Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

আউটসোর্সিং

বিকাশ থেকে ধুমচে আয়!!!

TAHMID KHAN

Published

on

 

আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন সবাই? আশা করি আল্লাহর দয়ায় সবাই ভাল আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় আনেক ভালো আছি। আজকে আমি বিকাশ থেকে ইনকাম করার একটা উপায় বলব। তো আর দেরি না করে চলুন শুরু করা যাক।

আমাদের মধ্যে প্রায় সবাইর একটি হলেও বিকাশ একাউন্ট আছে। আর আমাদের দেশে এমন কেউ নেই যে কোনদিনও বিকাশ আ্যপের কথা শোনেনি। যারা বিকাশ সম্পর্কে কিছুই জানেনা তাদেরকে আমি একটু সংক্ষেপে বিকাশ সম্পর্কে বলব আনে।

বিকাশ হচ্ছে একটি অনলাইন মানি লেনদেন প্লাটফর্ম। এখান থেকে আপনি যেকোনো বিকাশ ইউজারের কাছ থেকে টাকা গ্রহণ করতে পারবেন কিংবা আপনিও চাইলে যেকোনো বিকাশ ইউজারকে টাকা দিতে পারবেন। তাছাড়া আপনি এখান থেকে ইন্টারনেট, গ্যাস কিংবা বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে পারবেন। বিকাশ থেকে চাইলে আপনারা নিজের বা অন্য কারো মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন। আপনার মোবাইলে যদি বিকাশ আ্যপটি না থাকে তাহলে নিচে দেওয়া “এখানে ক্লিক করুন” জায়গায় ক্লিক করে আপনি বিকাশ আ্যপটি ইন্সটল করতে পারবেন।

——————–এখানে ক্লিক করুন——————–

কয়েক দিন আগে বিকাশ তার গ্রাহকদের সরাসরি বিকাশের মাধ্যমে ইনকাম করার সুযোগ দিয়েছে। আপনারা বিকাশ থেকে রেফারের মাধ্যমে ইনকাম করতে পারবেন। আপনি একটি রেফারের জন্য সর্বোচ্চ ১০০ টাকা পেতে পারেন। এখান থেকে আপনি মাসিক প্রায় ১০০০ – ৫০০০ ইনকাম করতে পারবেন। কিভাবে রেফারাল লিংক পাবেন, কিভাবে রেফার করবেন, কিভাবে টাকা পাবেন বা কয়দিনের মধ্যে রেফার বোনাসের টাকা পাবেন তা সব আমি নিচে বিস্তারিতভাবে বলছি।

রেফারেল লিংক কোথায় পাবেন : প্রথমে আপনি আপনার বিকাশ আ্যপে প্রবেশ করেন এবং তারপর আপনার একাউন্টে লগিন করুন। আপনি আপনার একাউন্টের কর্ণারে ডান দিকে একটি পাখির চিহ্ন দেখতে পারবেন। সেখানে ক্লিক করুন তারপর আপনি আমার মেনু অপশনে চলে যাবেন সেখানে ৫ নম্বর অপশনে ” রেফার এ ফ্রেন্ড ” এ যান এবং সেখানে গিয়ে “রেফার করুন” অপশনে ক্লিক দেন। তারপর আপনি আপনার রেফারাল লিংকটা পেয়ে যাবেন। যেমন আমার রেফারাল লিংকটি হলো : https://bka.sh/next?c=signup&uuid=C1B3L1II3

কিভাবে রেফার করবেন : আপনি আপনার বন্ধু – বান্ধবের সাথে শেয়ার করবেন। আপনি আপনার রেফারাল লিংকটি চাইলে সরাসরি মেসেজ, মেসেঞ্জার, ফেসবুক, ওয়্যাটস আপ ইত্যাদি বিভিন্ন মাধ্যমে আপনি আপনার লিংকটি শেয়ার করতে পারেন। তাছাড়া আপনার যদি কোনো ভাল ওয়েবসাইট বা ব্লগ থাকে তাহলে আপনি চাইলে আপনার ওই রেফারাল লিংকটি সেখানে শেয়ার করতে পারবেন। যখন কেউ আপনার রেফারাল লিংকে ক্লিক করবেন আপনি টাকা পেয়ে যাবেন।

