Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

লাইফস্টাইল

বন্ধুত্ব নিয়ে ক্যাপশন | বন্ধুদের মিস করা নিয়ে কিছু কথা

Online Desk

Published

on

বন্ধুত্ব নিয়ে বিখ্যাত কবিতা

জানি জীবনে অনেক বন্ধু-বান্ধব আসবে,
কিন্তু সবাই তোমার মত হবে না।

সব বন্ধুত্ব আজীবন থাকে না,
কেউ শুকনো পাতার মতো ঝরে পড়ে যাবে,
আবার কেউ আজীবন বন্ধু থেকেই যায়,
কেউ নিজের স্বার্থের জন্য দূরে সরে যায়।

আমরা পৃথিবীতে সব সময় থাকার জন্য আসিনি,
মৃত্যু কখন হবে কেউ বলতে পারে না।

সবাই আবার বন্ধুদের সময় দিতে পারে না ,
কারণ সবাই সবার কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকে।
একদিন তো টাকা পয়সা সব হবে,
ওই সময় মজা করার জন্য কেউ আর পাশে থাকবে না।

যখন কোন স্কুলের ছাত্র দেখবো – তখন তোমাদের কথা মনে পড়বে,
তোমাদের কথা ভেবে হাসতে হাসতে কান্না চলে আসবে।

মনে পড়ে যাবে আগের স্মৃতি গুলো, সবাই একসাথে স্কুল পালানোর কথা,
সবাই একসাথে বসে আড্ডা দেওয়ার কথা,

এক টেবিলে সবাই গাদা গাদি করে বসা, ক্লাস মিস দিয়ে আম চুরি করতে যাওয়া।
সবাই একসাথে খেলাধুলা করা

তোমাদের না দেখলে দিনটাই খারাপ যেত,

হয়তো সময়ের স্রোতে একদিন ঠিক হারিয়ে যাবো,
তাই সব সময় পাশে থাকিস – আমি না বললেও।

কারণ সময় তো আর কখনো ফিরে পাওয়া সম্ভব না।

অবশেষে একটা কথাই বলতে চাই সেটা হল – তোমাদের সবাইকে অনেক ভালোবাসি
তাই তো অনেক অনেক মিসও করি, আজও।
ভালো থেকো বন্ধু।।

সম্পর্কিত ট্যাগ: বন্ধুত্ব নিয়ে ক্যাপশন , বন্ধুত্ব নিয়ে বিখ্যাত কবিতা, বন্ধু নিয়ে উক্তি, বন্ধুদের মিস করা নিয়ে কিছু কথা।

Advertisement
61 Comments

61 Comments

  1. Md Ahsan Habib

    Md Ahsan Habib

    February 1, 2020 at 8:18 am

    nice…post.

