Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

আউটসোর্সিং

ফ্রিল্যান্সিং এর কিছু উপদেশ

Muhammad Talha

Published

on

১) ফ্রিল্যান্সিং এ হতাশার সর্ব প্রথম এবং প্রধান কারণটি হচ্ছে ফ্রীল্যান্সিং সম্পর্কে ভালোমতো না জেনে/বুঝে অন্ধের মতো ঝাঁপ দেয়া।
—> আমার লাইফের শুরুতে ৩৫০০০-টাকা ধরা খাইলাম এই ফ্রীল্যান্সিং শিখতে যেয়ে। এই জন্য আমি নিজেকেই দায়ী করি বা আমি নিজেই দায়ী। কারণ আমি আসলে না জেনে/বুঝে এবং চটকদার বিজ্ঞাপনে দেখ বিচার-বিবেচনা না করেই অন্ধের মতো ফ্রীল্যান্সিংয়ে ঝাঁপ দিছিলাম আর ফলাফল ব্যর্থতা। ইনস্টিটিটউ তো বাজে ছিলোই আর ট্রেইনারের কথা না হয় আর নাই বা বললাম। যাইহোক ঠকবাজরা ঠকাতে চাইবে তবে আমার বিচার-বিদ্ধু খাটিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে বোকার মতো যদি সিদ্ধান্ত নিয়ে ঠকে গেলে তখন আর ঠকবাজদের দোষ দিয়ে লাভ নাই। তবে আমি পরবর্তীতে আশা ছেড়ে না দিয়ে এগিয়ে গেছি এবং সফলতা পেয়েছি।
উপদেশ –> আজকাল ব্যাঙের ছাতার মতো ফ্রীল্যান্সিং ট্রেইনিং ইনস্টিটিউট এবংট্রেইনার বের হইছে যাদের মধ্যে ৯০%-ই ভুয়া। এইসব চটকদার বিজ্ঞাপনে যথেষ্ট মিথ্যা প্রলোভন থাকে। মিথ্যা প্রলোভনে আকৃষ্ট না হয়ে বিচার-বিবেচনা করে এবং নিজের পছন্দ বা আগ্রহ আছে এমন বিষয়ে ট্রেনিং নেন এবং অবশ্যই ভালো কোন প্রতিষ্ঠান এবং ট্রেইনারের কাছে শিখবেন। আর অবশ্যই জীবনে মাগনা কোনো কিছুর আশা করবেননা মনে রাখবেন মাগনা এই পৃথিবীতে কোনো কিছু নাই সো যতো দ্রুত এই বিষয়টা বুঝতে পারবেন ততো ভালো।
২) বিষয় নির্বাচন।
অমুকে তমুক ক্ষেত্রে ফ্রীল্যান্সিং করে কোটিপতি হয়ে গেছে। এখন অমুকের তমুক বিষয় আপনাকে স্যুট নাও করতে পারে সো এই ক্ষেত্রে নিজে কি শিখবেন বা আপনার কোনো বিষয়ে আগ্রহ আছে অথবা আপনার পক্ষে কোন বিষয়ে ট্রেনিং নেয়াটা সুবিধাজনক বা সম্ভব মনে হয় ওই বিষয়টাতেই প্রশিক্ষণ গ্রহণ করুন। অন্ধের মতো অমুকের তমুক বিষয়ের পিছনে সময়, শ্রম এবং টাকা নষ্ট করার কোনো মানে হয়না এমন করলে হয়তো মাঝপথে যেয়ে মনে হবে আমিতো বিরানী প্রিয় মানুষ হুদাই কেন অন্যের বুদ্ধিতে চাইনিজ খেতে আসলাম।
৩) মাইন্ড সেট।
আপনি কি শিখতে চান কেন শিখতে চান এবং এর পিছনে আপনার উদ্দেশ্য বা লক্ষ্য কি? খুব গুরুত্ব সহকারে এই বিষয়টি বিবেচনা করেন এবং সেই অনুযায়ী কোনো বিষয় বা ক্ষেত্রে ট্রেনিং নিবেন বা শিখবেন সেটা নির্ধারণ করেন এবং একটি নির্দিষ্ট সময় বা লক্ষ্য নির্ধারণ করুন –> যেমনঃ- আমি ওয়ার্ডপ্রেস/এসইও/গ্রাফিক্স-ডিজাইন/ডিজিটাল মার্কেটিং/অন্যান্য (যেকোনো ১/২-টি) শিখবো, আগামী ৬/৮-মাসের মধ্যে শিখবো/ ১০-মাস/১-বছর থেকে আমি ইনকাম করা শুরু করবো।
৪) স্কিলের চাইতে টাকা ইনকাম করাকে অধিক গুরুত্ব না দেয়া।
