পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী 10 টি দেশ

আসসালামু আলাইকুম। প্রিয় পাঠকবৃন্দ, আশা করি সবাই ভালো আছেন। সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছায় আমিও ভালো আছি। আজকে আপনাদের কাছে উপস্থাপন করার চেষ্টা করব পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী 10 টি দেশসম্পর্কিত কিছু তথ্য নিয়ে। তাহলে আর দেরি না করে শুরু করা যাক।

বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশ কোনগুলো?

পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী 10 টি দেশ বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশ কোনগুলো? সর্বশেষ ২০২১ সালে প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী সেরা দশটি ক্ষমতাশালী দেশের

সর্বশেষ ২০২১ সালে প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী সেরা দশটি ক্ষমতাশালী দেশের কথা এখানে আলোচনা করবো। সাধারণত একটি দেশের বার্ষিক আয়- ব্যয়, অর্থনৈতিক স্বচ্ছলতা, রাজনৈতিক সক্ষমতাসহ সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়। জানলে অবাক হবেন এই তালিকায় বাংলাদেশের নামও রয়েছে। ১৯০ টি দেশের উপর করা গবেষণায় সেরা ১০০ টি দেশের মধ্যে ৮১ তম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশের নাম। উল্লেখ্য, ১৯০ টি দেশ নিয়ে মার্কিন সিইওওয়ার্ল্ড ম্যাগাজিন এই তালিকা প্রকাশ করে।

পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী 10 টি দেশ

এবার আসুন জেনে নেয়া যাক তালিকাভুক্ত শীর্ষস্থানীয় ক্ষমতাশালী দেশ কোনগুলো। এই তালিকা সর্বশেষ ২০২১ সালে প্রকাশ করে যুক্তরাষ্ট্র। র্যাঙ্কিং অনুযায়ী শীর্ষ স্থানে রয়েছে খোদ যুক্তরাষ্ট্রই। ৯৮.০৯ স্কোর নিয়ে প্রথম স্থানে রয়েছে দেশটি। এমনিতে সামরিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক দিক দিয়ে বেশ শক্তিশালী আমেরিকা। যদিও সরকার বদল, নির্বাচন, শেয়ারবাজার ধস, করোনা মহামারিসহ নানা কারণে বেশ উথান- পতন ঘটেছে দেশটিতে।

তা সত্ত্বেও ক্ষমতার প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রেখেছে আমেরিকা। শুধু এসব দিক দিয়ে নয়, সৃজনশীলতার দিক দিয়েও আমেরিকা বেশ এগিয়ে। অর্থাৎ সাহিত্য, নাটক,সংগীত, টিভি সিরিজ, সিনেমার জন্যেও আমেরিকা (হলিউড) বেশ বিখ্যাত। প্রভাবশালী এই খাতে প্রতিবছর প্রচুর অর্থ ইনভেস্ট করে সরকারি- বেসরকারি আমেরিকান প্রতিষ্ঠানগুলো। এমনকি এই খাতে বিদেশী বিনিয়োগও রয়েছে।

পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী 10 টি দেশ বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশ কোনগুলো? সর্বশেষ ২০২১ সালে প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী সেরা দশটি ক্ষমতাশালী দেশের

সত্যি বলতে ২০২০ এর শুরুতে বেশ ভালো অবস্থানে ছিলো যুক্তরাষ্ট্র। বেকারত্বের হার অনেকটা কমে এসেছিলো । কিন্তু তখন কে জানতো সেই বছরেই আসবে করোনার মতো প্রাণঘাতী মহামারি? কোভিড চলাকালীন এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে আমেরিকা। তা সত্ত্বেও তারা ক্ষমতাধর দেশ হিসেবে শীর্ষে রয়েছে মূলত সামরিক শক্তির কারণে। এছাড়া বিশ্বজুড়ে দেশটির রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, আর্থ- সামাজিক প্রভাবের কথাও অস্বীকার করা যায় না।

আমেরিকার পরেই এই তালিকায় রয়েছে চীন এবং রাশিয়া। এই সমীক্ষা অনুযায়ী চীনের স্কোর ৯৪.২৯ এবং রাশিয়ার স্কোর ৯৪.১১। এরপরেই রয়েছে বৃহৎ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ভারত। যার স্কোর ৯৩. ৬২। ভারতের পর পঞ্চম স্থানে রয়েছে ফ্রান্স এবং ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে জার্মানি। এরই ধারাবাহিকতায় সপ্তমে রয়েছে জাপান, আট নম্বরে ব্রিটেন, নবম স্থানে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার নাম এবং দশম স্থান অধিকার করেছে ইসরায়েল। আর এই তালিকায় বাংলাদেশ ৬১.৬৭ স্কোর নিয়ে ৮১ তম অবস্থানে রয়েছে। দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশগুলোর মধ্যে তালিকায় বাংলাদেশের ওপরে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। এর মধ্যে ভারতের অবস্থান সবার আগে তথা চতুর্থ, পাকিস্তান ৩৭ তম এবং শ্রীলঙ্কা ৮০তম অবস্থানে রয়েছে।