  2. Mizanur Rahman

    Mizanur Rahman

    February 2, 2020 at 8:03 pm

    বেচে থাকুক, বন্ধুত্ব

  3. jubair hossain

    jubair hossain

    February 2, 2020 at 11:30 pm

    miss dst

  4. jubair hossain

    jubair hossain

    February 3, 2020 at 6:11 pm

    nc hoise

  5. Ratul Foysal

    Ratul Foysal

    February 4, 2020 at 6:14 pm

    পুরোনোদিনেরকথা মনে পড়েগেল

  6. Mehedi Islam Noman

    Mehedi Islam Noman

    February 5, 2020 at 8:07 pm

    Nice

  7. Mehedy Hasan

    Mehedy Hasan

    February 7, 2020 at 10:21 am

    I miss my best friend still now

  8. Tamim Ahmed Sakib

    Tamim Ahmed Sakib

    February 8, 2020 at 9:13 am

    Gd

  9. Tuber Jihad

    Tuber Jihad

    February 9, 2020 at 9:59 am

    Good

  10. Abu Sufian

    Abu Sufian

    February 11, 2020 at 8:05 am

    Gd

  11. Fazle Rabbi

    Fazle Rabbi

    February 11, 2020 at 1:06 pm

    gd

  12. Utsa Kumer

    Utsa Kumer

    February 12, 2020 at 12:08 am

    nice post

  13. Sanjida Afrin

    Sanjida Afrin

    February 13, 2020 at 4:23 pm

    দারুণ

  14. Sanjida Afrin

    Sanjida Afrin

    February 17, 2020 at 1:06 pm

    nice

  15. Gourob Ghosh Durjoy

    Gourob Ghosh Durjoy

    February 19, 2020 at 11:25 am

    Nice post

  16. Riton Sharma Sagar

    Riton Sharma Sagar

    February 21, 2020 at 5:24 pm

    অসাধারণ

  17. ikram hossen

    ikram hossen

    February 26, 2020 at 4:44 pm

    খুবই সুন্দর

  18. ikram hossen

    ikram hossen

    February 29, 2020 at 5:28 pm

    beautiful

  19. abu bakkar

    abu bakkar

    February 29, 2020 at 10:40 pm

    nice post

  20. Mosarrof sarker

    Mosarrof sarker

    March 5, 2020 at 5:41 pm

    Amazing

  21. ramal chakma

    ramal chakma

    March 9, 2020 at 7:25 am

    darun

  22. Md Maruf

    Md Maruf

    March 12, 2020 at 9:54 pm

    ধন্যবাদ।

  23. firoz alam niloy

    firoz alam niloy

    March 25, 2020 at 8:01 am

    NC

  24. Md.Nayeem islam

    Md.Nayeem islam

    March 25, 2020 at 10:00 pm

    Nice

  25. Nemon Rudra

    Nemon Rudra

    April 12, 2020 at 9:25 pm

    এটাতো বন্ধুত্ব

  26. Md Mithu Rahman

    Md Mithu Rahman

    April 17, 2020 at 10:03 am

    Amr o bondhu silo

  27. Nourin Nishat

    Nourin Nishat

    April 19, 2020 at 9:10 pm

    Great

  28. Misti Islam

    Misti Islam

    April 22, 2020 at 1:40 am

    Nc

  29. Md Motiur

    Md Motiur

    April 22, 2020 at 10:57 pm

    nice

  30. jakariya jakariya

    jakariya jakariya

    April 23, 2020 at 8:18 pm

    Good

  31. Mahade Hasan

    Mahade Hasan

    April 24, 2020 at 10:26 am

    Nice

  32. Partha Kumar

    Partha Kumar

    April 26, 2020 at 6:24 am

    Nice

  33. Md Golam Mostàfa

    Md Golam Mostàfa

    April 26, 2020 at 11:52 am

    পুরোনো দিনের কথা মনে পড়ে গেল।

  34. Sharif Zindaneee

    Sharif Zindaneee

    April 26, 2020 at 11:11 pm

    nice

  35. Mawon Biswas

    Mawon Biswas

    April 27, 2020 at 2:25 am

    Nc

  36. Shanjida Islam

    Shanjida Islam

    April 27, 2020 at 8:53 am

    Atai tw frndship😍

  37. Sabina Akter

    Sabina Akter

    April 29, 2020 at 4:37 am

    Vlo thakok proti ta bondo

  38. Sujon Saikot

    Sujon Saikot

    May 1, 2020 at 12:14 pm

    Apni to amake bondhur kotha mone koriye dilen

  39. Md Khyrul

    Md Khyrul

    May 1, 2020 at 11:05 pm

    Nice

  40. Mojammal Haque

    Mojammal Haque

    May 2, 2020 at 5:30 pm

    Good

  41. kawsar hasan

    kawsar hasan

    May 6, 2020 at 4:07 am

    wow

  42. Parvej Abir

    Parvej Abir

    May 6, 2020 at 7:06 pm

    বেঁচে থাকুক বন্ধুত্ব

  43. Liyana Rasa

    Liyana Rasa

    May 7, 2020 at 10:31 pm

    Daru Post

  44. Hridoy Khan

    Hridoy Khan

    May 8, 2020 at 2:02 pm

    good

  45. Aysha Binte

    Aysha Binte

    May 8, 2020 at 9:17 pm

    nice

  46. Jahangir Alam

    Jahangir Alam

    May 9, 2020 at 3:30 am

    Onk valo

  47. Anisur Rahman

    Anisur Rahman

    May 9, 2020 at 2:23 pm

    wow

  48. Hridoy Khan

    Hridoy Khan

    May 9, 2020 at 4:44 pm

    wow

  49. Emon Rafiq

    Emon Rafiq

    May 12, 2020 at 1:29 am

    I miss my friend

  50. Abir Hasan

    Abir Hasan

    May 13, 2020 at 6:21 pm

    thik bolsen vai

  51. rijbj jakir

    rijbj jakir

    May 13, 2020 at 7:01 pm

    nice

  52. Tawsif Apon

    Tawsif Apon

    May 15, 2020 at 1:12 am

    Frnd are forever

  53. Koli Talukder

    Koli Talukder

    May 16, 2020 at 3:00 pm

    সুন্দর

  54. Arshia joya

    Arshia joya

    May 22, 2020 at 5:00 am

    Friendship

  55. Riad Hasan

    Riad Hasan

    May 23, 2020 at 12:24 pm

    Awesome

  56. Emon Rafiq

    Emon Rafiq

    May 23, 2020 at 11:51 pm

    I miss my friends

  57. Asadullah Jilani

    Asadullah Jilani

    May 24, 2020 at 5:03 pm

    gd

  58. Humayun Kabir

    Humayun Kabir

    May 24, 2020 at 9:23 pm

    Gd

  59. sulay man

    sulay man

    May 27, 2020 at 5:13 pm

    miss you all friend

You must be logged in to post a comment Login

Leave a Reply

লাইফস্টাইল

ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের শীর্ষ ৭ টি সুবিধা

MD Rahul

Published

on

সবাই কেমন আছেন।আশাকরি সবাই ভালো আছেন।আজ জেনে নিন ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশন ব্যাবহারের সেরা সুবিধা সম্পর্কে।

ফিটনেস অ্যাপ কী?

