Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

চাকরি

Facebook এর মত Like comments and post করে দিনে ১০০ থেকে ৫০০ টাকা ইনকাম করুন।

Tanjid Hossain

Published

on

শুভ সকাল। আশা করি ভাল আছেন। আমি আপনাদের সাথে একটি নতুন টিপস নিয়ে হাজির হয়েছি। এর মাধ্যমে আপনি দিনে 1 থেকে 500 টাকা ইনকাম করতে পারবেন। পেমেন্ট সরাসরি বিকাশে দেওয়া হবে। এছাড়া আপনি রিচার্জ করতে পারবেন। ইনকামের ডিটেলস নিচে দেওয়া হল।

  1. Sing up Free no investment
  2. Per like 1 point
  3. Per comments 2 points
  4. Per post 2 points
  5. Per reffel 0.02 $ USD
  6. Per Blog post 15 points
  7. 1000point=1$
  8. Payment method: PayPal Bkash Recharge.

Payment 24 hours এর মধ্যে।

এই সাইটটি মাধ্যমে সত্যি এবং সফলতা সাহায্যে আপনি ইনকাম করতে পারবেন।

Place your ad code here

প্রত্যেক কয়টি কাজের ধৈর্যের প্রয়োজন।

সাইটের লিংক নিচে দেওয়া হল:

https://efacelive.com/register?ref=jishan555&fbclid=IwAR0HkH-ncGdU38wB6AHoNhbOuUOphWLpRPwhYNe5ER3RS5DF4c7LfSji0WI

এই লিঙ্কে প্রবেশ করুন আর একাউন্ট খুলুন।

কেউ যদি না বুঝেন তাহলে কমেন্ট করে অবশ্যই জানাবেন।

বিঃদ্রঃ ধৈর্য আপনাকে সফলতা এনে দেবে।

Advertisement
1 Comment
Subscribe
Notify of
1 Comment
Oldest
Newest
Inline Feedbacks
View all comments
Maria Hasin Mim

তাই নাকি

চাকরি

বেকারদের জন্য জরুরি চাকরি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

Mojammal Haque

Published

on

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম
জরুরি ভিত্তিতে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক অনুমোদিত মেরিন সিকিউরিটি এন্ড লজিস্টিক সার্ভিসেস নামক একটি লিমিটেড কোম্পানির অধীনে দক্ষ ও অদক্ষ জনবল নিয়োগ চলছে। যার সরকারি রেজিষ্ট্রেশন নং-সি/১৫৭৪০৪

আবেদনের শেষ তারিখ:- আগামী ২৭ নভেম্বর, ২০২০ ইং। আবেদন করতে হবে ম্যানেজার বরাবর। সরাসরি ও ডাকযোগে আবেদন পাঠাতে পারবেন। অথবা, সরাসরি ফোন কল করেও আবেদন কনফার্ম করতে পারবেন।আবেদন করার জন্য কল করুনঃ 01645860574 এই নম্নরে।

পদের নামঃ
সাধারণ সিকিউরিটি গার্ড
যোগ্যতা: প্রার্থীকে ৫ম-৮ম শ্রেণী পাশ হতে হবে।
বেতন: কোয়ালিফিকেশন ও কাজের দক্ষতার ভিত্তিতে (৮,০০০  থেকে ১০,০০০) টাকা পর্যন্ত।
পদের সংখ্যা: এই পদে মোট ১১ জন নেয়া হবে।

Place your ad code here

স্পেসাল সিকিউরিটি গার্ড
যোগ্যতা: এই পোষ্টে আবেদন করতে হলে প্রার্থীকে ৮ম – এস.এস.সি পাশ হতে হবে।
বেতন: দক্ষতার উপর ১০,০০০ থেকে ১২,০০০ টাকা পর্যন্ত হবে।
পদের সংখ্যা: মোট ০৮ জন।

চায়না প্রজেক্ট হেল্পার
যোগ্যতা:(৫ম-৮ম) শ্রেণী পাশ হতে হবে।
বেতন: আগের মতোই কর্মদক্ষতা অনুযায়ী ১৪,৫০০ থেকে ১৭,০০০ টাকা পর্যন্ত।
পদের সংখ্যা: মোট ২৫ জন l

সুপারভাইজার
যোগ্যতা: ssc/hsc পাশ।
বেতন: ১৪,৫০০ -১৭,০০০ টাকা পর্যন্ত।
পদের সংখ্যা: মোট ০৭জন

রাজ মিস্ত্রি
এই পোস্টে আবেদন করতে হলে প্রার্থীর পূর্ব অভিজ্ঞতার প্রয়োজন।
বেতন: ২০,০০০ টাকা থেকে শুরু করে ২২,০০০ টাকা পর্যন্ত।
পদের সংখ্যা: মোট ১৫ জন

রড মিস্ত্রি
এই পোস্টেও অভিজ্ঞ প্রার্থীকে নিয়োগ করা হবে।
বেতন: ২১,০০০ টাকা থেকে শুরু হয়ে ২৪,০০০ টাকা পর্যন্ত হবে।
পদের সংখ্যা: মোট ১২ জন

