বর্তমান ফুটবলবিশ্বের সেরা সব ফ্রি কিক টেকার

ফুটবলের জগতে ফ্রি কিক ব্যাপারটা একটা বিশেষ স্থান ধারণ করে আছে। সেকালের রবার্তো কার্লোস, জুনিনহো, কাকা, রোনালদিনহো তারা সবাই আজও ভক্তদের মনে জায়গা করে আছে তাদের ফ্রি কিক নৈপূন্যের মাধ্যমে। রবার্তো কার্লোসের ফ্রি কিকের কার্লগুলো আজও ভোলার মতো নয়। রোনালদিনহো তার হাসিমাখা মুখ নিয়ে করা ফ্রি কিক গোলগুলো দিয়ে মন জয় করেছে লাখো ভক্তের। এই ২০২১ সালে এসেও অনেক ভালো ভালো ফ্রি কিক গ্রহীতারা তাদের দক্ষতা দিয়ে দলের জয়ে ভূমিকা রাখছেন। আজকে তাদেরকে নিয়েই লিখবো।


📢 Promoted post: বাংলায় আর্টিকেল লেখালেখি করে ইনকাম করতে চান?

১.  Lionel Messi

👉Read more: ফুল নিয়ে ক্যাপশন (সাদা ফুল, কৃষ্ণচূড়া ফুল, সূর্যমুখী, সরষে ফুল, রঙ্গন ফুল) উক্তি, স্ট্যাটাস

বর্তমান ফুটবলবিশ্বের সেরা ফ্রিকিক টেকার নিঃসন্দেহে মেসি। মেসির ফ্রি কিকে করা গোলগুলো বার্সেলোনাকে বার বার পরাজয় থেকে রক্ষা করেছে। তার ২০১৪ বিশ্বকাপে নাইজেরিয়ার বিরুদ্ধে আর্জেন্টিনার জার্সিতে করা ফ্রি কিকের গোলটা এখন পর্যন্ত তার করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ গোলগুলোর একটি। এছাড়াও পানেনকা দিয়েও ফ্যানদেরকে অবাক করে দিয়েছেন। তার ফ্রি কিকে করা গোলের সংখ্যা ৫৬।

২. Cristiano Ronaldo

grathor-ads

সেরা ফিনিশারের লিস্ট করলে সভাবতই CR7 এর নাম এক নম্বরে আসে। তবে ফ্রি কিকের ক্ষেত্রে? এক্ষেত্রে তার নামটা ১ ও ২ নম্বরের মধ্যেই থাকবে। প্রকৃতপক্ষে মেসি ও রোনালদো উভয়ই সেরা। রোনালদোর ফ্রি কিক গোলগুলোর মধ্যে প্লেয়ার ওয়ালের নিচ দিয়ে দেয়া গোলগুলো খুবই আকর্ষনীয়। ২০১৮ বিশ্বকাপে স্পেনের বিরুদ্ধে জয়ে তার নেয়া ফ্রি কিক খুবই সাহায্য করেছিল। তার করা ফ্রি কিক গোলের সংখ্যা মেসির সমান অর্থাৎ ৫৬ টা। কিন্তু মেসির যেহেতু বয়স কম এবং রোনালদোর চেয়ে কম ম্যাচ খেলেছে, তাই মেসিকে রোনালদোর চেয়ে ফ্রি কিকের দিক দিয়ে এক ধাপ উপরে রাখা হয়েছে।

৩. Neymar Jr.

📢 Promoted Link: Unlimited Internet Package Teletalk 2022 3G, 4G

বার্সেলোনার পিএসজির সাথে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ঐতিহাসিক কামব্যাকের কথা মনে আছে? সেদিনও নেইমার অসাধারন ফ্রি কিকে গোল করেছিলো। এখনো নেইমার প্রায়ই ফ্রি কিক গোল করে যাচ্ছে। তাই ৩ নম্বর স্থানটা তাকে দেয়া হয়েছে।

