স্বপ্নে ছেলে সন্তান হতে দেখলে কি হয় – পরিপূর্ণ ব্যাখা

আমরা সবাই স্বপ্ন দেখি। কিন্তু আমরা কি স্বপ্ন দেখবো সেটা আমাদের হাতে থাকে না। আজকে জানবো স্বপ্নে ছেলে সন্তান হতে দেখলে কি হয় । এর ইসলামিক এবং বৈজ্ঞানিক ব্যখ্যা কি।

স্বপ্নে ছেলে সন্তান হতে দেখলে কি হয় – এই বিষয়ে ইসলাম কি বলে?

স্বপ্নে ছেলে সন্তান হতে দেখলে কি হয়

আলেমরা মনে করেন, স্বপ্নে পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখলে সম্পদে বরকত আসে এবং স্বম্পদ বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।

তারা এটাও বলেন- গর্ভাবস্থায় মা স্বপনে পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখলে তার কন্যা সন্তান হবার সম্ভাবনাই বেশি।

সবই আল্লাহর ইচ্ছা। তবে যদি আপনি স্বপ্নে কোনো নবজাতকের কান্না শুনতে পান তবে জানবেন আপনার অনেকদিনের আটকে থাকা কোনো সমস্যা সমাধান হতে চলেছে। সুতরাং আল্লাহর কাছে শুকরিয়া করুন।

এছাড়াও আরও ব্যখ্যা আছে। একে একে আলোচনা করছি।

স্বপ্নে পুত্র সন্তান

<

*গর্ভবতী না হয়েও একটি মেয়ে ছেলে সন্তান জন্ম দিতে দেখলে এর অর্থ হলো জীবনে বড় ধরণের ইতিবাচ পরিবর্তন আসতে চলেছে। আয় বাড়তে পারে। নতুন সম্পদ আসতে পারে। অবিবাহিত হলে বিয়ের প্রস্তাব আসতে পারে। তাই মানসিকভাবে তৈরি থাকা উচিত।

* কিনতু স্বপ্নে মৃত পুত্রসন্তান জন্মাতে দেখা ভালো ইঙ্গিত বহন করে না। ইসলামধর্ম বিশারদরা মনে করেন, এর অর্থ হলো আপনার সামনে বিপদ আসতে চলেছে।

আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন। অসুখ- বিসুখ করতে পারে। অতএব, সতর্ক হয়ে যাওয়া জরুরী।

* আর সন্তান জন্ম দেয়া এমনিতে খুশির সংবাদ। তাই স্বপ্নে পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখলে জানবেন আপনার জীবনে ভালো কিছু ঘটতে চলেছে। অন্তত ইসলাম এই ধারণাকে সমর্থন করে।

* স্বপ্নে একটি নতুন ছেলে শিশু জন্মাতে দেখা মানে আপনার জীবনেও নতুন ঘনিষ্ঠ কেউ আসবে।

সে আপনার বন্ধু হতে পারে। সন্তান হতে পারে। জীবনসঙ্গী হতে পারে।

* আপনি যদি স্বপ্নে একটি সুস্থ আর স্বাস্থ্যবান ছেলেশিশু জন্মাতে দেখেন তবে আপনার আর্থিক উন্নতির সম্ভাবনা আছে।

আপনার অর্জিত সম্পদে আল্লাহ বরকত দিবেন।

* যদি আপনি স্বপ্নে বিনা কষ্টে পুত্র সন্তান প্রসব করতে দেখেন এর অর্থ হলো আপনার আর্থিক কষ্ট লাঘব হবে।

*আপনি যদি জমজ পুত্র সন্তানের জন্ম দেন স্বপ্নে তাহলে জানবেন আপনার পরিবার এবং আত্মীয়দের সাথে অতি শীঘ্রই সম্পর্ক ভালো হবে।

*যদি বিবাহিত স্বামী বা স্ত্রী পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখলে পরিবারে আর্থিক স্বচ্ছলতা আসবে এবং আর্থিক অস্বচ্ছলতা দূর হবে।

স্বপ্নে ছেলে সন্তান হতে দেখলে কি হয়

* যদি কোনো চিন্তিত ব্যক্তি বা হতাশাগ্রস্ত ব্যক্তি স্বপ্নে পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখেন, বিভিন্ন ব্যখ্যাকারী বলেছেন এর অর্থ হলো তার চিন্তা অতিশীঘ্রই দূর হবে।