ফিটনেস অ্যাপস হলো সংস্থাগুলি আপনাকে ফিট এবং সুস্থ রাখতে ডিজাইন করা অ্যাপ্লিকেশন। এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি খুব সহজেই মোবাইল ফোনে ডাউনলোড করা যায়। এই অ্যাপ্লিকেশনের উদ্দেশ্য হলো আপনার খাবার গ্রহণ, জলের গ্রহণ এবং ওয়ার্কআউট প্যাটার্ন ট্র্যাক করে আপনার জীবনযাত্রাকে স্বাস্থ্যকর করে তোলা। কিছু অ্যাপ্লিকেশন এমনকি আপনার হার্টের হার এবং রক্তচাপের উপর নজর রাখে যা উচ্চ রক্তচাপের ব্যক্তিদের জন্য উপকারী।কিছু স্বাস্থ্য এবং ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশন এমনকি স্বাস্থ্য কোচ আছে, যারা তাদের ক্লায়েন্টদের তাদের স্বাস্থ্য লক্ষ্যগুলি কার্যকরভাবে অর্জন করতে সহায়তা করে।

ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশনগুলির সুবিধা

১.আপনার ডায়েট সহজে পর্যবেক্ষণ করুন

ওজন পর্যবেক্ষক বা যারা ওজন বাড়াতে চান তারা প্রতিটি খাবারে খাওয়ার খাবারের ধরণ এবং পরিমাণ উল্লেখ করতে পারেন। এই তথ্য থেকে, স্বাস্থ্য অ্যাপ্লিকেশনগুলি আপনার খাবারের ক্যালোরি, কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন এবং ফ্যাট সামগ্রী গণনা করে। এইভাবে, আপনি এমন খাবারগুলি এড়াতে পারেন যা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য সঠিক নাও হতে পারে। আপনি সহজেই আপনার সমস্ত খাবারের পরিমাণ গ্রহণ করতে পারেন এবং কেবলমাত্র একটি ক্লিকে একটি ডিজিটাল খাবার ডায়েরি বজায় রাখতে পারেন। গবেষণায় দেখা গেছে যে খাদ্য ডায়েরি বা খাবারের লগ বজায় রাখা ব্যক্তিদের আরও সচেতনভাবে খাবার খেতে সহায়তা করে।

২.আপনার অগ্রগতি নিরীক্ষণ

এখন আপনি কেবলমাত্র এক ক্লিকে আপনার সমস্ত ওয়ার্কআউট এবং স্বাস্থ্যের অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ করতে পারেন। ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশনগুলি আপনার সমস্ত স্বাস্থ্য বিবরণ এবং আপডেট পূরণ করতে সক্ষম করে। উদাহরণস্বরূপ – প্রতিবার আপনি যখন পরীক্ষা করেছেন তখন আপনি রক্তে গ্লুকোজ স্তর এবং রক্তচাপের মাত্রা রেকর্ড করতে পারেন। এটি আপনাকে একসাথে আপনার স্বাস্থ্যের বিশদটি ট্র্যাক করতে সহায়তা করে। এমনকি আপনার বর্তমানের রক্তের পরামিতিগুলি আপনার পূর্ববর্তীগুলির সাথে তুলনা করতে পারেন, যা আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতি হয়েছে কি না তা আপনাকে ধারণা দেবে।

৩.বিনামূল্যে স্বাস্থ্য এবং ফিটনেস টিপস দিন

অনেক স্বাস্থ্য এবং ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশনগুলি স্বাস্থ্য এবং ফিটনেস সম্পর্কিত পরামর্শ এবং নির্দেশিকা সরবরাহ করে, যা ব্যক্তিদের তাদের স্বাস্থ্য লক্ষ্য পূরণে সহায়তা করে। আপনি নিখরচায় ওয়ার্কআউট বা অনুশীলন ধারণা পেতে পারেন যা আপনাকে আপনার ওয়ার্কআউটের রুটিন সহজেই পরিকল্পনা করতে সহায়তা করে।