৪. Calhanoglu

এই এসি মিলান ফরোয়ার্ডকে অনেকেই চেনে না। তার নামের উচ্চারন চালহানোলু। এসি মিলান দলের একজন প্রানভোমরা খেলোয়াড় এই চালহানোলু। ইতালিয়ান লীগে এসি মিলান অনেকদিন ধরেই স্পটলাইটের বাইরে থাকায় তারও খুব বেশি গনমাধ্যমের আকর্ষণ পাওয়ার সুযোগ হয়নি। তবে সে একজন অসাধারন খেলোয়াড়। তার ফ্রি কিক গোলের সংখ্যা ২৭।

৫. P. Coutinho

কৌতিনহোকে চেনেনা এমন মানুষ খুব কমই আছে। সে লিভারপুলে থাকা অবস্থায় দলের প্রধান সেট পিস টেকার থাকায় অনেক ভালো ভালো ফ্রি কিক গোল করেছেন। বার্সেলোনায় যোগ দানের পর কিছুটা মেসির ছায়ায় পড়ে যান। তারপর ইঞ্জুরি তার ক্যারিয়ারটাকে অনেকটাই ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিয়েছে। তবে মেসি যেহেতু বার্সেলোনা ছেড়ে চলে গেছে, তাই সে যদি মূল একাদশে নিয়মিত খেলোয়াড় হতে পারে তাহলে তার সামনে ভালো করার সম্ভাবনা রয়েছে।

৬. Rakitic

বার্সেলোনায় মেসি, জাভি, ইনিয়েস্তা থাকা অবস্থায় এত ভালো ভালো ফ্রি কিক টেকার থাকার পরও লং ফ্রি কিকগুলো নিতেন ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার ইভান রাকিটিচ। সে শর্ট ফ্রি কিকে খুব ভালো করতে না পারলেও লং ফ্রি কিক নেয়ার ক্ষেত্রে তার জুড়ি নেই।

৭. Toni Kroos

টনি ক্রুস খুবই আন্ডার রেটেড একজন ফ্রি কিক টেকার। যিনি খুবই ভালো ফ্রি কিক টেকার হয়েও অনেকটাই লাইম লাইটের বাইরে। তার বিশেষত্ব লং ফ্রি কিক নেয়ায়। এই জার্মান মিডফিল্ডার খুবই ভালো লং ফ্রি কিক নিতে পারেন।

৮. Kevin De Bruyne

ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে এক আতংকের নাম এই Kevin De Bruyne। তাকে ভক্তরা সংক্ষেপে বলেন KDB। তার ফ্রি কিক টেকিং এবিলিটিও একেবারে বিশ্বমানের। এই প্লেমেকার প্রতিদিনই তার বহুমুখী দক্ষতা দেখিয়ে ভক্তদের মুগ্ধ করে যাচ্ছে। প্রতিদিনই যেন তার দক্ষতার ধার বাড়ছে।

৯. Cristian Eriksen

ইউরোতে তার ভয়ংকর ইঞ্জুরির পর থেকে কম বেশি সবাই চিনে ফেলেছেন এই ড্যানিশ সুপারস্টারকে। ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যামে থাকাকালীন তিনি দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। একইভাবে তার ফ্রি কিক একিউরেসির মাধ্যমে দলের বিজয়ে বার বার অবদান রেখেছেন। জাতীয় দল ও ইন্টার মিলানের জার্সিতেও তার অসাধারণ পারফরম্যান্স অব্যাহত রেখেছেন।

১০. Kolarov

অনেকেই তাকে চেনেন না। তিনি ম্যানচেস্টার সিটির অধিনায়ক ছিলেন। তারপর সেখান থেকে রোমাতে জয়েন করেন। তার পজিশন প্রধানত লেফট ব্যাক। তিনি তার ক্যারিয়ারের সেরা সময়টা পেছনে ফেলে আসলেও তার স্কিল এখনো ধারালো আছে। 

এছাড়াও Antoine Griezmann, Alexandre Arnold, Memphis Depay, Grimaldo, Luka Modric, Eden Hazard, Pjanic, Paulo Dybala ইত্যাদি খেলোয়াড়রাও ফ্রি কিক গ্রহনে পটু। তারাও বিভিন্ন সময়ে দলের প্রয়োজনে সুন্দর ফ্রি কিক নিয়ে দলকে জয় উপহার দিয়েছেন।

Related Posts