কিভাবে টাকা পাবেন বা কয় টাকা পাবেন : আসলে বিকাশে রেফার করে ইনকামের ক্ষেত্রে কোনো লিমিট নেই আপনি যত চান তত রেফার করতে পারবেন। পারলে দিনে ৫০টি রেফারও করতে পারবেন। আপনি যদি আপনার লিংক দেন এবং কেউ যদি সেখানে ক্লিক করে তাহলেই কিন্তু আপনি
টাকা পাবেন না। প্রথমত আপনি যাকে রেফার করবেন তিনি যদি এর আগে কোনোদিন বিকাশ আ্যপ ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আপনি টাকাটা পাবেন না। এক্ষেত্রে ফেক রেফার করার কোনো উপায় নেই। আপনি যাকে রেফার করবেন উনার নিশ্চয়ই বিকাশে নতুন হতে হবে বা উনি কখনো বিকাশ মোবাইলে ব্যবহার করেনি এমন হতে হবে। আপনি যখন কাউকে রেফার করবেন সে যদি লগিন করেন তাহলে আপনি পেয়ে যাবেন ২০ টাকা রেফারাল বোনাস। তারপর সে ব্যক্তি যখন প্রথমবার কোনো লেনদেন করবেন যেমন মোবাইল রিচার্জ, পে বিল ইত্যাদি তখন আপনি পেয়ে যাবেন আরো ৮০ টাকা। তাহলে আপনি একটি সফল রেফারে ১০০ টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন। আপনি আপনার রেফারাল লিংকটি যত বেশি শেয়ার করবেন আপনার ইনকামও তত বেশি হবে৷ আর সাধারণত ২ দিনের মধ্যে আপনার রেফার বোনাসের টাকা আপনার একাউন্টে চলে আসবে। কিন্তু ছুটির দিনে একটু দেরি লাগতে পারে। আপনার মোবাইলে যদি বিকাশ না থাকে তাহলে আমি নিচে লিংক দিয়ে দিব সেখানে ক্লিক করে রেজিষ্ট্রার করুন।

———————-রেজিস্ট্রার করুন———————-

  • আজকের জন্য এতটুকুই আবার কয়েকদিন পর আপনাদের সামনে হাজির হব নতুন কোন একটা টপিক নিয়ে৷ ততদিন পর্যন্ত ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন সেই কামনা করে আজকের জন্য বিদায় জানাচ্ছি। পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। আশা করি এই পোস্টটি আপনার ভালো লেগেছে এবং নিশ্চয়ই পোস্টটি আপনাদের বন্ধু – বান্ধবের সংগে শেয়ার করবেন।

আউটসোর্সিং

Survey করে প্রতিদিন ৫ থেকে ১০ ডলার ইনকাম। superpay অনলাইন ইনকাম সার্ভে সাইট।

সুখী মানুষ

Published

on

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ

যারা অনলাইনে কাজ করেন তারা জানেন যে। অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য সার্ভে করে ইনকাম করা হচ্ছে বেশি ইনকাম করার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম। আর সার্ভে সাইট এ কাজ গুলো অনেক সহজ ও হয়ে থাকে।

সাধারণ অ্যাপস এবং সাইটগুলোতে কাজ করে আমাদের সামান্য পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে প্রচুর সময় ব্যয় করতে হয়। তবে আপনি সার্ভে করে যদি ইনকাম করেছে এক্ষেত্রে আপনার যেই সময় কাজ করবেন সেই সময় অনুযায়ী অনেক ভালো ইনকাম পাবেন। সার্ভে সাইট গুলো টপ লেভেলের দেশকে টার্গেট করে তৈরি করা হয়। তাই ইনকাম বেশি থাকে।

আজকে আমি আপনাদের সাথে জনপ্রিয়তা সার্ভে সাইট শেয়ার করব। যেখান থেকে আপনারা কাজ করে প্রতিদিন 5 থেকে 10 ডলার ইনকাম করতে পারবেন অনায়াসে। এবং এখানে একটা সার্ভে করার জন্য ১০-৮০ সেন্ট বা তার ও বেশি হয়ে থাকে। অনেক সার্ভে আছে যেগুলো এক ডলার এর বেশি।

এই সাইটে কাজ করার জন্য আপনাদের কোন আইপি কিনা লাগবেনা। কোন ভিপিএন ব্যাবহার করা ছাড়াই কাজ করতে পারবেন। এখানে কাজ করার জন্য বাংলাদেশ থেকে কাজ করতে পারবেন কোন সমস্যা ছাড়া।

এখান থেকে আপনারা ভিপিএন ছাড়া বাংলাদেশ থেকে কাজ করার জন্য সুযোগ পাচ্ছেন। আপনারা জানেন যে বাংলাদেশ থেকে সার্ভে করার সুযোগ দেয় না। তবে এই সাইট আপনারা বাংলাদেশ থেকে সার্ভে করতে পারছেন।

