“বিস্ময়কর মানব দেহের শ্রেষ্ঠত্বের মূলে থাকা বিজ্ঞান ও রহস্য ” (১ম পর্ব)

মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব। মানুষের শ্রেষ্ঠত্বের মূলে রয়েছে মানুষের অসাধারণ বুদ্ধিমত্তা এবং মানব দেহের অন্যান্য সাধারণ গঠন বৈশিষ্ট্য।সৃষ্টির উষালগ্ন থেকেই এ রহস্যময় মানব দেহ সচেতন ও বিজ্ঞজনদের চিন্তার খোরাক জুগিয়ে আসছে। যুগে যুগে অসংখ্য বিজ্ঞানীদের অক্লান্ত পরিশ্রম এবং আত্মত্যাগের ফলে মানব দেহের রহস্য উন্মোচিত হয়েছে এবং আরো হবে যদিও তা মানবদেহের রহস্যময়তার তুলনায় আমাদের কাছে সামান্য ধরা পড়ে। তার মধ্যে থেকে কিছু চমকপ্রদ তথ্য এখানে তুলে ধরা হলো:

  • মানবদেহের সবচেয়ে পরিশ্রমী অঙ্গ হল হৃদপিণ্ড। জারণ অবস্থা থেকে শুরু করে আমৃত্যু পর্যন্ত অবিরাম রক্ত সঞ্চালন করে যাচ্ছে। হৃদপিন্ডের দৈর্ঘ্য ৪ ইঞ্চি এবং প্রস্তুতি হৃদপিন্ডের ওজন মানুষের প্রায় ৩০০ গ্রাম এবং স্ত্রীলোকের প্রায় 200 গ্রাম। একজন সুস্থ মানুষের হৃৎপিণ্ড ২৬০ মিলিয়ন বার স্পন্দিত হয় প্রতিটি নিলয় থেকে প্রায় ১৫৫ মিলিয়ন লিটার রক্ত বের করে দেয় প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের বিশ্রামরত অবস্থায় প্রতিমিনিটে ৭০-৮০ বার হূদস্পন্দন ঘটে। একটি সংকোচন এবং এবং প্রসারণ। এর জন্য যে শক্তি ব্যয় করে তারা যা ২০০ পাউন্ড এর একটি বস্তু ১৪০ ফুট উপরে তোলা সম্ভব। একজন মানুষের নাক দিয়ে রোজ করে ১৪ কিউবিক মিটার বাতাস ফুসফুসে পৌঁছায় প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের প্রতি মিনিটে ১৪ থেকে ১৮ বার এবং নবজাতক শিশুর ৪০ বার শোষণ সংঘটিত হয়। জীবদ্দশায় মানুষ সর্বমোট প্রায় ৫০ কোটি বার নিঃশ্বাস প্রশ্বাস চালায়।
  • মানুষের মস্তিষ্কের গড় ওজন প্রায় ১৩৫০ গ্রাম এবং গড় আয়তন প্রায় ১৫০০ ঘন সেন্টিমিটার। স্নায়ু কোষ থাকে প্রতিটি স্নায়ুতন্ত্রের অনুভূতি শক্তি কম করে হলেও ১০ হাজার রকমের বিভিন্ন গন্ধ অনুভব করতে পারে। একটি লিমিটেড ভার্সনের (Latest Model)  উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন কম্পিউটার যে পরিমাণ খবর জমা রাখে, মানুষের মধ্যে তার চেয়ে এক লক্ষ গুণ বেশি খবর ধারণ করতে পারে। মানুষের মাথায় চুল থাকে কমবেশি ১ লক্ষ ২৫ হাজার টি। প্রতিদিন প্রায় ১০০ টি চুল গজায়। জীবদ্দশায় মাথা থেকে ১.৫ মিলিয়ন চুল পড়ে। একজন মানুষের শরীরে যত শিরা-উপশিরা আছে তার সবগুলো একসাথে লম্বা করলে ৫০ হাজার মাইল দীর্ঘ হবে। যে পরিমাণ চর্বি আছে তা দিয়ে ৭ টি বড় ধরনের কেক তৈরি করা যাবে। যে পরিমাণ ফসফরাস আছে তা দিয়ে ২২০০ টি দিয়াশলাই তৈরি করা যাবে। নতুন মানুষের চোখের একটা পলক ফেলতে সময় লাগে ০.৪ সেকেন্ড, পরিষ্কার আবহাওয়া স্বাভাবিক দৃষ্টিভঙ্গির অধিকারী একজন মানুষ পাহাড়ের চূড়া হতে ৫০ মাইল দূরের জ্বলন্ত ম্যাচের কাঠি দেখতে পারে। রাতে ঘুমালে মানুষের ওজন প্রায় ১১ আউন্স কমে।বেশিরভাগ মানুষের ঘুমের মধ্যে ৫০ বার এপাশ-ওপাশ করে। একজন স্বাস্থ্যবান লোক গোটা জীবনে গড়ে ৫০ হাজার কেজি পরিমাণ খাবার গ্রহণ করে। মানবদেহের ২০৬ খানা হাড় ভারি স্টিলের চেয়েও শক্ত। মাংসপেশী যে পরিমাণ তাপ উৎপন্ন করে তা দিয়ে ঘন্টায় ১ লিটার পানি উত্তপ্ত করা যায়। বিজ্ঞানের ভাসায়  রক্ত থেকে ১২৫ ঘন সেন্টি মিটার তরল পদার্থ পরিশ্রুত হয় যার ৯৯ পার্সেন্ট পানি আবার রক্তে ফিরে আসে।  প্রতি মিনিটে ১ ঘন সেন্টিমিটার মূত্র সৃষ্টি হয়। একজন সুস্থ মানুষের প্রতিদিন প্রায় ১৫ মিলিমিটার মূত্র ত্যাগ করতে হয়। একজন মানুষের গড় ক্ষমতা ০.১৪৩ অশ্ব ক্ষমতা। সুস্থ দেহে রক্তের গতিবেগ ঘন্টায় ৭ মাইল, হাসির শব্দের বেগ ঘন্টায় ৭ কিলোমিটার। মানুষের হাসির জন্য দায়ী পেশী আর রাগ করার জন্য ৪৩ টি বেশি। কেউ যদি প্রাণ খুলে হাসতে পারে তাহলে ১৫ থেকে ২০ মিনিটের হাসিটাকে দিতে পারে ঘন্টা দুয়েক প্রাণ খোলা হাসি আপনার মাঝে করতে পারে হাসির সঞ্চার। মানবদেহের জন্য হাসি সম্পূর্ণ ফ্রি অর্থাৎ বিনামূল্যে পাওয়া যায় কেউ যদি ১৫ মিনিট ক্ষুব্দ অবস্থায় থাকে তবে তার জন্য যে শক্তি ব্যয় হয় তা দিয়ে সে একটানা ৯ ঘন্টা কাজ করতে পারে। আর সর্দি কাশির জন্য প্রায় ২০০ রকমের বিভিন্ন ধরনের ভাইরাস দায়ী। মানুষ খাবার ছাড়া বাঁচতে পারে প্রায় পাঁচ সপ্তা।  পানিবিহীন ৫ দিন আর বাতাস ছাড়া মাত্র ৫ মিনিট।

ধন্যবাদ সবাইকে। বিস্ময়কর আমাদের মানব সম্পর্কে আরও কিছু থাকবে আমাদের পরের টিউটরিয়ালে।

রচনা: মো: ইয়াসিন জামান,

সম্পাদনা: মো: শাহারিয়ার জিম।

<

Related Posts