ভুলেও কখনোই স্কিলের চাইতে টাকা ইনকাম করাটাকে অধিক গুরুত্ব বা প্রাধান্য দিবেননা কারণ অল্প বিদ্যা ভয়ঙ্করী। আপনি হয়তো হালকা কিছু কাজ শিখেই ইনকাম শুরু করতে পারবেন কিন্তু সেটা পার্মানেন্ট হবেনা আমি পরবর্তী সময়ে কাজের ক্ষেত্রে আটকে যাবেন বা কাজ পাবেননা অথবা আপনার পক্ষে বড় বা কঠিন কাজ করা সম্ভব হবেনা। আপনি যেই ক্ষেত্রেই কাজ করেননা কেন আপনাকে মনে রাখতে হবে ফ্রীল্যান্সিংয়ে আপনাকে সারা বিশ্বের বাঘা বাঘা দক্ষ এবং অভিজ্ঞ লোকদের সাথে পাল্লা দিয়ে কাজ করতে হবে সুতরাং আপনার নির্দিষ্ট বিষয়/ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই সর্বোচ্চ লেভেলের দক্ষ এবং অভিজ্ঞতা সম্পন্ন হতে হবে।
৫) ইংরেজিতে ভালো দক্ষতা।
ইংরেজিতে দক্ষতা আপনাকে জীবনের প্রতিটা ক্ষেত্রেই অকল্পনীয় এডভ্যান্টেজ দিবে। আমার এক ম্যাডাম ক্লাস সিক্সে পড়ার সময় আমাকে বলছিলো নিজেকে স্মার্ট মানুষদের (পুরুষ) লিস্টে অন্তুর্ভুক্ত করার জন্য কিছু যোগ্যতা/দক্ষতা থাকা বাধ্যতামূলক যেমনঃ- ১) উচ্চ শিক্ষা/কর্মমুখ কারিগরি শিক্ষা ২)সাঁতার জানা ৩) ড্রাইভিং জানা ৪) ইংরেজিতে কথা বলতে পারা। ইংরেজিতে ভালো দক্ষতার কারণে জীবনে অনেক জায়গায় এক প্রকার বলতে পারেন বিভিন্ন ভাবে অন্যায় সুবিধাই পাইছি এমন হইছে যে কাজ পারিনা কিন্তু ইংরেজিতে দক্ষতার কারণে কোনো না কোনো ভাবে ক্লায়েন্টকে কনভিন্স করে কাজ নিয়ে নিছি। পরে দেখা গেছে যে হয় কাজ শেষ করতে পারিনি অথবা অন্য কাউকে দিয়ে কাজ করিয়ে জমা দিছি আমি যদিও এখন আর এমন করিনা তবে অনেকেই হয়তো এখনো এমন করে।
৬) মার্কেট প্লেস সম্পর্কে ধারণা / দক্ষতা / অভিজ্ঞতা।
নতুন অবস্থায় অভিজ্ঞতা থাকবেনা এইটাই স্বাভাবিক সো এইটা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। কাজ করতে করতে অভিজ্ঞতা এমনিতেই চলে আসবে। ক্লায়েন্ট যখন নতুন কাউকে কাজ দেয় তারা জানেই যে এই লোকের অভিজ্ঞতা থাকবেনা কারণ সে নতুন আর নতুনদের অভিজ্ঞতা থাকেনা এইটা যে সাইন্স এইটা তারা বুঝে। বুঝিনা শুধু আমরা বাঙালীরা।
দক্ষতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যেটা আপনার থাকতেই হবে হুদাই মার্কেট প্লেস লাফ দিবেননা। আপনার নির্দিষ্ট বিষয়ে যথেষ্ট পরিমান দক্ষতা অর্জন করেন প্র্যাক্টিস করেন এবং কনফিন্ডলী মার্কেট প্লেস ঝাঁপ দেন। এমন যেনো না যে, বায়ো তে লিখছেন আমি এক্সপার্ট উপরের পার্ট কিন্তু কাজ পাওয়ার পরে আপনার অমুক ভাই তমুক ভাইয়ের কাছ দৌড়া-দৌড়ি করতে হয়ে –> ভাই এইটা কি? ভাই ঐটা কি? এইটা কেমনে? ঐটা কেমনে?
অবশ্যই মার্কেট প্লাসে যাওয়ার আগে বিভিন্ন বেসিক বিষয় সম্পর্কে একদম ক্লিয়ার-কাট ধারণা রাখবেন প্রয়োজনে ইউটিউব এর ভিডিও দেখবেন গুগল করে ইনফো জেনে নিবেন। সিনিয়রদের সাহায্য নিবেন।
এক্সট্রা টিপস —> অধ্যবসায় এবং পরিশ্রম।
সফলতার ক্ষেত্রে অধ্যবসায়ের (বার বার চেষ্টা করা) বিকল্প নাই। নিয়মিত পরিশ্রম করতে হবে কাজ এবং শেখা উভয় ক্ষেত্রে কারণ —> পরিশ্রম সৌভাগ্যের প্রসূতি।
ধন্যবাদ সবাইকে এবং হ্যাপি ফ্রীল্যান্সিং।