এছাড়া বিখ্যাত মার্কিন ম্যাগাজিন বিজনেস ইনসাইডার কর্তৃপক্ষও বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাশালী দেশের একটি তালিকা প্রকাশ করে। তাদের জরিপ অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্র প্রথম স্থানে রয়েছে আর নবম স্থানে রয়েছে সৌদি আরবের নাম। এখানে সৌদি আরবকে মিডলইস্ট দৈত্য বলেও আখ্যা দেয়া হয়েছে। দেশটির আর্থ- সামাজিক অবস্থান, রাজনৈতিক প্রভাব, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, ব্যবসা- বাণিজ্য, লেনদেন এইসব বিষয়ের উপর ভিত্তি করে এই নামকরণ করে ইনসাইড কর্তৃপক্ষ। মূলত এই গবেষণাটি পরিচালিত হয় পেনসিলভিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, ওয়ার্ল্ড রিপোর্ট এবং ইউএস নিউজের সহযোগিতায়। এই জরিপে একটি দেশের রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক সক্ষমতার দিকটি বেশি গুরুত্ব পেয়েছে।

পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী 10 টি দেশ বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশ কোনগুলো? সর্বশেষ ২০২১ সালে প্রকাশিত তালিকা অনুযায়ী সেরা দশটি ক্ষমতাশালী দেশের

এছাড়া ক্ষমতাবান রাষ্ট্র চিহ্নিত করার আরেকটি উপায় হলো দেশটির সামরিক শক্তি। এবার জানবো সামরিক শক্তিতে সবচেয়ে ক্ষমতাশালী দেশগুলোর নাম। কে এগিয়ে আছে এই জরিপে?

২০২০ সালের গ্লোবাল ফায়ার পাওয়ার এর তথ্য অনুযায়ী সামরিক শক্তিতেও শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আর পালাক্রমে দ্বিতীয়, তৃতীয় এবং চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে রাশিয়া, চীন এবং ভারত। ১৩৮টি দেশ নিয়ে এই তালিকা প্রকাশিত হয় যেখানে ভারত ছাড়াও দক্ষিণ এশিয়ার আরও দেশের নাম রয়েছে। এর মধ্যে ১৫ তম স্থানে রয়েছে পাকিস্তান, ৩৫ তম স্থানে রয়েছে মায়ানমার এবং ৪৬ তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশের নাম। আর সর্বশেষ ১৩৮ তম স্থানে রয়েছে ভূটান।

এই তালিকা অনুযায়ী সামরিক শক্তিতে শীর্ষে থাকা দশটি দেশ হলো: যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, ভারত, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, মিশর এবং ব্রাজিল।
গবেষকরা মনে করেন, মূলত সামরিক শক্তিতে এগিয়ে থাকা, অর্থনৈতিক দিক দিয়ে সারা বিশ্বে প্রভাব বিস্তার, নিজদেশে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ধরে রাখা এবং অপর দেশগুলোর উপর রাজনৈতিক এবং আর্থ- সামাজিক প্রভাব বিস্তারে সক্ষম হওয়ার কারণে যুক্তরাষ্ট্র এখনো পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষমতাবান রাষ্ট্র।

আজকের আলোচনার এখানেই ইতি। তবে ভুলে গেলে চলবে না এই তালিকা চিরস্থায়ী নয়। নতুন নিবন্ধ বা তালিকা প্রকাশিত হলে বদল ঘটতে পারে এই র্যাঙ্কিয়ের।

আজ এই পর্যন্তই। পোস্টটি কেমন লাগলো দয়া করে কমেন্টে জানাবেন, যদি ভাল লেগে থাকে তাহলে অবশ্যয় শেয়ার করবেন, পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। এমন সব দারুন দারুন পোস্ট পেতে Grathor এর সাথেই থাকুন এবং গ্রাথোর ফেসবুক পেইজ ও ফেসবুক গ্রুপ এ যুক্ত থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।

Related Posts

2 Comments

মন্তব্য করুন