এই সাইটে কাজ করার জন্য সর্বোপ্রথম আপনারা নিচের দেওয়া লিংকে ক্লিক করবেন। সেখানে ক্লিক করার পর আপনারা জয়েন হেয়ার ফ্রী তে ক্লিক করে আপনার আপনার সকল  ইনফরমেশন গুলো এখানে দিয়ে সাবমিট করবেন। সাবমিট করার সাথে সাথে এখানে আপনার একাউন্ট হয়ে যাবে এবং আপনি এখান থেকে একাউন্ট করার জন্য। 20 সেন্ট বোনাস পাবেন। এটা আপনার ওয়ালেটের মধ্যে জমা হবে।

সাইট লিংকঃ-https://superpay.me/?ref=myblogger57

এই সাইটের সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে এখান থেকে আপনি বিটকয়েন সহ অন্যান্য পেমেন্ট মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেন। আরও সুবিধা এখানে থেকে মাএ ১ ডলার হলে পেমেন্ট নিতে পারবেন। অন্যান্য সাধারণ সাইটগুলোতে আমাদের পেমেন্ট নেওয়ার জন্য মিনিমাম 20 থেকে 30 ডলার হলেই পেমেন্ট নিতে হয়।

প্রতিদিন এখানে মোটামুটি ভালো সার্ভে পাওয়া যায়। এখানে দশ মিনিটের মত একটা সার্ভে কমপ্লিট করলে এখান থেকে আপনারা 30 থেকে 50 পার্সেন্ট পর্যন্ত ইনকাম করা যায়।

যারা এই সাইট এ এখনো কাজ করেন না তারা কাজ শুরু করুন। এখানে কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন সকল সাইট থেকে বেশি। আর ইনকাম হবে অনেক দ্রুত। তাই কাজ করা শুরু করুন। সকল আপডেট পেতে তাদের টুইটার পেজ ফলো করতে পারেন। ভালো থাকবেন সবাই। আজকের মতো এই পযন্ত আল্লাহ হাফেজ।

Continue Reading

আউটসোর্সিং

ফ্রি ওয়েবসাইট তৈরি করে ইনকাম করুন grontho.com এর মত!

miraz raj

Published

on

প্রিয় পাঠক-পাঠিকা,

 

 

 

আপনাদের মনোরঞ্জন করার জন্য এই আর্টিকেলটি সাজানো হয়েছে।আর্টিকেলটি খুব মনোযোগ সহকারে পড়ুন তাহলে অবশ্যই আপনার প্রশ্নের উত্তরটি পেয়ে যাবেন।

 

 

 

 

ওয়েবসাইট নিয়ে অনেক প্রশ্ন থাকে তার মধ্যে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন,

ওয়েবসাইট কিভাবে তৈরি করে

ওয়েবসাইট দিয়ে কিভাবে ইনকাম করা যায়

ওয়েবসাইট কি

সেট কেন তৈরি করা হয়

 

 

 

 

ওয়েবসাইট কিভাবে তৈরি করা হয়=

মূলত একটি ওয়েবসাইট একজন ওয়েব ডেভলপার তৈরি করতে পারেন। একটি ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য প্রধানত কোডিং শিখতে হয়। কিন্তু এখন বর্তমান সময়ে। wordpress.com

এর মাধ্যমে স্বল্প সময়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা যায় এবং কাস্টমাইজ করা যায়।

এখান থেকে আপনি চাইলে খুব সহজেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে পারেন নিজের জন্য।এখন ওয়েবসাইট টা আসলে কি সেটা নিয়ে কিছু কথা বলি,

bikroy.com

grontho.com

facebook.com

youtube.com

freelancer.com

Fiverr.com

Apkpure.com

Twitter.com

Telegram.com

Telegram.com

Whatsapp.com

 

 

 

উপরে উল্লেখিত সকল নামগুলো একটি ওয়েবসাইটের নাম। আপনি যখন একটি ওয়েবসাইট তৈরি করবেন তখনই এরকম একটি নাম দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে। নাম কি আপনার একান্ত পছন্দ মত হতে হবে

। এখন কিছু ধারনা দেওয়া যাক। facebook.com। এ প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ। কিন্তু সর্বপ্রথম ফেসবুক আবিষ্কার করেন। এবং তার আবিষ্কারের সময় কিন্তু ফেসবুক থেকে তিনি ইনকাম করতে পারেননি বায়াতুল লোক ফেসবুক ইউজ করে নি। সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে মানুষের কাছে এটি পৌঁছে দিতে পেরেছে এখন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এখন তুমি ফেসবুক থেকে হাজার হাজার ডলার টাকা ইনকাম করতে পারতেছে।