আউটসোর্সিং

মোবাইল দিয়ে ইনকাম করার সেরা সাইট।প্রতিদিন ৮০ থেকে ১০০ টাকা ইনকাম হবে।

SD Dhruva

Published

on

হেলো বন্ধুরা,সবাইকে ধন্যবাদ।

ঘরে বসেই অনলাইন থেকে টাকা আয় করা যায়।এটা চমকে যাওয়ার মতো কিছুনা।এটা অবশ্যই সম্ভব।অনেক মানুষ অনলাইনে কাজ করে নিজেদের দৈনন্দিন খরচ ইনকাম করছে।বিভিন্ন সাইটে কাজ করে অনলাইন থেকে আয় করা যায়।বর্তমানে অনলাইন থেকে আয় করার অনেক সাইট আছে।কিন্ত সাইটগুলোতে কাজ করার চেয়ে কঠিন ব্যাপার একটা সঠিক বা রিয়েল সাইট খুজে বের করা।অনেক সময় নানা রকম লোভনীয় সাইটের এড দেখে ঐ সাইটে আমরা একাউন্ট করি।অনেক কষ্ট করে কাজ করে টাকা উইদ্রো দিই। পরে দেখা যায় তারা আমাদের পেমেন্ট করে না।ফলে আমাদের সব পরিশ্রম অসফল হয়ে যায়।তাই এই সাইটগুলো অনেক বিবেচনা করে বাচাই করতে হয়।এ কারণে আজ আমি সব বিবেচনা করে সবার জন্য একটি দারুন সাইট নিয়ে এসেছি।এটি সম্পূর্ণ রিয়াল সাইট।হাজার হাজার লোক এই সাইটে কাজ করে তাদের দৈনন্দিন হাত খরচ ইনকাম করে।এটি বর্তমানে বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় সাইট।এই সাইটের অনেক পেমেন্ট প্রুপ দেখে,তারপর এই সাইটটি আমি বাচাই করে নিয়েছি।

কিভাবে এই সাইটে একাউন্ট করবেন?

