মাথা থেকে খারাপ চিন্তা দূর করার উপায় | কৌশল

মাথা থেকে খারাপ চিন্তা দূর করার উপায়: সারাদিনে আমাদের প্রচুর সময় নষ্ট হয় বাজে চিন্তা করতে করতে। এমন সব চিন্তা মাথায় আসে যার কোনো ভিত্তি নেই। অথবা আমাদের জীবনে কোনো কাজেই আসবে না এমন সব চিন্তা মাথায় ঘুরপাক খায়।


📢 Promoted post: বাংলায় আর্টিকেল লেখালেখি করে ইনকাম করতে চান?

এসব বাজে চিন্তার কারণে মনোযোগ নষ্ট হয়। আসল কাজের ব্যাঘাত ঘটে। এমনকি অনেককে হাসির পাত্র হতে হয়। সেইসাথে কাজের প্রতি আগ্রহ এবং মনোযোগ দুটোই কমে যায়। তাছাড়া অনেক সময় আসল কাজেই মনোযোগ দেয়া হয় না। কখনো কখনো এসব বাজে চিন্তা মানসিক অশান্তি এবং দুশ্চিন্তার কারণ হতে পারে।

👉Read more: ফুল নিয়ে ক্যাপশন (সাদা ফুল, কৃষ্ণচূড়া ফুল, সূর্যমুখী, সরষে ফুল, রঙ্গন ফুল) উক্তি, স্ট্যাটাস

মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা বলেন, হাসিখুশি থাকতে হবে আর নিজেকে প্রোডাক্টিভ কাজের মধ্যে ব্যস্ত রাখুন। কারণ অলস মস্তিষ্কেই বাজে চিন্তা ভর করে বেশি। সেইসাথে নিজেকে সময় দিন। মজার ভিডিও দেখুন। যন্ত্রের মতো জীবনযাপন না করে মানুষের মতো বাঁচতে হবে। এবার জেনে নেয়া যাক কিছু কৌশল যা ঠিকভাবে প্রয়োগ করলে আপনার বাজে চিন্তা অনেকাংশেই লাঘব হবে।

মাথা থেকে খারাপ চিন্তা দূর করার উপায়

১| কাজের মাঝে বিরতি দিন। কারণ বিজ্ঞান বলছে, ক্লান্ত মস্তিষ্কে আজেবাজে চিন্তা ভর করে বেশি। এছাড়া প্রয়োজন পর্যাপ্ত ঘুম। ঘুম ঠিকমতো হলে শরীর ও মন দুটোই ভালো থাকে।

grathor-ads

২| যা মনে আসছে খাতায় বা ডায়েরিতে লিখে ফেলুন। এতে মষ্তিস্কের চিন্তাগুলো অন্যদিকে ধাবিত হবে। আর ডায়েরি লেখার অভ্যাস মনের চিন্তাগুলোকে একত্রে জড়ো করে ফেলে আর প্রশান্তি পান আপনি।

৩| নিজেকে কাজের মধ্যে ব্যস্ত রাখুন। তাহলে বাজে চিন্তা মাথায় আসার সময় পাবে না।

📢 Promoted Link: Unlimited Internet Package Teletalk 2022 3G, 4G

৪| নিজেকে সময় দিন। গান শুনুন। চাইলে যোগব্যয়াম করতে পারেন। এতে মন শান্ত হয় আর মষ্তিস্ক হতে বাজে চিন্তা দূর হয়।

৫| নিয়মিত শরীরচর্চা করার অভ্যাস থাকলে মষ্তিস্ক হতে নেতিবাচক ভাবনা দূর হয় আর শরীর আর মনের মধ্যে যোগসাধন হয়।

৬| নিজের কাজের বাইরে শখের জন্য সময় দিতে পারেন। যেমন- বই পড়া, ছবি আঁকা, কবিতা লেখা ইত্যাদি করতে পারেন। এছাড়া আপনি যখন দিনে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১৬- ১৮ ঘন্টা কাজের মধ্যে থাকবেন তখন বাজে চিন্তা মাথায় আসার সময়ই পাবে না।

