ডিজিটাল মার্কেটিং এ সফল হওয়ার উপায়, ক্যারিয়ার

একবিংশ শতাব্দীতে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং বেশ জনপ্রিয় এবং সম্ভাবনাময় একটি ক্ষেত্র। বর্তমান প্রতিযোগিতাময় বিশ্বে তাই এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর দিকেই তরুণ প্রজন্ম ঝুঁকছে বেশি। আপনিও যদি ডিজিটাল মার্কেটিং এ সফল হওয়ার উপায় জানতে চান কিংবা ভবিষ্যতে সফল ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে নিজেকে আত্মপ্রকাশ করাতে চান তাহলে এই লেখাটি পড়তে পারেন।

এই তথ্য প্রযুক্তির যুগে মানুষ আর গ্রাম, শহর কিংবা দেশের গন্ডিতে আটকে নেই। বর্তমানে চাইলেই মানুষ পৃথিবীর একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তে মুহূর্তেই ভার্চুয়ালভাবে চলে যেতে পারে। আর সেই সুযোগকেই কাজে লাগিয়ে এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রসার ঘটেছে দ্রুত থেকে দ্রুততর ভাবে। এই প্রতিযোগিতাময় বিশ্বে তাই একজন সফল ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে টিকে থাকতে হলে আপনাকে অবশ্যই নির্দিষ্ট কিছু পন্থা অবলম্বন করতে হবে।

ডিজিটাল মার্কেটিং এ সফল হওয়ার উপায়

প্রথমেই আপনার উপলব্ধি করা প্রয়োজন আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং বিষয়টি নিয়ে কতটা আগ্রহী? কারণ প্রায় সকল ক্ষেত্রেই সফল ব্যক্তিদের গল্প শুনলে আমরা বুঝতে পারি উনারা যে যার ফিল্ডে যথেষ্ট প্যাশনেট ছিলেন। মূলত আপনার আগ্রহ নেই এমন কিছুতে যুক্ত হলে আপনার সফল হবার বদলে ভেঙে পড়ার কিংবা মনোবল হারিয়ে ফেলার সুযোগ বেশি থাকে। সে জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং কি সে সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকা আবশ্যক।

কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং শুরু করবেন?

ডিজিটাল মার্কেটিং শুরুর জন্য আপনাকে সিলেকশনে যেতে হবে। কারণ ডিজিটাল মার্কেটিং বিভিন্ন পদ্ধতিতে করা যায়। যেমন-

• সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে মার্কেটিং
• ই-মেইল মার্কেটিং
• SEO
• কন্টেন্ট মার্কেটিং
• সার্চ ইঞ্জিনগুলোর মাধ্যমে মার্কেটিং ইত্যাদি।
এগুলো থেকে সিলেক্ট করে নিন আপনি কোন মাধ্যমে শুরু করতে আগ্রহী। এরপর সেই মার্কেট সম্পর্কে যা যা জানা প্রয়োজন এবং যেই যেই স্কিলগুলো থাকতে হবে তা অর্জন করুন। কাজ শিখুন।

ডিজিটাল মার্কেটারে সাথে কাজ করুন

কাজ শেখার পর সাথে সাথেই টাকা উপার্জনের দিকে না গিয়ে, বাস্তবিকভাবে একজন দক্ষ মার্কেটারে সান্নিধ্যে থেকে কিছুদিন কাজ করে নিজে অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা দুটোই সফলভাবে অর্জনের চেষ্টা করুন। এতে করে আপনি যথেষ্ট কোয়ালিসম্পন্ন হবেন। যার জন্য আপনার পরবর্তীতে সফল হবার রাস্তাটা সহজ হবে।

কমিনিউকেশন দক্ষতা / মার্কেটিং এ সফল হওয়ার উপায়

সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগিয়ে নিজের নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি করুন। যারা সফল হচ্ছে তাদের দেখুন। জানার চেষ্টা করুন তাদের দেওয়া টিপস এবং ট্রিকসগুলো। মার্কেটিং স্ট্র‍্যাটেজি বুঝার চেষ্টা করুন। পরিবর্তনশীল বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য নিজেকে প্রতিমূহুর্তে তৈরি রাখুন।

ইতিবাচকভাবে প্রতিযোগিতাপূর্ণ মনোভাব তৈরি করুন

সর্বদা মার্কেটিং ফিল্ডে নিজেকে ধরে রাখার চেষ্টা করুন। যে আপনার চাইতে ভালো করছে তার অনুসরণীয় পথগুলো জানার ও বুঝার চেষ্টা করুন। নিজেকে সেভাবে পরিচালিত করুন। দিনশেষে এটিই আপনার টার্গেট পূরণ করে দিতে সাহায্য করবে অনেকবেশি।

সৃজনশীলতা ও বিশ্লেষণী হওয়া

ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে সৃজনশীলতা থাকা সবচেয়ে জরুরি। সৃজনশীলতা যেমন আপনার ব্যক্তিত্ত্বকে ফুটিয়ে তুলে ঠিক তেমনই সফলতার শীর্ষেও নিয়ে যেতে পারে। এবং অবশ্যই যেকোনো কাজ বিশ্লেষণ করার দক্ষতা থাকা প্রয়োজন। সেই সাথে আপনাকে হতে হবে বিচক্ষণীও।

সৃজনশীল, বিচক্ষণ, দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা আর সময়-জ্ঞান থাকলে আপনার জন্য এই ডিজিটাল মার্কেটপ্লেসে সফলভাবে টিকে থাকার সম্ভাবনা অনেকাংশেই বেশি।আপনি কি সফল ডিজিটাল মার্কেটার হবার স্বপ্ন দেখছেন? এই লেখাটি আপনার জন্য কতটুকু কার্যকরী মন্তব্য করে জানান।

পোস্টটি কেমন লাগলো দয়া করে কমেন্টে জানাবেন, যদি ভাল লেগে থাকে তাহলে অবশ্যয় শেয়ার করবেন, পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। এমন সব দারুন দারুন পোস্ট পেতে Grathor এর সাথেই থাকুন এবং গ্রাথোর ফেসবুক পেইজ ও ফেসবুক গ্রুপ এ যুক্ত থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।

Related Posts

7 Comments

মন্তব্য করুন