডালট ওয়েবসাইটে প্রপেলারের অ্যাড বসানো যাবে না এবং এর মাধ্যমে পেমেন্ট দেওয়া যাবে না। তবে পেমেন্ট করার জন্য আপনি পেপাল, ওয়েবমানি এবং কিছু অন্যান্য মাধ্যমে পেমেন্ট দিতে পারেন।

Popads Network

<

Popads হল একটি প্রিমিয়াম পপ অ্যাড নেটওয়ার্ক। এই সাইটটি ছোট ব্লগারদের জন্য উপযোগী এবং ট্রাফিক না থাকলেও যোগ দিতে পারেন। ২০১০ সাল থেকে শুরু হওয়া এই সাইটটি সকল ধরনের অবৈধ সাইটের জন্য বিজ্ঞাপন প্রদান করে, যেমন পর্ণ সাইট, বেটিং সাইট এবং অন্যান্য অ্যাডালট সাইট। জয়েন করার পরে পেমেন্ট মেথড অ্যাড করে নির্দিষ্ট পেমেন্ট অ্যাকাউন্টে প্রতিমাসে পেমেন্ট জমা হয়। এই সাইটে আপনি বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে টাকা উপার্জন করতে পারেন।

এই ওয়েবসাইটের উপকারিতা হলঃ এখানে সমদর্শী ওয়েবসাইটের তুলনায় এটি হাই সিপিএম ব্যবহার করে থাকে। জয়েন করার জন্য মিনিমাম ভিউ সম্পর্কে উল্লেখ নেই এবং একটি নির্দিষ্ট ট্রাফিক সীমা নেই, তাই যে কোনো পরিমাণ ট্রাফিক এর সাথে জয়েন করা সম্ভব। মূল্যের দিক থেকে এটি অবশ্যই প্রাতিষ্ঠানিক এবং ৫ ডলারের মানে একটি অল্প পরিমাণে সাবস্ক্রিপশন নেয়া যায়। এছাড়াও স্বয়ংক্রিয় পেমেন্ট ব্যবস্থা রয়েছে।

আর একটি সমস্যা হলঃ এরা শুধুমাত্র পেপাল এবং পেওনিয়ার এর মাধ্যমে পেমেন্ট গ্রহণ করে।

RevenueHits:

রেভিনিউ হিটস একটি ব্যতিক্রমী নেটওয়ার্ক যা অনেক সাইটের ভেতরও আলাদা বৈশিষ্ট্যধারী। এই নেটওয়ার্ক ক্লিক বা ভিউ জন্য পেমেন্ট দেয় না, তবে তারা যেকোনো ক্লিকের বিপরীতে সৃষ্ট আকশনে পেমেন্ট দেয়। অ্যাডভার্টাইজার যখন ব্যবহারকারীদের তথ্য প্রয়োজন হয় তখন রেভিনিউ হিটস এই নেটওয়ার্কটি ব্যবহার করে পেমেন্ট করে।

ব্লগাররা তাদের সাইটে অ্যাড কোড দেওয়ার সাথে সাথেই যখন ব্যবহারকারীরা তাদের নাম এবং ইমেইল সাবমিট করে তখনই তারা এখান থেকে পেমেন্ট পান। প্রতিটি একশনের জন্য ১০-৫০ ডলার পর্যন্ত দেওয়া হয় এবং সর্বনিম্ন পেমেন্ট ৫০ ডলার। পেপাল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক একাউন্ট দিয়ে পেমেন্ট নেয়া যায়।

হ্যাঁ, বাংলাদেশে এমন কিছু ব্লগারও আছে যারা রেভিনিউ হিটস নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে দৈনিক ৩০-৫০ ডলার উপার্জন করেন। এই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে আমরা একটি বিজ্ঞাপন নেটওয়ার্কের মাধ্যমে আমাদের ওয়েবসাইটে বিজ্ঞাপন দেখাতে পারি এবং প্রতিটি ক্লিক বা ইমপ্রেশনের জন্য টাকা পেয়ে থাকি। এটি খুবই সহজ এবং মিনিমাম ট্রাফিক দরকার নেই। রেভিনিউ হিটস একটি অসাধারণ সাইট যা স্মল ব্লগারদের জন্য উপযুক্ত এবং একটি পছন্দের সাইট।

এই সাইটের একটি সুবিধা হলঃ এর সিপিএম খুবই বেশি। গুগল অ্যাডসেন্সের সাথে তুলনা করলে এই সাইটের মিনিমাম পেমেন্ট রেট অনেক ভালো। সাইটটি ইনস্ট্যান্টভাবে অ্যাপ্রুভ করা হয় এবং ২৪ ঘন্টার সাপোর্ট রয়েছে। তবে কভিড-১৯ এর কারণে এখন সকল সাইটের সাপোর্ট একটু ধীরে হয়ে গেছে।

হ্যাঁ, এই সাইটে অনেক সহজেই ক্লিক ফ্রউড হতে পারে । কিন্তু সাইট প্রশাসকরা খুব সতর্ক এবং একইসাথে নিয়মগুলি খুব স্পষ্টভাবে উল্লেখ করেছেন যাতে ব্যবহারকারীদের সহজেই বুঝতে পারেন ক্লিক ফ্রউডের কোন ধরণের অভিযোগ আসলে । এছাড়াও এই সাইটে সুরক্ষিত পেমেন্ট সিস্টেম আছে যা দিয়ে ব্যবহারকারীদের নিরাপদ করে থাকেন সাইট প্রশাসকরা ।

এই সাইটগুলি দৈনিক পেমেন্ট করে থাকে এবং ট্র্যাফিক বা ভিউস সংক্রান্ত নির্দিষ্ট শর্ত না থাকলেও আপনাকে পেমেন্ট দেবে। সেক্ষেত্রে এই সাইটগুলি এন্ট্রি লেভেল ব্লগারদের জন্য একটি আর্থিক সমাধান হতে পারে। তবে এদের সাথে কাজ করতে আপনার ওয়েবসাইট থেকে উচ্চ মানের ট্র্যাফিক বা ভিউস নির্দিষ্ট হতে হবে।

Related Posts

2 Comments

মন্তব্য করুন