★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে ভূমিকা রাখতে পারেন এবং পাশাপাশি অর্থ আয় করতে পারেন★এখানে ক্লিক করে বিস্তারিত জানুন★

বাংলাদেশ পাকিস্তান টেস্ট সিরিজ এবং আবারও নতুন আশায় বুক বাঁধা

প্রথম টেস্ট আগামী ২৬ তারিখ থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট যা চট্টগ্রাম জহুর হোসেন স্টেডিয়ামে হবে। 

টেস্ট টীমে বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে। তামীম,তাসকিন এই দুইজন কে বেশ মিস করবো।এই দুইজনই ইনজুরির কারণে প্রথম টেস্ট খেলতে পারছেন না।সাকিব ও প্রথম টেস্ট খেলবেন কিনা এখনো নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না। যদিও স্কোয়াডে আছেন। তবে আমি অপেক্ষা করছি ইয়াসির আলী রাব্বির অভিষেকের। ছেলেটা প্রায় তিন বছর ধরে জাতীয় দলের সঙ্গে ঘুরছেন কিন্তু একবারো খেলার সুযোগ পেলো না।আশা করি এইবার অন্তত ভাগ্যের শিকেয় ছিড়বে।

আমরা জানি গত কয়েকটা মাসে ক্রিকেটে আমাদের ভয়াবহ দুর্দিন চলছে। টি টোয়েন্টি বিস্বকাপের ভয়াবহ পারফরম্যান্স এরপরে দেশের মাটিতে পাকিস্তানের সাথে টানা তিন ম্যাচ হেরে হোয়াইটওয়াশ। এরপরে অনেকের মতো আমিও সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেলেছিলাম এইটাই বাংলাদেশ ক্রিকেট টীমের আমার দেখা শেষ ম্যাচ!আর সম্ভব না! কিন্তু কৈশোরের প্রথম প্রেম কে এতো সহজে বা আদো কেউ ভুলতে পেরেছেন কি?আমি তো পারলাম না। 


নতুন করে ঠিকই আবার আশায় বুক বেধে অপেক্ষার ক্ষন গননা শুরু করে দিয়েছি।এইবারের যুদ্ধ ক্রিকেটের সবচেয়ে আদিমতম ফরম্যাট টেস্ট! এবং সত্যি বলতে আমাদের সবচেয়ে অসস্থিকর ফরম্যাট। খুব বেশি অলৌকিক কিছু না ঘটলে হার এড়ানো অনেক কঠিনই হবে বলা যায়। 

কিন্তু আমি আশা ছাড়ছি না।আর কিছু দিন পরেই বিজয়ের মাস!এই পাকিস্তান টীমের উত্তরসূরী রাই আমাদের একসময় সবচেয়ে নিকৃষ্টভাবে অত্যাচার করেছিলো।কিন্তু আমরা তাদেরও ছাড় দেই নাই। ঠিকই জয় ছিনিয়ে এনেছি।আমার বিশ্বাস আমরা এইবারো পারবো।

আর কিছু বাংলাদেশি ভাই দের অনুরোধ করবো আপনাদের ব্যক্তিগত পছন্দ অপছন্দ থাকতেই পারে কিন্তু যখন দেশ তো সবার আগে তাই না?
আমরা কেন ভুলে যায় এই পাকিস্তানি হানাদার রাই আমাদের কত মা বোন দের উপর অত্যাচার চালিয়েছিলেন,কত ভাই দের শহীদ বানিয়েছিলেন। অথচ এতো কিছু পরেও তারা আমাদের কাছে একটা ক্ষমা চাওয়ার প্রয়োজনও অনুভব করেন নি কোনো সময়! তবে খেলার সাথে আমি রাজনীতি অবশ্যই মেশাচ্ছি না আমিও ব্যক্তিগত ভাবে পাকিস্তানের অনেক ক্রিকেটারদের পছন্দ করি।কিন্ত তাই বলে নিজের দেশের সাথে ম্যাচে পাকিস্তানি জার্সি পড়ে যাবো, পাকিস্তানি পতাকা উড়াবো এতোটা উদার মানসিকতার বোধহয় হওয়া উচিত না।আমাদের পূর্বসূরি যারা দেশের হয়ে যুদ্ধ করেছেন এদের অনেকেই এখনো বেচে আছেন তাদের মানসিক, শারীরিক ভাবে কতটা কস্টের মধ্যে দিয়ে যান আশা করি একবার ভাববেন।


আপনারা কয়জন পাকিস্তানের পতাকা নিয়ে উল্লাসে মত্ত হয়েছিলেন যার মাধ্যমে তাদের অফিসিয়াল ক্রিকেট বোর্ড এর পেজ থেকে সেইসব সেলিব্রেশনের ভিডিও শেয়ার দিয়ে আমাদের তাচ্ছিল্য করার সাহস পাই।তাই আমার অনুরোধ থাকবে আপনারা এই দিক টাও বিবেচনাই রাখবেন। 

টেস্ট সিরিজের জন্য বাংলাদেশ দলের অনুশীলন ইতোমধ্যে চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে।শুভ কামনা টীম টাইগার্স।

1 Comment

মন্তব্য করুন