৪. আপনার পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন

পেডোমিটার অ্যাপ্লিকেশনগুলি এখন মোবাইল ফোনে উপলভ্য, যেখানে আপনি কয়েকটি পদক্ষেপ রাখতে পারেন এবং আপনি যে দূরত্বটি দিয়েছিলেন সেগুলি ট্র্যাক করতে পারে। এই জাতীয় অ্যাপ্লিকেশনগুলি আপনাকে প্রয়োজনীয় সমস্ত তথ্য দিয়ে আপনার পদক্ষেপের গণনা লক্ষ্য পূরণে সহায়তা করে। আপনার পদক্ষেপগুলি পর্যবেক্ষণ করা আপনার দৈনিক পদক্ষেপের সংখ্যা উন্নতি করতে পারে এবং আপনার লক্ষ্য অর্জনের দিকে আরও কাজ করতে পারে।

৫. ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য কোচ সরবরাহ করুন

স্মার্টফোন প্রযুক্তিগুলি এখন জীবনকে আরও সহজ করে তুলেছে। আপনার আর প্রশিক্ষক বা স্বাস্থ্য কোচ বা ফিটনেস ক্লাসের খোঁজ করতে হবে না। ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশনগুলি আপনাকে ফিট এবং সুস্থ রাখতে দুর্দান্ত সুযোগগুলি সরবরাহ করে। কিছু অ্যাপের সাশ্রয়ী মূল্যে ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য কোচ রয়েছে।কোচ আপনাকে আপনার ফিটনেস লক্ষ্য অর্জনে সহায়তা করে এবং আপনাকে ফিটনেস ক্রিয়াকলাপ এবং আপনার ডায়েট সম্পর্কেও শিক্ষিত করে। সর্বোত্তম অংশটি হলো এই সুবিধাটি পেতে আপনাকে দীর্ঘ সময় ধরে ভ্রমণ করার দরকার নেই। আপনাকে যা করতে হবে তা হলো অ্যাপটি ডাউনলোড করে একটি ফিটনেস প্রোগ্রাম শুরু করা

৬.এক স্বাস্থ্য সরঞ্জামে সমস্ত

ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশনগুলি হলো ওয়ান স্টপ স্টেশনের মতো যেখানে আপনি আপনার সমস্ত লাইফস্টাইল পরামিতি যেমন স্টেপ কাউন্ট, ডায়েট, জলের গ্রহণ, রক্তের পরামিতি এবং ওয়ার্ক আউট রুটিনগুলি পর্যবেক্ষণ করতে পারেন। এই সমস্ত কিছুর রেকর্ড রাখতে আপনার বিভিন্ন ডায়েরি বা বই বজায় রাখতে হবে না। ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশনগুলি আপনার জীবনযাত্রার অভ্যাসগুলি উন্নত করতে সহায়তা করে, কারণ এগুলি আপনার স্বাস্থ্যের উপর একটি বিশাল ইতিবাচক প্রভাব ফেলে।

৭.আপনাকে অনুপ্রাণিত রাখুন

ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সুবিধা হলো ‘মোটিভেশন’। ফিটনেস অ্যাপ্লিকেশনগুলি থেকে বিজ্ঞপ্তি এবং অনুস্মারকগুলি আপনার স্বাস্থ্য লক্ষ্যগুলি সম্পর্কে আপনাকে স্মরণ করিয়ে রাখে, এভাবে আপনাকে প্রেরণা জোগায়। আপনার স্মার্টফোনটি ব্যবহার করার সময় আপনি একদিনে আপনার ফিটনেস অ্যাপটি বিভিন্ন সময়ে আসতে পারেন। ফিটনেস
অ্যাপ্লিকেশনগুলি আমাদের জীবনকে আরও সহজ করে তুলেছে এবং আপনাকে প্রতিদিন আপনার ক্রিয়াকলাপগুলি ট্র্যাক করতে সক্ষম করে। এইভাবে, আপনাকে আপনার ক্রিয়াকলাপ এবং সামগ্রিক ফিটনেসের দিকে মনোনিবেশ করে তোলে।

পোষ্টটি কেমন লাগলো প্রিয় পাঠকবৃন্দ। আপনাদের উত্তরের অপেক্ষায়। পোষ্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন।আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Continue Reading

