★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে ভূমিকা রাখতে পারেন এবং পাশাপাশি অর্থ আয় করতে পারেন★এখানে ক্লিক করে বিস্তারিত জানুন★

শুধুমাত্র একাউন্ট করে ভেরিফাই করলেই পাবেন ৩০ হাজার কয়েন, যার মূল্য ৩০০ ডলার। কোন কাজ করতে হবে না, বিস্তারিত পোষ্টে…

আসসালামু আলাইকুম।

সবাই কেমন আছেন। আশা করি সবাই ভালো আছেন।

আজকে আমি আপনাদের সাথে আরেকটি সাইট শেয়ার করবো। এই সাইটে আপনাদের কোন কাজ করতে হবে না।


[আগে পোষ্টি ভালো করে পড়ুন বা ভিডিও টি দেখুন, শুধু শুধু একাউন্ট করে লাভ নাই যদি ভেরিফাই করতে না পারেন]

সাইট টির নাম হচ্ছেঃ COINSBIT

একাউন্ট করার জন্য এখানে ক্লিক করুন।


এই সাইটে যদি রেফারে জয়েন হন তাহলে বোনাস পাবেন। রেফার ছাড়া জয়েন হলে কোন বোনাস পাবেন না। আমি প্রথম ভেবেছিলার রেফার ছাড়াও বোনাস দেয় কিন্তু দেয় না, সেটা আমি ভিডিওতে বলছি। আপনারা চাইলে দেখতে পারবেন।

যেহেতু এটা একটি কয়েন সাইট সে জন্য এর দাম টা উঠা নামা করে বিট কয়েন এর মত। তাই ডলার কম বেশি পেতে পারেন। কিন্তু কয়েন পাবেন ৩০ হাজার।

এই সাইটে আপনারা যদি একাউন্ট করে ভেরিফাই করতে পারেন তাহলে পাবেন ৩০ হাজার কয়েন পাবেন, যার বর্তমান সময়ে পাবেন ২৫-৩০ ডলার সম্পূর্ন ফ্রি। কোন কাজ করতে হবে না।

তবে এই সাইট আর বেশি দিন এই অফার থাকবে না। ২০শে মে, ২০২০ এর পর আর এই অফার দিবে না। আর মাত্র ১১ দিন বাকী। তাই যারা এই ১১ দিনের ভিতরে একাউন্ট করবে শুধু মাত্র তারাই এই অফার পাবেন। শুধু একাউন্ট করলেই হবে না সাথে ভেরিফাইও করতে হবে।

রেফার সিস্টেমঃ

আগেই বলেছি এই সাইটে কোন কাজ করতে হবে না, সেহেতু এই সাইটে আপনাকে রেফার করে আয় করতে হবে। আপনি যদি ১টি রেফার করতে পাবেন তাহলে পাবেন ৩০ হাজার আর যে জয়েন হবে সে পাবে ৩০ হাজার আবার সে যদি অন্য কাউকে রেফার করে তাহলে তার থেকেও বোনাস পাবেন। এমন করে ৫ লেভেল পর্যন্ত বোনাস পাবেন। ১ম লেভেলে পাবেন ৩০ হাজার, ২য় লেভেল থেকে পাবেন ১৫ হাজার, ৩য় লেভেল থেকে পাবেন ৭৫০০, ৪র্থ লেভেলে পাবেন ৫ হাজার, ৫ম লেভেল এ পাবেন ২৫০০ কয়েন।

এই ভাবে আপনি যত বেশি রেফার করবেন তত বেশি বোনাস পাবেন। যদি বুঝতে না পারেন তাহলে পোষ্ট এর নিচে কমেন্ট করবেন।

একাউন্ট করার জন্য কি কি লাগবেঃ

একটি জিমেইন একাউন্ট আর একটি ভোটার আইডি কার্ড। যে কারো জমেইল একাউন্ট হলেই হবে কিন্তু যার ভোটার আইডি কার্ড তার আইডি কার্ড সহ একটি ছবি লাগবে। কিভাবে ছবি তুলতে হবে সেটা আমি ভিডিও তে বলে দিয়েছি। এটা লিখে বুঝানো সম্ভব না। আর যখন ভেরিফাই করবেন তখন আপনারাই বুঝতে পারবেন কিভাবে ছবি তুলতে হবে। একাউন্ট করার পরে যেই ভোটার আইডি কার্ড দিয়ে ভেরিফাই করবেন সেই আইডি কার্ডের নাম, ঠিকানা, বয়স ইত্যাদি দিয়েই একাউন্ট ভেরিফাই করতে হবে। যদি আপনার জিমেইল একাউন্ট আছে কিন্তু আইডি কার্ড নেই তাহলে আপনার পরিবারের যার আইডি কার্ড আছে তার টা দিয়েই হবে। একাউন্ট করার সময় আপনার জিমেইল দিয়ে একাউন্ট করবেন আর ভেরিফাই করার সময় পরিবারে যে কারো আইডি কার্ড দিলেই হবে।

আপনারা যদি ভিডিও টা দেখেন তাহলে আরো ভালো ভাবে বুঝতে পারবেন। খুব সহজ কাজ। তবে একাউন্ট করার সময় যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে ভিডিও টি দেখলেই হবে, তার পরেও যদি সমস্যা হয় তাহলে তাহলে আমাকে কমেন্ট এ জানাবেন, আমি সমাধান করে দিবো।

ভিডিও দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

যদি সম্পূর্ন ভিডিও টি দেখেন তাহলে আর সমস্যা হবে না। পোষ্ট না পড়ে, ভিডিও না দেখে শুধু শুধু কমেন্ট করবেন না।

কিভাবে টাকা হাতে পাবেনঃ

যদি দেখি আমার রেফারে অনেকেই জয়েন হয়েছে তাহলে আমি আরেকটি ভিডিও দিবো সেই ভিডিও তে কিভাবে টাকা তুলবেন যা দেখিয়ে দিবো। আর যদি দেখি আমার রেফারে ১-১০ জন জয়েন হয়েছে তাহলে আর ভিডিও দিবো না তাদের সাথে কথা বলে বুঝিয়ে দিবো। আর ভিডিও পেতে আমার চ্যানেলটি সাবস্কাইব করে রাখবেন।

টাকা হাতে পাওয়ার জন্য যত রকমের হেল্প করতে হবে তা আমি করবো।

তো আজকের পোষ্ট এখানেই শেষ করছি। সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।

ধন্যবাদ।

10 Comments

মন্তব্য করুন