৭| পুরনো কথা বেশি ভাববেন না। আবার ভবিষ্যৎ নিয়েও বেশি উদিগ্ন হবেন না। চেষ্টা করবেন অতীত, বর্তমান, ভবিষ্যত সবকিছু ব্যালেন্স করে চলতে।

৮| পরিবারের সাথে সময় কাটান। কাজের ফাঁকে বন্ধু বা সহকর্মীদের সাথে হাসি- ঠাট্টা, গল্পে মেতে উঠুন।

৯| মাঝে মাঝে বেড়াতে যান আর প্রকৃতির সাথে সময় কাটান। সবসময় এক জায়গায় বন্দী হয়ে থাকবেন না।

১০| পুরনো কাজে একঘেয়েমি এসে গেলে নতুন কাজে হাত দিন। এতে মন প্রফুল্ল থাকবে। এমন কিছু করুন যা আপনি আগে কখনোই করেননি।

১১| পেশাগত জীবনে কাজ নিয়ে বেশি চাপ নেবেন না। প্রয়োজনে কাজের তালিকা করে ফেলুন। আর মাঝে মাঝে নিত্যদিনের রুটিন বাদ দিয়ে নতুন কিছু করুন।

১২| সপ্তাহের ছুটির দিনটা কাজের কোনো চাপ নেবেন না। বরং নিজের আর পরিবারের জন্য রাখুন। তাদের সময় দিন।

১৩| আজকাল প্রযুক্তিও আমাদের মাথায় বাজে চিন্তা নিয়ে আসে। সে গাড়ি কিনেছে। আরে ও তো বিদেশে ঘুরতে গেছে। আমার কি হবে? এসব চিন্তা মাথায় আনবেন না। সবসময় ভাববেন আমি আমার জীবন নিয়ে ভালো আছি।

১৪| মনে ভালো চিন্তার বীজ বুনুন আর অন্যকে ক্ষমা করতে শিখুন। কারণ প্রতিশোধ প্রবণতা মনে নানা কুচিন্তার সৃষ্টি করে।

১৫| যা হয়ে গেছে তাকে বদলানো যাবে না আর ভবিষ্যতে কি হবে আপনি জানেন না। তাই বর্তমানটাকে নিয়েই ভাবুন। ডেল কার্নেগীর ভাষায় আজকের দিনটাকে নিয়েই মেতে থাকুন।

১৬| গুজবে কান দেবেন না আর একে অন্যের বদনাম করা এবং শোনা থেকে বিরত থাকুন।

১৭| নিজের মনকে কখনোই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা অপর কোনো বন্ধুর কাছে উন্মুক্ত করবেন না। এতে মনের দুশ্চিন্তা বাড়ে। যদি মনে হয় আপনি কারোর কথা গোপন রাখতে পারবেন না তাহলে সেই কথা না শোনাই ভালো।

১৮| সবসময় মনে রাখবেন ইতিবাচক আর নেতিবাচক দুইয়ে মিলিয়ে জীবন। তাই বেশি উদিগ্ন হবেন না।

সত্যি বলতে কি, মস্তিষ্ক তার নিয়মেই চলে। তবে আপনার জীবনযাপন পদ্ধতি আর কিছু কৌশল অবলম্বন আপনার মাথাকে বাজে চিন্তা মুক্ত রাখতে পারে। কারণ আপনি কি ভাববেন আর কি ভাববেন না সেটা নির্ভর করছে আপনার উপর।

এই ছিলো আজকের আলোচনা। পোস্টটি কেমন লেগেছে অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন আর কোন কৌশলটি আপনার মস্তিষ্কের বাজে চিন্তা দূর করতে সহায়ক হয়েছে সেটাও জানাতে ভুলবেন না। এমন সব দারুন দারুন পোস্ট পেতে Grathor এর Facebook Group এর সাথেই থাকুন।

Related Posts

2 Comments

মন্তব্য করুন