* পরিপুস্ট পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখলে স্বপ্নে এটি ভালো ইঙ্গিত বহন করে।

এই স্বপ্নের অর্থ হলো সংসারে অভাব- অনটন দূর হবে। পরিবার ঋণগ্রস্ত হলে সেই ঋণ দ্রুতই শোধ করা সম্ভব হবে।

* অপরদিকে যদি জীর্ণ- শীর্ণ, রোগা, কুৎসিত পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখে স্বপ্নে তবে আর্থিক ক্ষয়ক্ষতির সম্ভাবনা আছে।

আরেকটি ব্যখ্যা আছে। এই স্বপ্ন দেখলে শত্রুর উপর বিজয়ী হবার সম্ভাবনা আছে স্বপ্নদ্রষ্টার।

* কোনো ব্যক্তি যদি স্বপ্নে মৃত সন্তান প্রসব করতে দেখে, সে পুরুষ হোক বা মহিলা তাহলে সে স্বপ্নদ্রষ্টা শত্রুর হাত থেকে মুক্তি লাভ করতে পারবেন। সেই সাথে দুঃখ- কষ্ট দূর হবে।

এই স্বপ্নের আরেক ধরণের ব্যখ্যা আছে। যদি কেউ মৃত সন্তান প্রসব করতে দেখে তবে ভবিষ্যতে বিপদ আসার সম্ভাবনা আছে।

স্বপ্নে পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখার বিষয়ে বিজ্ঞান কি বলে?

স্বপ্নে ছেলে সন্তান হতে দেখলে কি হয়

এবার আলোচনা করবো বিজ্ঞান এই স্বপ্নের ব্যখ্যা কিভাবে দিচ্ছে। স্বপ্নের ব্যখ্যা দিতে গিয়ে ফ্রয়েড বলেছেন- মানুষ অবচেতন মনে যা চিন্তা করে সেগুলোই রাতে ঘুমের সময় স্বপ্নে দেখে।

যেমন ধরন, একজন গর্ভবতী নারী স্বপ্নে পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখলেন।

বিজ্ঞানের ভাষ্যমতে, হয়তো উনি মনে মনে চাইছেন উনার পুত্র সন্তান হোক। তাই সেটাই সে স্বপ্নে দেখেছে।

আবার অনেক সময় ভাবনাগুলো রিভার্স রিফ্লেকশন হয়ে আসে। যেমন যা ভাবছেন তার উল্টোটা স্বপ্নে দেখছেন।

আপনি হয়তো পুত্র সন্তান চাইছেন কিন্তু আপনি স্বপ্নে দেখলেন আপনার কন্যা সন্তান হয়েছে।

বিজ্ঞানের চিন্তা আর ব্যখ্যাগুলো সাধারণত বস্তুতান্ত্রিক হয়। এরা তত্ত্বে বিশ্বাসী কিন্তু অনুমানে নয়।

তাই কোনোকিছুই সম্ভাবনার কাছে বিজ্ঞান ছেড়ে দেয় না। একটা না একটা লজিক নিয়ে আসেই।

তাই ফ্রয়েডের স্বপ্নের ব্যখ্যা কারণের উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে। আরেকটা উদাহরণ দেই।

মা যদি মনে মনে জানেন বা ভয়ে থাকেন তার অনাগত সন্তান হয়তো স্বাভাবিক নয়।

কেননা পরিবারে ইতিহাস আছে মিসক্যারেজের বা প্রতিবন্ধী শিশু জন্মানোর।

তখন সে সেটাই স্বপ্নে দেখে। তার মনের ভয় স্বপ্নে বাস্তব হয়ে ধরা দেয়।

তবে পুত্র সন্তান জন্মাতে দেখা স্বপ্নের সাথে আর্থিক উন্নতির কোনো সম্পর্ক থাকতে পারে, বিজ্ঞান এই ধারণায় বিশ্বাসী নয়।

তবে সন্তান ছেলে হোক বা মেয়ে হোক। দুইজনই আল্লাহর নিয়ামত। তাই সুস্থ সন্তান জন্মানোটাই জরুরী।

আশা করছি পোস্ট্টি আপনাদের ভালো লেগেছে। এমন সব দারুন দারুন পোস্ট পেতে Grathor এর সাথেই থাকুন এবং গ্রাথোর ফেসবুক পেইজ ও ফেসবুক গ্রুপ এ যুক্ত থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।

Related Posts

13 Comments

মন্তব্য করুন