মন খারাপ ভালো হওয়ার বেস্ট উপায় – (মেয়েদের জন্য) প্র্যাকটিক্যালি প্রমানিত

মন খারাপ ভালো হওয়ার বেস্ট উপায় -( মেয়েদের জন্য)প্র্যাকটিক্যালি প্রমানিত

মন খারাপ ভালো হওয়ার বেস্ট উপায় -( মেয়েদের জন্য)প্র্যাকটিক্যালি প্রমানিত

আমার পোস্টে সবাইকে জানায় স্বাগতম । নতুন জায়গায় নতুন অভিজ্ঞতা, তবে লেখার অভিজ্ঞতা আছে। আশা করছি মেয়েদের গুলো ভালো করতে পারবো ।

শুনেছি ,মানুষের মন নাকি সেকেন্ডে ৮০ বার বদল হয়। কথা কি সত্য? 😝
আমি আসলে জানিনা, এটা সত্য কি না । তবে আমার মনে হয় এতোবার বদলাবে না, তবে বদল হয় তার একটা পরিমাপ বোঝানো হয়েছে । তো তাই আমাদের মন খুব বেশি পরিমানে বদল হয়।

তারই ধারাবাহিকতায় মন খারাপ ও একটি মানসিক অবস্থা । প্রতিটি মানুষই এই অবস্থার শিকার হয়। বিশেষ করে যারা একটু যুবক বয়সের তারাই এই মন খারাপ নামক অবস্থার সম্মুখীন হয় বেশি বেশি । তাদের মন খারাপ হওয়ার জন্য কোনো কারন লাগেনা ,হুদাই হুদাই মন খারাপ হয় । আবার অনেক সময় অনেক কারনেই মন খারাপ হয়ে থাকে ।

মন খারাপ হলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি গ্রস্ত হয় শিক্ষার্থী যারা তারা , তাদের যদি পরীক্ষার মাঝে মন খারাপ হয় তাহলে পড়াশোনা মুখস্থ হয় না । কারন পড়াশোনার সাথে মনের সম্পর্ক আছে তাই ।

তাহলে আজকে, এখানে ,আমি মেয়েদের মন খারাপ হলে কিভাবে ভালো হতে পারে তার একটি বেস্ট উপায় আলোচনা করবো। কেনো এটা মেয়েদের জন্য ? হয়তো অনেকেই বলবেন , এর উত্তরে বলবো আমি মেয়ে তাই এটাই আমি জানি , আর সত্যি বলতে আমি এই কাজগুলো করে থাকি । এবার উপায় গুলো জানি —

প্রথম উপায়– আপনার মন খারাপ যদি ছোট কারনে হয় বা হুদাই হয় , তাহলে আপনি গান শুনতে পারেন । আমি এই কাজটা আমি করি। তবে দুঃখের গান শোনা যাবে না । রোমান্টিক অথবা ধুম ধাড়াক্কা গান শুনতে হবে ,তাহলেই মন তাড়াতাড়ি ভালে হবে।

২য় উপায়—–

মন খারাপ হলে পায়চারি করতে পারেন , এতেও কিন্তু মন ভালো হয়, যদিও আমি এটা করি না । তারপর ও আপনারা ট্রাই করে দেখতে পারেন ।

৩য় উপায় —

মন খারাপ হলে বন্ধু বান্ধবী দের সাথে আড্ডা দিবেন , হাসাহাসি করবেন , গল্প করবেন ,তাদের সাথে ঘুরতে যাবেন ,এতে মন খারাপ হাওয়া হয়ে উড়ে যাবে। আমার মনে হয় এটা ছেলেরাও করতে পারেন ।

৪র্থ উপায় ( বেস্ট উপায়)—

যেকোনো মন খারাপ হলে আনার মনে হয় এই উপায় কাজ করবে । মেয়েরা সাধারন তো সাজগোজ পছন্দ করে, আর করবেই না কেনো ? নিজকে সাজাতে, সুন্দর দেখাতে সবাই পছন্দ করে । তাহলে মন খারাপ হলে , সাজগোজ করতে বসবেন, সাজগোজ করে ফটোসুট করবেন কখোন আপনার মন ভালো হয়ে যাবে আপনি বলতেই পারবেন না । এই কথা আমি মানুষের মুখে শুনেছিলাম, তারপর নিজে ট্রাই করে দেখছি কাজ করেছে । সো আপনারাও দেখতে পারেন । সবার জন্য শুভকামনা রইলো । আর পাঠকদের কে ধন্যবাদ ।
কারন

Related Posts

2 Comments

মন্তব্য করুন