grathor-ads

নবজাতকের জন্ডিস হলে করনীয়

আসসালামু আলাইকুম। প্রিয় পাঠক, আশা করি সবাই অনেক ভাল আছেন। আমিও আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে অনেক ভাল আছি। আজকের বিষয়ঃ নবজাতকের জন্ডিস হলে করনীয় । তো আর দেরি না করে চলুন শুরু করা যাক।


📢 Promoted post: বাংলায় আর্টিকেল লেখালেখি করে ইনকাম করতে চান?

প্রাপ্ত বয়স্কদের মতো শিশুদের বিভিন্ন কারণে জন্ডিস হতে পারে। জন্ডিসে আক্রান্ত হলে শিশুর হাতের তালু অনেক সময় হলুদ বর্ণ হয়ে যায়। এছাড়াও শিশুর মুখ, হাত , বুক ও পেটের উপর পর্যন্ত হলুদ বর্ণ হতে পারে।
শিশুরা জন্ডিসে আক্রান্ত হলে শিশুর পায়খানা পর্যন্ত সবুজ হতে পারে।

👉Read more: ফুল নিয়ে ক্যাপশন (সাদা ফুল, কৃষ্ণচূড়া ফুল, সূর্যমুখী, সরষে ফুল, রঙ্গন ফুল) উক্তি, স্ট্যাটাস

শিশুদের মূলত হেপাটাইটিস থেকে জন্ডিস হয়ে থাকে। এর মধ্যে প্রধান থাকে হেপাটাইটিস এ ,বি এবং সি।
অপরিষ্কার পানি বা খাবার থেকে হেপাটাইটিস রোগ হতে পারে।

নবজাতকের জন্ডিস হলে করনীয়

(০১) শিশুকে পুষ্টিকর খাবার খাওয়াতে হবে। অনেক সময় শিশুর পুষ্টিকর খাবার কম খাওয়ার কারণে শিশুর জন্ডিস হতে পারে। তাই বেশি বেশি করে পুষ্টিকর খাবার খাওয়ালে জন্ডিস হওয়ার ঝুঁকি কম। জন্ডিস হলে প্রাথমিক লক্ষণ দেখা দেয় অরুচি। এজন্য শিশুর জন্ডিস হলে খাদ্যদ্রব্য সুস্বাদু ও বাচ্চার পছন্দ অনুযায়ী খাওয়ানো উচিত।

grathor-ads

(০২) শিশুর যদি হালকা জন্ডিস দেখা দেয় তাহলে ডাক্তারের কাছে নেয়ার প্রয়োজন নেই। প্রতিদিন তাকে ১০ মিনিট সূর্যের আলোতে রাখুন। কারণ আমরা তো জানি সূর্যের আলোতে ভিটামিন-ডি থাকে যা শিশুর বিলুরুবিনের মাত্রা স্বাভাবিক হতে সাহায্য করে।

(০৩) শিশুর জন্ডিস হলে ফলের রস খাওয়ানোর চেষ্টা করবেন। কারণ খাদ্য তালিকায় ফল রাখা শিশু স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। পাকা আম, আঙ্গুর, তরমুজ, আনারস, কমলা ইত্যাদি খাওয়াতে পারেন।

📢 Promoted Link: Unlimited Internet Package Teletalk 2022 3G, 4G

(০৪) শিশুর জন্ডিস হলে তেলে ভাজা খাবার এবং পেটে গ্যাস হয় এমন খাদ্য না খাওয়ানোই উত্তম। এছাড়াও কাঁচা লবণ, অ্যালকোহল এবং তেতুল ইত্যাদি খাওয়ানো উচিত নয়।

(০৫) প্রথম থেকেই যদি শিশুকে খুব ভালোভাবে বুকের দুধ পান করানো যায় তাহলে জন্ডিসের মাত্রাটা অনেকটাই কম থাকে। এজন্য শিশুর মায়ের বুকের দুধ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যদি রক্তের গ্রুপের সমস্যা না থাকে এবং সংক্রমণ না থাকে তাহলে ঘনঘন মায়ের বুকের দুধ দিলে জন্ডিসের আশঙ্কা থাকে না। আপনি যদি শিশুর মায়ের বুকের দুধ খাওয়ান তাহলে শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

অনেক শিশু আছে জন্মের পর পর্যাপ্ত পরিমাণে বুকের দুধ পায় না। সেসব শিশুর জন্ডিস দেখা দিলে তাকে পর্যাপ্ত পরিমাণে মায়ের বুকের দুধ খাওয়াতে হবে। প্রয়োজনে বিকল্প দুধ খাওয়াতে হবে। আবার অনেক চিকিৎসকরা বলেন মায়ের দুধ খাওয়ানোর কারণে শিশুর জন্ডিস দেখা দিচ্ছে সে ক্ষেত্রে ভিন্ন ব্যাপার।

বিঃদ্রঃ শিশুর জন্ডিস যদি মারাত্মক আকারের দেখা দেয় তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। যদি চিকিৎসক বলেন মায়ের দুধ খাওয়ার কারণে শিশুর জন্ডিস দেখা দিচ্ছে তাহলে অবশ্যই চিকিৎসক এর পরামর্শ গ্রহণ করুন।

পোস্টটি কেমন লাগলো দয়া করে কমেন্টে জানাবেন, যদি ভাল লেগে থাকে তাহলে অবশ্যয় শেয়ার করবেন, পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। এমন সব দারুন দারুন পোস্ট পেতে Grathor এর সাথেই থাকুন এবং গ্রাথোর ফেসবুক পেইজ ও ফেসবুক গ্রুপ এ যুক্ত থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।

Related Posts