লাইফস্টাইল

আপনার শিশুর জন্য সঠিক জুতো কীভাবে নির্বাচন করবেন

MD Rahul

Published

on

সবাই কেমন আছেন।আশাকরি সবাই ভালো আছেন।আজ নিয়ে আসলাম আপনার শিশুর জন্য কোন ধরনের জুতা নির্বাচন করবেন।
আপনার বাচ্চা তার পায়ে পড়ার আগেই আপনি স্বাভাবিকভাবেই এই শিশুর জুতো কিনতে আগ্রহী। আপনার ক্ষুদ্র টোটস তাদের সেরা পা এগিয়ে রাখার আগে এটি কেবল সময়ের বিষয়। সর্বদা একটু প্রস্তুতির প্রয়োজন হয়, তবে চুলচেরা কিছুই হয় না! অনেক পিতা-মাতা সিদ্ধান্ত নেন যে তাদের বাচ্চা তাদের প্রথম বুটিগুলি কাটিয়ে উঠতে আরও বেশি সময় কাটবে, অন্যরা খুব শীঘ্রই এটির জন্য যায়। যেভাবেই হোক, শীঘ্রই বা পরে আপনার শিশুর পক্ষে সঠিক জুতা খেলাধুলা করা এবং অতিরিক্ত পরিধানের অনুভূতির সাথে পরিচিত হওয়া প্রয়োজন
বাচ্চাদের জন্য বাজারটি আরাধ্য এবং সুন্দর জুতা দিয়ে প্লাবিত হয়েছে, তবে বাবা-মায়ের পক্ষে আপনার শিশুর ঠিক ঠিক ফিট হওয়া জুতো বাছাই করা গুরুত্বপূর্ণ। আপনার পছন্দের দোকানে জুতার তাকগুলিতে মনোমুগ্ধকর ফ্যাশনে সজ্জিত এই তলগুলির চেহারা দিয়ে দূরে সরে যাবেন না। প্রলোভন এড়াতে এবং আপনার শিশুর জন্য কী আরামদায়ক হবে তা বেছে নিতে।

আপনি কয়েকটি সহজ পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে পারেন:

জুতোর সঠিক আকার বেছে নেওয়ার সময় বাচ্চাদের প্রাপ্তবয়স্কদের মতো একই পরিমাণ মনোযোগ প্রয়োজন। অতএব, জুতোর আরাম এবং নমনীয়তা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে এবং এটি নির্বাচনের মূল মানদণ্ড হওয়া উচিত।একটি শিশুর জন্য জুতো যথাযথ উপযুক্ত হওয়া উচিত – খুব আলগা হলে আপনার শিশুটি পড়ে যেতে পারে বা হাঁটতে একেবারে অসুবিধাগ্রস্থ হতে পারে। খুব বেশি টাইট হলে আপনার বাচ্চার ফোস্কা বা জুতোয়ের কামড় পড়তে পারে, যার ফলে পায়ে জ্বালা বা ব্যথা হতে পারে যা খুব ঘা হয়ে যেতে পারে এবং আরও খারাপ হতে পারে।
আবহাওয়ার পরিস্থিতিও মনে রাখা উচিত। গ্রীষ্মের জন্য স্যান্ডেল, -অন বা খোলা টুড জুতো উপযুক্ত হবে, যা আপনার শিশুর পায়ে শ্বাস নিতে সহায়তা করে। জুতার তলগুলি পিচ্ছিল হওয়া উচিত এবং অবিচ্ছিন্নভাবে পুরু হওয়া উচিত না কারণ তারা নিবিড় হাঁটাচলা না করে।আপনি নিজের প্রবেশ করতে সক্ষম হবেন আপনার বাচ্চাটি ফিটটি পরীক্ষা করতে জুতোটি স্পোর্ট করে এবং জুতার আঙুল এবং শেষের মধ্যে কমপক্ষে আধা ইঞ্চি ফাঁক করে আঙ্গুলটি স্বাচ্ছন্দ্যে আঁচড়ান। চিকিত্সকের সাথে চেক করুন, আপনার সাধারণ পাতায় আপনার শিশুর পায়ের আকার আপ।

সাবধানতা অবলম্বন করা:

গন্ধযুক্ত পা এবং জুতা। কিছু বাচ্চাদের গন্ধ খারাপ হতে পারে, বড় হওয়ার চেয়ে খারাপ। সুতরাং, স্বাস্থ্যকর উদ্দেশ্যে ধুয়ে যাওয়া জোড়া জুতাতে বিনিয়োগ করা ভাল। বালির কামড় এবং পায়ের আঙ্গুলের সংক্রমণ এড়াতে জুতা বা এমনকি স্যান্ডেলগুলির অভ্যন্তর থেকে বালু বা কাদা পরিষ্কার করুন। জুতো গোড়ালি যদি উঁচু বা বুট হয় তবে শিশুর হাঁটাচলা সীমাবদ্ধতা এড়াতে পায়ের গোড়ালিগুলির চারদিকে চলাচল অবাধ এবং নমনীয় কিনা তা পরীক্ষা করুন। বাচ্চাদের ধীরে ধীরে মনোযোগ দেওয়া উচিত দ্বিতীয় বিভাজনে তারা পড়ে যেতে পারে এবং আপনার বিশ্বকে উপরের দিকে ডাউন করতে পারে। অতএব, জরিযুক্ত জুতা সঙ্গে তাদের অনেক পুনরায় টাই করতে প্রস্তুত থাকুন। সামান্যতম অবহেলা আপনার শিশুকে তার পায়ে কাঁপিয়ে তুলতে পারে। কিছু শ্বাস প্রশ্বাসের জন্য, ভেলক্রো দিয়ে জুতো বেছে নেওয়া ভাল। বাবার পা এক রকম নয় এক পা সবসময় অন্যটির চেয়ে কিছুটা বড় থাকে তাই বড় ফুট আরও ভাল ফিট করা জুতো বাছাই করা ভাল।