প্রথমে নিচের এই লিংকে ক্লিক করে রেজিস্টার অপশনে প্রবেশ করুন।
সাইট লিংক=
https://bloggingforte.com/refer/01878284309
১.আপনার নাম দিন।
২.আপনার মোবাইল নাম্বার দিন (যে নাম্বারে টাকা উইদ্রো দিবেন)
৩.আপনার একটি ইমেইল একাউন্ট দিন।
৪.একটি পাসওয়ার্ড দিন।
এরপর নিচে সাবমিট অপশনে ক্লিক করুন।

এবার আপনার ঐ ইমেইল একাউন্টে একটি ভেরিফিকেশন মেসেজ যাবে,ওখান থেকে ভেরিফাই করে নিন।
এখন আপনার একাউন্ট করা হয়ে গেছে।
এবার আপনি ইমেইল আর পাসওয়ার্ড দিয়ে লগিন করুন।

কিভাবে কাজ করবেন? 

এই সাইটে অনেক কাজ আছে।
* Bonus task
* Read news
* Math quiz
* Spin
* Captcha

কাজ করার জন্য প্রথমে ড্যাশবোর্ডের উপর থেকে টাস্ক অপশনে ক্লিক করুন।

Bonus task: প্রতিদিন ২-৩ বার বোনাস দেওয়া হয়।প্রথমে বোনাস লিখার উপর ক্লিক করুন, এরপর একটি এড এর উপর ক্লিক করুন। ওখানে ১০-১৫ সেকেন্ড অপেক্ষা করুন।তারপর বেক করুন।এরপর আপনি কালেক্ট পয়েন্টে ক্লিক করলে বোনাস পেয়ে যাবেন।
Read news: এখান থেকে আপনি নিউজ পড়ার কাজ করতে পারবেন।প্রথমে read news এ ক্লিক করুন।এরপর নিউজটির নিচে read more লিখায় ক্লিক করুন, একটি টাইম দেখা যাবে,টাইম শেষ হলে submit ক্লিক করুন।
Math quiz: এখান থেকে আপনি অঙ্ক করে কাজ করতে পারবেন।প্রথমে math quiz লিখায় ক্লিক করুন।এরপর একটি অঙ্ক আসবে, অঙ্কটির সমাধান করে submit ক্লিক করুন।
Spin: প্রথমে spin লিখায় ক্লিক করুন।তারপর স্পিনটির উপর ক্লিক করুন,স্পিনটি ঘুরবে,ঘুরা শেষ হলে get point  ক্লিক করুন।
Captcha: এখানে ক্যাপচা টাইপ করে কাজ করতে পারবেন।প্রথমে ক্যাপচা লিখায় ক্লিক করুন।একটি ক্যাপচা দিবে, ওটা টাইপ করে submit ক্লিক করুন।
এখানে কাজ লিমিট করা আছে।আপনি প্রতিদিন ৬০টি টাস্ক কমপ্লিট করতে পারবেন।

কি কারণে আইডি ব্যান হতে পারে?

১. বোনাস টাস্কের কাজ করার সময় ১০-১৫ সেকেন্ড এড না দেখলে।
২. একটি ডিভাইসে একাধিক আইডি ব্যবহার করলে।
৩. একটানা দশদিন কাজ না করলে।

কিভাবে রেফার করব?
প্রথমে ড্যাশবোর্ডের উপরে চলে যান।ওখান থেকে প্রোপাইল অপশনে ক্লিক করুন।একটি পেজ আসবে।ওখান থেকে নিচে চলে যান,ওখানে আপনার রেফার লিংক পেয়ে যাবেন।
আপনি যদি আপনার কোনো বন্ধুকে রেফার করেন, তাহলে তার প্রতি উইদ্রোতে আপনি ১০% কমিশন পাবেন।

কিভাবে টাকা উইদ্রো করবেন?

প্রথমে বলে নিই এখানে আপনি ২৪০ পয়েন্ট মানে ১০টাকা হলে মোবাইল রিচার্জ নিতে পারবেন।এবং ১২০০ পয়েন্ট মানে ৫০ টাকা হলে নগদ,বিকাশ এবং রকেটে নিতে পারবেন।

উইদ্রো দিতে প্রথমে আপনি ড্যাশবোর্ডের উপরে চলে যান।ওখান থেকে আপনি উইদ্রো অপশনে ক্লিক করুন।কোন অপশনে টাকা নিবেন (বিকাশ,নগদ,রিচার্জ, রকেট) সিলেক্ট করুন।আপনার নাম্বার সিলেক্ট করা থাকবে।এরপর পয়েন্টের পরিমাণ বসান।সবশেষে উইদ্রো অপশনে ক্লিক করুন।
২৪ ঘন্টার মধ্যে আপনাকে তারা পেমেন্ট করে দিবে।