সিভিল ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার
যোগ্যতা: সিভিল ডিপ্লোমা পাশ সহ অভিজ্ঞতা সম্পন্ন হতে হবে।
বেতন: ২৩,০০০ থেকে ৩২,০০০ টাকা পর্যন্ত।
পরের সংখ্যা: মোট ০২ জন

রিক্রোটিং অফিসারঃ
এই পদে ছেলে ও মেয়ে সবাই আবেদন করতে পারবে।
যোগ্যতাঃ ssc/hsc পাশ
বেতন: ১৬,০০০ থেকল ২১,০০০ টাকা
পদের সংখ্যা: মোট ১৬ জন

কম্পিউটার অপারেটর
যোগ্যতাঃ কম্পিউটার অপারেটিংয়ে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন হতে হবে।
বেতন: ১৩,০০০ থেকে ১৮,০০০ টাকা।
পদের সংখ্যা: মোট ০৩ জন

রিসিপসনিস্ট
এই পদেও ছেলে মেয়ে উভয়েই আবেদন করতে পারবে।
যোগ্যতা : ssc/hsc পাশ
বেতন: ১২,০০০ টাকা থেকে ১৫,০০০ টাকা।
পদের সংখ্যা: মোট ০৮ জন

ক্লিনার
অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রাথীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। অফিস শো- রুম ক্লিন করতে হবে।
বেতন: ১২,০০০ টাকা থেকল ১৫,০০০ টাকা।
পদের সংখ্যা: মোট ১০ জন

ওয়েল্ডার
অভিজ্ঞতা সম্পন্ন প্রার্থী আগে নেয়া হবে।
বেতন: যোগ্যতা ও দক্ষতা অনুযায়ী আলোচনা সাপেক্ষে।
পদের সংখ্যা: মোট ০৯ জন l

পিয়ন
সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের জন্য।
যোগ্যতা: ssc পাশ
বেতন: ১২,৫০০ থেকে ১৫,৫০০ টাকা
পদের সংখ্যা: মোট ০৬ জন

বয়স সীমা
যেকোনো পদে আবেদনকারীর বয়স সর্বনিম্ন ১৮ থেকে সর্বোচ্চ ৫৫ বছর।
ডিউটির সময়ঃ ৮ থেকে ১২ ঘন্টা পর্যন্ত।

মেইলে আবেদন পাঠাতে পারেনঃ [email protected]

সুবিধাসমুহঃ-
কোম্পানি থাকার জায়গা দেবে। খাওয়া খরচ নিজেকে বহন করতে হবল।
চিকিৎসা ভাতা ও হাজিরা বোনাস থাকবে।

মাসিক ছুটি
প্রতিটি পদেই মাসেক ৪ দিন পাওয়া যাবে।
ঈদ বোনাস দেয়া হবে।
অতিরিক্ত কাজের জন্য ওভার টাইমের সুবিধা আছে।
প্রতি মাসের বেতন ৩ থেকে ৭ তারিখের মধ্যে প্রদান করা হবে।

যা যা লাগবেঃ
প্রার্থীর শিক্ষাগত যোগ্যতার সকল সনদের ফটোকপি
স্ব স্ব এলাকার চেয়ারম্যান সার্টিফিকেট।
জাতীয় পরিচয় পত্রর ফটোকপি। না থাকলে জন্মসনদের ফটোকপি।
সদ্য তোলা ৩ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি ।

উল্লেখ্য যে,
এখানে ২/৩টি পোস্ট ব্যতিত অন্য কোন পোস্টে অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই।
প্রার্থীকে কর্মঠ, কাজের প্রতি আন্তরিক, কাজের প্রতি আগ্রহী ও কাজের প্রতি দায়িত্বশীল হতে হবে।

আবেদন পাঠানোর ঠিকানাঃ
আরিফ কমার্শিয়াল কমপ্লেক্স, হোল্ডিং নং- ৫/১১, জনতাবাগ, কদমতলী, ঢাকা -১২৩৬

Continue Reading

চাকরি

চাকুরি পাবার ৭ টি টিপস

Md. Ashif

Published

on

আমরা সচরাচর বিভিন্ন জব সাইট গুলোতে সিভি আপলোড করি কিন্তু কোনরকম ইন্টারভিউ কল পাই না। যার কারণে আমরা হতাশ হয়ে থাকি। আজকের পোস্ট টা হলো কিভাবে ইন্টারভিউ এ কল পাবেন। পরবর্তীতে চাকুরিতে ইন্টারভিউ দেয়ার কলাকৌশল সম্পর্কে একটা পোস্ট করব। চলুন তাহলে কথা না বাড়িয়ে ১০ টি টিপস নিয়ে কথা বলি।