অনুপযুক্ত ফিটিং জুতো এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

বাচ্চা হিসাবে, আপনার শিশুর হাড়গুলি নমনীয় এবং যদি একটি ছোট আকারের জুতো পরানো হয় তবে নিজেকে সংকোচিত পরিবেশে উপযুক্ত করে তুলতে পারে। আপনার বাচ্চা অভিযোগ করতে বা কানা দিতে পারবে না, কারণ প্রভাবগুলি তাত্ক্ষণিকভাবে হবে না, তবে সময়ের সাথে সাথে, একটি বিধ্বংসী প্রভাব ফেলতে পারে। আপনার শিশুর জন্য বিবেচিত ভুল আকারের জুতাগুলির খারাপ প্রভাবগুলি বোঝার জন্য গবেষকরা এবং চিকিৎসকরা এখানে যা রেখেছেন তা এখানে।খুব সংক্ষিপ্ত এবং শক্ত জুতো পায়ের আঙ্গুলের প্রাকৃতিক অবস্থানকে বিকৃত করে যার ফলে পায়ের পায়ের জোড়গুলির অবস্থান পরিবর্তন হয়। টাইট বা ছোট জুতোতে পায়ের আঙ্গুলগুলি টানটান হয়ে যায় ফলে টেন্ডার ব্যথা, প্রদাহ এবং পায়ের পেশী সংক্ষিপ্ত হয়। স্বাভাবিকভাবেই, শর্ট জুতাগুলিতে রক্ত ​​সঞ্চালনের সমস্যা সৃষ্টি করে, ঠান্ডা এবং অসাড়তা অনুভূতি, ভেরিকোজ শিরাগুলির মতো শিরাজনিত সমস্যা দেখা দিলে পা তার প্রাকৃতিক অবস্থান হারাতে থাকে। সমস্ত মাননীয় জুতো খারাপ অঙ্গবিন্যাসের কারণ হতে পারে, কারণ আপনার শিশুটি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সন্ধান করতে পারে আরামদায়ক অঞ্চলটি স্লুইচিং করে বা পোঁদ নিয়ে পুরোপুরি বাইরে দাঁড়িয়ে বা তার শরীরের ওজন একাকীভাবে পা দুটির উপর দিয়ে বিশ্রাম নেওয়ার মাধ্যমে লড়াই করার জন্য আরাম জোন।অসুস্থতাযুক্ত জুতোজনিত কারণে সবচেয়ে সাধারণ এবং অত্যন্ত গুরুতর সমস্যা হ’ল ব্যান। সংক্ষিপ্ত বা আঁট জুতো পায়ের আঙ্গুলের গভীর বাঁক নিতে সময়সীমার কারণে যথাযথভাবে পায়ের প্রান্তরেখা নষ্ট করতে পারে, ফলে চরম ব্যথা হয় এবং কখনও কখনও অপারেশনেরও প্রয়োজন হয়।

কেনার উপযুক্ত সময়:

দিনের শেষে, আপনি আপনার শিশুর জুতা বাছাই করার সঠিক সময় সিদ্ধান্ত নেওয়ার পক্ষে সেরা বিচারক। কেবলমাত্র আপনি সেই সময়টি জানেন যখন আপনার শিশু প্রচুর মজাদার মেজাজে থাকে, এটি জুতার কেনাকাটার উপযুক্ত সময়। সর্বোপরি, আপনার বাচ্চাকে সেই জুতা খেলাধুলা করতে এবং সঠিক জোড় বেছে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে সহায়তা করার জন্য আপনার চারপাশে হাঁটতে হবে। এখন, যদি আপনার কান্নার বাচ্চা আপনাকে পাগল করে তোলে তবে তা সম্ভব হবে না। আপনার যদি আপনার প্রবাসে খুব বেশি চালাতে হয় তবে আপনার শিশুর জুতো চেক সেশনগুলি প্রথমে শেষ করার চেষ্টা করুন এবং আপনার বাচ্চা যখন সমস্ত ক্লান্ত এবং ছাদটি নীচে নেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকে তখন উভয়ই মলত্যাগের কারণ হয়ে থাকে।

জুতো পরিবর্তনের ফ্রিকোয়েন্সি:

আপনি যখন আপনার শিশুর জুতো বাছাই করেন তখন আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে যে শিশুর পায়ের আঙ্গুল এবং জুতার শেষের মধ্যে কমপক্ষে আধা আঙ্গুলের দূরত্ব রয়েছে। কিছু বাবা-মা বাচ্চার হাঁটার ব্যয় সর্বাধিক পরিধানের চেষ্টা করে বড় আকারের জুতোয় বিনিয়োগ করে। প্রতিটি শিশুর জন্য বৃদ্ধির ফ্যাক্টর পরিবর্তিত হয়, সুতরাং, বড় আকারের জুতার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া আপনার শিশুর দ্রুত বৃদ্ধির উপরও নির্ভর করে। তিন সপ্তাহ থেকে এক মাস পর্যন্ত যে কোনও জায়গায় আপনার বাচ্চার জন্য নতুন জোড়া জুতা লাগতে পারে। জুতোর পরিবর্তন বিবেচনা করার জন্য আপনাকে একা এবং উপরের কভারটি পরিধান এবং টিয়ার করতে হবে।
এই শব্দগুলি মনে রাখবেন, সমস্ত পদক্ষেপগুলি আপনার পায়ের ভিত্তিতে পৌঁছানোর পরে এবং আপনার টটগুলি তাদের চতুর ছোট শক্ত পায়ে যাত্রা শুরু করার চেয়ে ভাল আর কিছু নেই।

পোষ্টটি কেমন লাগলো তা কমেন্ট করে জানাবেন। এই রকম আরো আপডেট আর্টিকেল পেতে আমাদের সাথে থাকুন।পোষ্টটি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

Continue Reading

লাইফস্টাইল

চুল পড়া রোধের শীর্ষ টিপস।চুল পড়া বন্ধ করার উপায়

MD Rahul

Published

on

সবাই কেমন আছেন। আশাকরি সবাই ভালো আছেন।আমাদের সাথে থাকলে সবাই ভালো থাকে। কারন আমরা নিয়ে আসি নতুন নতুন পোষ্ট। যা আপনার জানার পরিধি আরো বৃদ্ধি করে।তো চলুন জেনে নিন আপনার চুল পড়া কিভাবে রোধ করবেন।

চুল ক্ষতি রোধ করবেন কীভাবে?

বেশিরভাগ লোক চুলের ক্ষতি রোধ করার বিষয়ে চিন্তা করে তবেই তারা এটির অনেকগুলি ক্ষতি হারাবে। তবে আপনি যদি তাড়াতাড়ি শুরু করেন (যেমন আপনার চুলের চুল এখনও পূর্ণ থাকে) এটি আবেগগত এবং আর্থিকভাবে অনেক সহজ কাজ করে। আসলে, সত্যটি হল – চুল পড়া রোধ করা চুল পড়া চিকিৎসার চেয়ে সহজ প্রক্রিয়া। সাধারণভাবে বলতে গেলে, এটি কিছুটা বুদ্ধিমান চুলের যত্নে ফোটে – আপনি যে চুলগুলি পেয়েছেন তা যদি রাখার যত্ন নেন তবে আপনাকে আরও ভাল চেহারা এবং স্বাস্থ্যকর চুল দিয়ে আশীর্বাদ করা হবে।

আপনার চুলের যত্ন নিন

নোংরা চুল আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি এবং ঝরে পড়ার সম্ভাবনা বেশি – তাই চুল পরিষ্কার রাখুন। ভাল মানের শ্যাম্পু এবং চুলের পণ্য কিনুন। আপনি যখন চুলটি শ্যাম্পু করবেন তখন মাথার ত্বকে এবং চুলের শিকড়গুলিতে মনোনিবেশ করুন। কন্ডিশনার বা চুলের লোশন প্রয়োগ করার সময়, আপনার চুলের প্রান্তগুলিতে মনোনিবেশ করা ভাল (যা দ্রুত শুকিয়ে যায় এবং এক্সপোজার থেকে আগত ক্ষতির জন্য আরও ঝুঁকির মধ্যে থাকে)। নিয়মিত আপনার চুল ছাঁটাই আপনার চুল চেহারা এবং আরও ভাল বোধ করতে সহায়তা করে। তদ্ব্যতীত, বিরক্তিকর বিভাজনের সমাপ্তিগুলিতে এটি একটি দীর্ঘ “বাই-বাই”।

স্বাস্থ্যকর জীবনধারা অনুসরণ করুন

আপনার ত্বক এবং নখের মতো চুলও প্রায়শই সাধারণ স্বাস্থ্যের ব্যারোমিটার হয়। আপনি যদি সুস্থ থাকেন তবে আপনার চুল সম্ভবত ভাল দেখাবে। এবং যদি আপনার চুল পড়ছে তবে এটি সম্ভাব্য স্বাস্থ্য সমস্যার লক্ষণ হতে পারে
সুতরাং সুস্বাস্থ্যের জন্য আপনি যা কিছু করেন তা চুলের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য: ফলমূল এবং শাকসবজি খান (ভিটামিন বি, আয়রন, ক্যালসিয়াম এবং দস্তা বিশেষত স্বাস্থ্যকর চুলের সাথে যুক্ত হয়েছে); সর্বদা এপ্রোটিন সমৃদ্ধ খাদ্য গ্রহণ করুন (চুল প্রোটিন দিয়ে তৈরি) এবং পর্যাপ্ত পরিমাণ জল পান করুন।