আপনার যেকোনো সমস্যার সমাধান পেতে, এই সাইটের ফেইসবুক গ্রুপে জয়েন হওয়া আবশ্যক।
গ্রুপে জয়েন হতে,প্রথমে ড্যাশবোর্ডের উপরে চলে যান।ওখান থেকে FB group ক্লিক করুন।এবার এখান থেকে জয়েন গ্রুপ ক্লিক করলে গ্রুপে জয়েন হয়ে যেতে পারবেন।

ধন্যবাদ।

Continue Reading

আউটসোর্সিং

একটি ব্রাউজার দিয়ে শুধুমাত্র ব্রাউজিং ও করেই প্রতি মাসে হাজার টাকা আয় করুন।

Mojammal Haque

Published

on

আসসালামু আলাইকুম ভিউয়ার্স,

আশা করি ভালো আছেন। সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা। ***ঈদ মোবারক***

ব্রেভ ব্রাউজার নিয়ে নিশ্চয়ই আপনাদের আগ্রহের কোনো কমতি নেই। আপনারা এই অ্যাপের বিস্বস্ততা সম্পর্কে কম বেশি সবাই জানেন। যারা এই ব্রাউজার সম্পর্কে জানেন না তাদের জন্য আজকের এই পোস্ট। তাহলে জেনে এই ব্রাউজারে ব্রাউজিং করে কিভাবে মাসে হাজার হাজার টাকা আয় করবেন।

প্রথমেই বলে রাখছি, এই ব্রাউজারটি যদি ইনকাম না দিত তবে অযথাই আমি এর জন্য শ্রম দিতাম না। শ্রম দেয়ার পেছনে আমারও লাভ আছে। সেটা হলো রেফার কমিশন! যাই হউক কাজের কথায় আসি…

https://brave.com/moj483

আপনারা যারা এখনো জয়েন করেন নাই তারা উপরের এই লিংক থেকে এখনি জয়েন করুন এবং brave browser টি ডাউনলোড করুন। মনে রাখবেন, ইনকাম পেতে হলে ব্রাউজারটি অবশ্যই কমপক্ষে এক মাস আপনার মোবাইলে থাকতে হবে এবং এটা দিয়ে ব্রাউজিং করতে হবে।

লিংকে প্রবেশ করে তিন ডট অপশন দেখতে পাবেন।সেটিতে ক্লিক করে সেখানে আপনার জিমেল দিয়ে সাইন আপ করে কন্টিনিউ করুন।

এবার আপনার জিমেইল চেক করুন দেখবেন একটি লিংক পাঠিয়েছে। সেটি ক্লিক করে মেইল ভেরিফাই করে নিন। এবার ব্রাউজারে যেয়ে যে জিমেল দিয়ে সাইন আপ করেছিলেন সেটি দিয়ে সাইন ইন করুন।কিছু এড চ্যানেলের কথা উল্লেখ থাকবে সেগুলো এড করে দিন। ব্রাউজিং ছাড়াও আপনি রেফার করে ইনকাম করতে পারেন।

রেফারাল লিংক লেখাতে ক্লিক করুন। তাহলে আপনার রেফারেল লিংক কপি হয়ে যাবে। আপনি লিংকটি বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া এবং আপনার বন্ধুদের শেয়ার করার মাধ্যমে তাদের ব্রাউজারটি ডাউনলোড করে ১ মাস ব্যবহার করলেই আপনি তাদের প্রতি ডাউনলোডে পাবেন ৫ ডলার যা ৪০০-৪৫০ টাকার সমান। ব্রাউজিং ইনকামতো আছেই। আপনার সকল ইনকাম প্রতি মাসের ৯ তারিখে জমা হয়ে যাবে।

আশা করি, আজকের এই টপিকসটি দ্বারা আপনারা অনেকটাই উপকৃত হবেন। আল্লাহ হাফেজ।

 

