grathor-ads

পৃথিবীর সবচেয়ে ফালতু গেম কোনটি, খারাপ রেটিং গেম

আসসালামু আলাইকুম। প্রিয় পাঠক, আশা করি সবাই অনেক ভাল আছেন। আমিও আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে অনেক ভাল আছি। আজকের বিষয়ঃ পৃথিবীর সবচেয়ে ফালতু গেম কোনটি, খারাপ রেটিং গেম । তো আর দেরি না করে চলুন শুরু করা যাক।


📢 Promoted post: বাংলায় আর্টিকেল লেখালেখি করে ইনকাম করতে চান?

পৃথিবীর সবচেয়ে ফালতু গেম কোনটি, খারাপ রেটিং গেম

(০১) আউটলাস্ট ২ :

👉Read more: ফুল নিয়ে ক্যাপশন (সাদা ফুল, কৃষ্ণচূড়া ফুল, সূর্যমুখী, সরষে ফুল, রঙ্গন ফুল) উক্তি, স্ট্যাটাস

আউটলাস্ট গেমটি রক্তহিম করে দেয়ার মতো ভয়ঙ্কর একটি গেম। এই গেমটিতে অনেক লম্বা ভয়ঙ্কর এক নারীর হাতে থাকে মস্তবড় একটি কুড়াল। এটি খুবই ভয়ঙ্কর একটি গেম। গেমটিতে সেক্সুয়াল ভায়োলেন্স রয়েছে। গেমটির রেটিং সর্বোচ্চ R18 , তারপরও এসব ভয়ঙ্কর সিস্টেমের কারণে গেমটি অস্ট্রেলিয়া থেকে ব্যান করে দেয়া হয়েছে।

(০২) স্যাড স্যাটান :

grathor-ads

স্যাড স্যাটান একটি অদ্ভুত ভিডিও গেম । এই গেমটির বাংলা অর্থ দাঁড়ায় “দুঃখিত শয়তান” । এই গেমটি মারাত্মক একটি ভয়ঙ্কর গেম । এই গেমটি খেললে যে কেউ মানসিকভাবে বিকারগ্রস্ত হয়ে যেতে পারে।

(০৩) ব্লু হোয়েল :

📢 Promoted Link: Unlimited Internet Package Teletalk 2022 3G, 4G

এটি একটি অনলাইন গেম। এই গেমটি খেললে ধীরে ধীরে এগিয়ে নিয়ে যাবে মৃত্যুর দিকে। এই গেমটি খেলার কারণে ধীরে ধীরে আত্মহত্যার দিকে নিয়ে গিয়েছিল অনেক গেমারদেরকে। আমেরিকার অনেক স্কুলে এই গেমকে ঘিরে ঘটেছে এই অদ্ভুত রকমের আত্মহত্যার ঘটনা । এই গেমটির ফাঁদে পড়ে আত্মঘাতী হয়েছে বহু মানুষ ।

(০৪) বুলি :

এই গেমটি ব্যান করে দেয়া হয়েছে। গেমটি রিলিজ পায় ২০০৬ সালে । এই গেমটি অল্পদিনের মধ্যে ব্যান করে দেওয়া হয়েছে। জানা যায় যে এই গেমটি স্কুলছাত্রদের মেধা ও বেড়ে উঠায় বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে ।

(০৫) ব্যাটলফিল্ড ২০৪২ :

এই গেমটি জনপ্রিয় হওয়া সত্বেও পরবর্তীতে কিছু অভিযোগের কারণে ব্যান করে দেওয়া হয়। গেমস এর মধ্যে অবস্থিত অযাচিত বিষয় ও নড়বড়ে সার্ভারের বিভিন্ন অভিযোগ পাওয়া যায়। স্কোরবোর্ড সরিয়ে নেওয়া ও গেমের মধ্যে থেকে ভয়েস চ্যাট সরানোর কারণে অনেক সমালোচনায় পড়তে হয় এই গেমটি নিয়ে।

(০৬) গ্রান্ড থ্যাফ্ট অটো :

এই গেমটি ব্যান হয়ে গেছে । গেমটা খেললে অর্থ অপচয়ের পাশাপাশি আরও বিভিন্ন ধরনের সমস্যা রয়েছে। এ গেমটিতে স্পেলিং সমস্যা, খারাপ টেক্সচার ,রেন্ডার সহ আরো অনেক ধরনের সমস্যার অভিযোগ ছিলো। এ গেমটিতে বিভিন্ন চরিত্র অসামঞ্জস্যের কথা শোনা গিয়েছিলো। এছাড়াও গেমটিতে কিছু বিতর্কিত বিষয়বস্তু ঢোকানো হয়েছিল‌।

(০৭) দ্যা কোয়াইট ম্যান :

দ্যা কোয়েট ম্যান এর অর্থ দাঁড়ায় “শান্ত মানুষ” । এই গেমটি খারাপ গেমগুলির তালিকায় ছিল । এটা ২০১৮ সালের মেটাক্রিটিক এর অফিশিয়াল সবচেয়ে খারাপ গেম হিসেবে পরিচিত পায়। শোনা যায় যে গেমটি স্টুডেন্ট দের দ্বারা তৈরি হয়েছিল।

(০৮) ম্যাড ওয়াল্ড :

এই গেমটি যে খেলবে তাকে একটি বর্বর চরিত্রে খেলতে হবে। যে চরিত্রে যাকে তাকে মেরে মুখ ফাটিয়ে দিতে হবে। লাথি মেরে ভেঙে দিতে হবে মেরুদন্ড। এই গেমটার পলিসিটাই এরকম। গেমটা অত্যান্ত ভয়ানক। এখানে এমন ভাবে মারামারি করতে হবে যেখানে রক্ত দিয়ে গোসল করা যাবে। গেমটিতে যত লোককে মেরে রক্তাক্ত করা যাবে ততো বেশি পয়েন্ট যোগ হতে থাকবে। আরো বিভিন্ন সমালোচনা কারণে গেমটি ব্যান করা হয়েছে।

(০৯) ম্যাচ ইফেক্ট :

এই গেমে একজন এলিয়েন কে পাওয়া যাবে। যে খেলবে সেই প্লেয়ারকে একজন নারী কমান্ডো চরিত্রে খেলতে হবে। এই গেমে সেক্সুয়াল অনেক কনটেন্ট রয়েছে। গেমটিতে নারীদের সমকামিতার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। গেমটি অত্যন্ত বাজে রূপ প্রকাশ পায় । এ কারণে সিঙ্গাপুর থেকে গেমটি ব্যান করে দেওয়া হয়েছে।

(১০) হাই স্কুল রোমান্স :

এই গেমটি সেক্সুয়াল কন্টেন্ট নিয়ে তৈরি । গেমটি কিশোর কিশোরীদের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। গেমটি 18+ । এই গেমটি অল্প বয়সী কিশোর কিশোরীদের মেধা নষ্ট করার হাতিয়ার। এ কারণে এ গেমটা খেলতে অনেককেই অনুৎসাহিত করেছে।

পোস্টটি কেমন লাগলো দয়া করে কমেন্টে জানাবেন, যদি ভাল লেগে থাকে তাহলে অবশ্যয় শেয়ার করবেন, পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। এমন সব দারুন দারুন পোস্ট পেতে Grathor এর সাথেই থাকুন এবং গ্রাথোর ফেসবুক পেইজ ও ফেসবুক গ্রুপ এ যুক্ত থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।

Related Posts