আপনার চুলের জন্য খারাপ জিনিসগুলি এড়িয়ে চলুন

এটি এতটা সুস্পষ্ট বলে মনে হচ্ছে যে এটি বলার দরকার নেই। তবে এটিকে স্পষ্টতই আবার বলা দরকার কারণ আমরা অনেকে অজান্তেই বেশ কয়েকটি অস্বাস্থ্যকর চুলের অভ্যাস গ্রহণ করি।স্টাইল পরেন যা চুলকে টানটান করে তোলে (সাধারণত ব্রেড বা পোনি লেজের মধ্যে থাকে)। অনেক মহিলা তাদের চুল এত টানেন যে এটি এর শিকড় থেকে বেরিয়ে আসে। আপনি যদি শীঘ্রই আপনার চুলের স্টাইল পরিবর্তন করেন তবে আপনার চুলগুলি সুস্থ হয়ে উঠবে। অন্যথায়, আপনার চুলগুলি সেখান থেকে স্থায়ীভাবে বেড়ে যাওয়া বন্ধ হয়ে যেতে পারে যেখানে এটি সবচেয়ে বেশি টানা থাকে। আপনার চুলের চেহারা (স্টাইলিং, পারমিং, স্ট্রেইটিং, হট-অয়েল চিকিত্সার পদ্ধতিতে পরিবর্তন আনার জন্য ডিজাইন করা কোনও রাসায়নিক চিকিত্সা (এমনকি তথাকথিত ‘ভেষজ’গুলিও রয়েছে) , গরম ইস্ত্রি করা)। আপনার চুল ধীরে ধীরে শুকানো – এটি মাথার ত্বক শুকিয়ে যায় এবং চুলের ফলিকগুলিকে ক্ষতি করে। আপনার চুলকে কমপক্ষে কিছু সময় শুকিয়ে যাওয়ার অনুমতি দিন বা আপনার ব্লোয়ারের উপর তাপের সেটিংটি সর্বনিম্নে পরিবর্তন করুন। চুল পড়া বা রুক্ষ তোয়ালে ভেজা হয়ে গেলে – এটি শিকড় থেকে চুলের স্ট্র্যান্ড বের করে দেবে এবং অন্যকে ভেঙে ফেলবে ।

স্বাস্থ্যকর চুলের জন্য হোম চিকিৎসা

এখানে কয়েকটি ঘরোয়া চিকিত্সা রয়েছে যা ভারতীয় মহিলারা প্রজন্মের উপর নির্ভর করে। এই প্রাচীন রহস্য একটি শট নিজেকে দিন!
মেহেদি, দই, ভিজিয়ে রাখা এবং আস্তে আস্তে মেথি, গ্রাউন্ড হিবিস্কাস ফুল, গ্রাউন্ড গসবেরি এবং ডিম (এঁরা বা যে কোনও একটি) এর পেস্ট তৈরি করে শ্যাম্পু করার আগে প্রায় এক ঘন্টা চুল এবং মাথার ত্বকে লাগান। নিয়মিত সম্পন্ন হয়ে গেছে, এটি আপনার চুলকে আরও। এবং দেখতে আরও সুন্দর করবে। তবে মনে রাখবেন যে মেহেদী কেবল।রঙের চুলের জন্য উপযুক্ত কারণ এটি চুল লাল করে দেয়। চুলের ধোয়ার সাথে চা পান করুন বা কিছুটা লেবু পানিতে ডুবিয়ে নিন যাতে আপনি খুশকি থেকে মুক্তি পেতে স্নান করতে পারেন। নারকেল বা বাদাম প্রয়োগ করুন তেল. যদি প্রতিদিন এটি করা আপনার কাছে আকর্ষণীয় না হয়, শ্যাম্পু করার আগে মাথার ত্বকে রাতারাতি তেল প্রয়োগ করুন, বা চুল আঁচড়ানোর আগে আপনার মাথার শীর্ষে একটি ফোঁটা লাগান।
আপনার চুলকে কখনই সম্মানজনক মনে করবেন না। “নিরাময়ের চেয়ে প্রতিরোধই ভাল” এর প্রবন্ধটি আপনার চুলের ক্ষেত্রেও পুরোপুরি প্রযোজ্য। মনে রাখবেন, আপনি সুন্দর সুন্দর ট্রেসগুলি দূরে রাখলে আপনি খুব মিস করবেন!

আর্টিকেলটি কেমন লাগলো। তা কমেন্ট করে আমাদেরকে জানাবেন।আর আর্টিকেলটি আপনার ভালো লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।এই রকম আরো আপডেট আর্টিকেল পেতে আমাদের সাথে থাকুন। আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

Continue Reading