Continue Reading

আউটসোর্সিং

এক মিনিটের ভিতর 25 টাকা ফ্রি নিন

Sakib khan

Published

on

আসসালামুয়ালাইকুম ভাইয়েরা,,, 😍কেমন আছেন,, আপনারা সবাই আশা করি আল্লাহর রহমতে,,,,আপনারা অনেক ভালো 😘এবং অনেক সুস্থ্য, আছেন। 😍

তো আজ আপনাদের মাঝে নিয়ে আসলাম যে কিভাবে এক মিনিটের ভিতর 25 টাকা ফিরিয়ে নিবেন জলদি তাড়াতাড়ি শুধুমাত্র নিতে পারবেন যারা এয়ারটেল সিম এবং রবি সিম ব্যবহার করে থাকেন তারা নিতে পারবেন অন্য কোন সিম চালান তারা কিন্তু নিতে পারবেন না তাদের জন্য এই পোস্টটি না এই পোস্টটি হল যারা এয়ারটেল সিম এবং রবি সিম চালান তাদের জন্য সুখবর
এয়ারটেল সিম এবং রবি সিম যারা চালান তারা এখান থেকে 25 টাকা ফিরিয়ে নিতে পারবেন জলদি করুন তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে গেলে পাবেন না

তো চলুন শুরু করা যাক কিভাবে আপনি এই 25 টাকা ফ্রিতে নিতে পারবেন

এই অফারটি মূলত হল যে এই যে বর্তমানে যে করনা ভাইরাসের কারণে মানুষদের অনেক অসহায় আছে এর জন্য মনে করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই অফারটি সুযোগ করে দিয়েছে শুধুমাত্র আপনার ডায়াল ফেটে যায় *167# এই নম্বরটি ডায়াল করবেন ডায়াল করার পর

সাতটি পাসওয়ার্ড দিতে বলবে আবার পরবর্তীতে কনফার্ম পাসওয়ার্ড দিবেন দেওয়ার পর আপনাকে এসএমএস দিয়ে জানিয়ে দিবে যে আপনার নগদ একাউন্ট এ সাকসেসফুল হয়েছে এবং কোন ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে

এই আইডি কার্ডটি আপনার এখন ভাবতে পারেন যে আমি তো কোন আইডি কার্ড দিয়ে নেই তাহলে আমার আইডি কার্ড আপনি যে যে সিম দিয়ে যে আপনার সিমটি রেজিস্ট্রেশন করেছেন সেটাই আপনার আইডি কার্ড এটা আপনাদের সবার আইডি কার্ডটি খোলা হয়ে গেছে অটোমেটিক শুধুমাত্র আপনাদের করলেই আপনার নগ্ন হয়ে যাবে এভাবে আপনার নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন

এখনো তারা ভাবতে পারেন যে এই বোনাস টা নিবো কিভাবে এই বোনাস নিতে হলে আপনাকে যেকোন পরিমান টাকা আপনাকে ওই নগদে ঢুকাতে হবে এখন আপনারা ভাবতে পারেন যে কতটা আপনার যত ইচ্ছা যা মন চায় তাই পারবেন

ঢুকানোর পরে 72 ঘন্টার ভিতরে আপনি আপনার বোনাস পেয়ে যাবেন

এই ছিল আজকের পোষ্ট।
আশা করি এই পোষ্ট টি পড়ে আপনার কাছে অনেক ভালো লেগেছে।
যদি ভালোই লেগে থাকে তাহলে আপনার মুল্যবান মতামত কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন।

আপনারা বেশি বেশি করে এই সাইটের পোস্টগুলা পড়বেন😍 +

যদি ভালো লাগে তাহলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে দিন।

ভাল থাকেন সুস্থ থাকেন জীবনে এগিয়ে যান

+ + আর হ্যাঁ আমার যদি কোন ভুল হয় তাহলে আমাকে মাফ করে দিয়েন ক্ষমা দৃষ্টিতে দেখে

মানুষ বলতে তো ভুল হতেই পারে + +

আজকের পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ🤗

Continue Reading