 

 

 

আপনিও যখন একটি ওয়েবসাইট তৈরি করবেন প্রথমে জনপ্রিয়তা পাবে না। আপনি যখন এটি মানুষের কাছে প্রচার করবেন। তখন আস্তে আস্তে মানুষের টাকা ভিজিট করবে।আপনি এডসেন্স একাউন্টের সাথে আপনার ওয়েবসাইট লিংক করবেন। এরপরে বিভিন্ন রকমের অ্যাডসও হবে আপনার ওয়েবসাইটে। এবং সেই অ্যাপ থেকে ইনকাম পাবেন আপনি।

 

 

 

ওয়েবসাইট কখনো বন্ধ হয় না বান নষ্ট হয় না। আপনি যতদিন ইচ্ছা ততদিন এটি ইউজ করতে পারেন। সেট থেকে ইনকাম করা খুবই সহজ। যেমন একটি ধারণা দেওয়া যাক।

grontho.com। যিনি এই ওয়েবসাইটটি তৈরি করেন। তিনি কিন্তু এখন বসে বসে ইনকাম করতেছেন। কারণ আমরা বিভিন্ন রকমের পোস্ট করি। এই পোষ্টের মাধ্যমে মানুষ ক্লিক করে। ওয়েবসাইট ভিউ করে

এবং বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন শো করে। এবং তার মধ্য থেকে এই ওয়েবসাইটের মালিক টাকা পান।

 

 

 

 

অবশ্য ওয়েবসাইট নিয়ে আর আপনাদের কোন মন্তব্য থাকার কথা না।যদি আপনি আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়েন তাহলে অবশ্যই ওয়েবসাইট সংক্রান্ত সকল প্রশ্নের উত্তর। ইতিমধ্যে আপনি পেয়ে গেছেন।

 

 

 

 

 

তাই যদি আপনি একজন অনলাইন আরনিং করার স্বপ্ন নিয়ে থাকেন

তাহলে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে এবং সেখান থেকে ইনকাম করতে পারবেন আপনি খুব সহজেই।আজি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করুন এবং গুগল অ্যাডসেন্স লিঙ্ক করিয়ে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আপনি সেখান থেকে ইনকাম করতে পারেন।

 

 

 

wordpress.com।

কোডিং বা ডেভলপারের কাছ থেকে ওয়েবসাইট তৈরি করে ইউজ করতেছে না। সেই সুযোগটা করে দিয়েছে wordpress.com।

 

 

আপনি বিভিন্ন রকমের থিম পাবেন।যেগুলো আপনি আপনার ওয়েব সাইটে এড করে বিভিন্ন রকম ভাবে কাস্টমাইজ করে আপনার ওয়েবসাইটটি একটি নতুন রূপ দিতে পারবেন।

 

 

wordpress.com থেকে অনেক ফ্রি থিম আপনি নিতে পারবেন কোন টাকা ছাড়া। এবং আপনি youtube.com এ গিয়ে সার্চ করলে wordpress.com নিয়ে টিউটিরিয়াল পেয়ে যাবেন। সেখান থেকে আপনি একটি ফ্রি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন।

 

 

 

 

তাই আপনি যদি আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েব ওয়েবসাইট তৈরি করে ফেলুন

এবং অনলাইন থেকে ইনকাম করা শুরু করে দিন।

 

Continue Reading

আউটসোর্সিং

1000 ভিউ তে কত টাকা দেবে ইউটিউব?

miraz raj

Published

on

প্রিয় পাঠক-পাঠিকা,

আশা করি সবাই ভাল আছেন।

বিষয়টি খুবই ইন্টারেস্টিং এবং গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সবাই ইউটিউব এর সাথে পরিচিত।আমরা ইতিমধ্যে জেনে থাকবো যে ইউটিউব থেকে ইনকাম করা পসিবল। ইতিমধ্যে অনেকেই ইউটিউবে ক্যারিয়ার গঠন করেছে তাও আমরা জানি। আমরা কয়েক জন ইউটিউবার এর সম্পর্কে জানবো প্রথমে,

সালমান মুক্তাদি

মায়াজাল

অদ্ভুত মায়াজাল

তৌহিদ আফ্রিদি

 

 

 

এমন অনেক ব্যক্তি আছে যারা ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করার মাধ্যমে তাদের ক্যারিয়ার গঠন করে ফেলেছে। এবং তারা সেখান থেকে বুড়ি বুড়ি টাকা ইনকাম করতেছে।

 

কিন্তু আমাদের সকলের মনে একটি প্রশ্ন সব সময় থাকে।

1000 ভিউতে কত টাকা?

ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয়?

কিভাবে ভিডিও তৈরি করতে হয়?

কি নিয়ে ভিডিও তৈরি করলে ভালো হয়?

ইউটিউব কি আসলে টাকা দেয়?

ইউটিউব কি বন্ধ হয়ে যাবে?

 

 

 

এই রকম হাজারো প্রশ্ন আমরা প্রতিদিন শুনে থাকি। এই প্রশ্নগুলো আমাদের কাছে কমন হয়ে গেছে। এই প্রশ্নগুলোর উত্তর নেই এই আর্টিকেলটি সাজানো হয়েছে।

 

 

1000 ভিউতে কত টাকা=এই প্রশ্নটা সকলি করে থাকে। কিন্তু আমাদের যদি ইউটিউব সম্পর্কে জ্ঞান থাকে তাহলে এরকম প্রশ্ন করার কোন মানে হয় না। কারণ আমরা জানি বাংলাদেশ থেকে একজন ব্যক্তি যদি একটি ভিডিও দেখে।এবং ওই একই ভিডিও যদি আমেরিকা থেকে অন্য একজন ব্যক্তি দেখে। ওই দুই ব্যক্তির মধ্যে অনেকটা পার্থক্য থাকে। বাংলাদেশি এক টাকা আর আমেরিকার 84 টাকা। তোর সাধারণ জ্ঞান এটাই যে,আপনি এক মিনিট একটি ভিডিও দেখতে এসে জন্য আপনাকে এক টাকা দিল বাংলাদেশ থেকে।যদি আপনি ওই ভিডিওটায় আমেরিকায় বসে দেখেন তাহলে আপনাকে এক মিনিটের জন্য 84 টাকা দিল। টিভিতে এমন অনেক রাষ্ট্র আছে। এবং সকলের মুদ্রার মান কিন্তু সমান নয়। তাই এটাই সঠিক ধারণা দেওয়া যায় না। এটি তারা একটি হিসাব করে যেখান থেকে ভিডিও দেখা হয় ওই এবারিস অনুযায়ী হিসাবটা হয়।

ইউটিউব কিভাবে টাকা দেয়=আমরা সবাই জানি ইউটিউব গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে টাকা দেয়।অবশ্যই একটি গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলতে হবে। এবং সেখানে ইউটিউব আপনাকে টাকা পেমেন্ট করবে।

কিভাবে ভিডিও তৈরি করব=আপনার কোয়ালিটি অনুযায়ী আপনি যেকোন প্রফিক্স এর ওপরে ভিডিও তৈরি করতে পারেন। পারেন এবং মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারেন।

ইউটিউব কি আসলেই টাকা দেয়=বর্তমানে সময় দেখা যাবে যে বাংলাদেশি অনেক ব্যক্তি আছে যাদেরকে দিয়ে এডটা সম্পূর্ণরূপে ইউটিউব এর উপর নির্ভর করে।বলা যায় যদি তাদেরকে ইউটিউব ক্রিয়ার গঠন করে দিতে পারে তাহলে আপনাকে আমাকে অবশ্যই ঠকাবে না

ইউটিউব কি বন্ধ হয়ে যাবে=আসলে ইউটিউব একটি প্রতিষ্ঠান। এবং ইউটিউবে এখন জনপ্রিয় একটি প্রতিষ্ঠান। যারা ইউটিউব মেনটেন করে তারা অনেক ইনকাম করছে ইউটিউব থেকে। আপনি যদি কোন মাধ্যম থেকে ইনকাম করতে থাকেন তাহলে অবশ্যই ওই মাধ্যমটা ছেড়ে দিবেন না। তাহলে আমরা বলতে পারি যে ইউটিউব যেতে এখান থেকে ইনকাম করতেচে। সেহেতু তারা এই প্ল্যাটফর্ম কখনোই বন্ধ করবে না।

 

 

 

 

 

ব্যক্তি হয়ে থাকেন তাহলে আজ থেকে শুরু করে দিন। আপনি যদি একজন পারফেক্ট ব্যক্তি হয়ে থাকেন ইউটিউবে ইনকাম করার জন্য। তাহলে আপনি আজকে থেকে শুরু করে দিন আপনার ইউটিউব যাত্রা।

 

 

ধন্যবাদ।

 

Continue Reading






গ্রাথোর ফোরাম পোস্ট