১। গ্রাজুয়েশনঃ সাধারণত বর্তমানে আপনি যদি কোন কর্পোরেট লেভেল এ জব করতে চান ক্লিনার অথবা পিয়ন পোস্ট ব্যতিত তাহলে অবশ্যই আপনাকে গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করতে হবে। কেননা বাংলাদেশে উচ্চ শিক্ষিতের মান এতটাই কমে গিয়েছে যে আপনাকে ভালো কোন কোম্পানিতে অফিস সহকারী পদে চাকরি করতে হলেও গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট থাকতে হবে। সুতরাং যদি একটি মানসম্মত চাকুরি করতে ইচ্ছুক থাকেন তাহলে আগে গ্রাজুয়েশন কমপ্লিট করুন এরপর চাকুরির বাজারে নেমে পড়ুন।

২। সুন্দর বায়োডাটাঃ বর্তমানে গুগলে সার্চ করলেই হাজার হাজার বায়োডাটার ফরমেট চলে আসবে। তবে আপনাকে অবশ্যই একটি সুন্দর এবং মার্জিত বায়োডাটা ফরমেট গ্রহণ করতে হবে। কেননা শুধুমাত্র হাজার হাজার ওয়ার্ডের লেখা লিখলেই আপনার বায়োডাটা সিলেক্ট হবেনা। আপনাকে খুজে বের করতে হবে অল্প কথায় অনেক বেশি বোঝানোর মতো শব্দগুলো। যা আপনার বায়োডাটার পরিসর ছোট করবে এবং আপনার গুণগত মান প্রকাশ করবে।

Place your ad code here

৩। অতিরিক্ত সার্টিফিকেটঃ আপনি যে সেক্টরে বা ডিপার্টমেন্ট এ চাকুরি করতে চান যদি আপনার সম্ভব হয় সেই বিষয়ের উপর ৬ মাস বা ১ বছরের একটি শর্ট কোর্স করে নিন। এটি আপনার বায়োডাটার ওজন অনেকটা বাড়িয়ে দিতে পারে। তবে আপনি যেই কোর্সগুলোই করুন না কেন অবশ্যই একটি কম্পিউটারের কোর্স করে ফেলুন। এতে শুধু সার্টিফিকেটই পাবেননা কম্পিউটার সম্পর্কে ভালো একটি ধারণা চলে আসবে।

৪। কম্পিউটার এ দক্ষতাঃ বর্তমানে যে কোন সেক্টরেই চাকুরি করতে যাবেন কম্পিউটার জানা বাধ্যতামূলক। তাই অবশ্যই আপনাকে কম্পিউটার সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকতে হবে। হয়ত ভাবছেন কোন কোন সফটওয়্যার এর প্রতি দক্ষতা লাগবে? তেমন কিছুনা। এমএস ওয়ার্ড, এক্সেল আর ফটোশপ এর প্রাথমিক ধারণা থাকলেই চলবে।

৫। সংগতপূর্ণ বিভাগে আবেদনঃ আমরা অনেকেই আছি যারা সামনে যেই পোস্ট ই পাই আবেদন করে ফেলি। কারণ অনলাইনে আবেদন হওয়াতে আর টাকা তো দিতে হয়না? দিলেই বা ক্ষতি কি? যদি ডাক পাওয়া যায়? এই আশা নিয়ে যারা বসে থাকবেন বলব সারাজিবন পার করে দিলেও একটা কল ও পাবেন না ভাই। কারণ আপনার মতো হাজার হাজার সিভি এমনভাবে পড়ে তাই সেই ফালতু আবেদন করে তার আশায় বসে না থেকে নিজের ডিপার্টমেন্ট খুজুন। আর সেখানেই আবেদন করুন।

৬। এক্সপেরিয়েন্সঃ এক্সপেরিয়েন্স এর কথা যদি বলি তাহলে এই গুণটাকে কিসের সাথে তুলনা করা যায় তা আমার সঠিক জানা নেই। তবে গ্রাজুয়েশন কে যদি চাকুরির বাজারে ওঠার সিড়ি হিসাবে বিবেচনা করি তাহলে এক্সপেরিয়েন্স কে চাকুরি পাওয়ার যোগ্যতা বলতে পারি। কেননা বর্তমান বাজারে বিডিজবস এ যখন কোন প্রতিষ্ঠানে সিভি শর্টলিস্ট করে তখন তারা নজর দেন তার পড়ালেখা কিসে, তার চাকুরি ব্যাকগ্রাউন্ড কোন বিভাগে এবং তার এক্সপেরিয়েন্স কত? সেটা ৬ মাসের হউক।

৭। রেফারেন্সঃ এই অপশনটা হলো যাদের এক্সপেরিয়েন্স নেই। তবে হ্যা রেফারেন্স আবার ২টা অপশনে ভাগ করলাম। একটি হলো সিভি তে রেফান্সে লেখা। আর অপরটি হলো কোন বড় পোস্ট এ জব বা কারো মাধ্যম যার মাধ্যমে আপনি চাকুরিতে পাওয়ার আশা রাখেন। আপনি আপনার পরিচিত রেফান্সে খোজার চেষ্টা করুন। যার মাধ্যমে আপনি আপনার কাঙ্খিত ডিপার্টমেন্ট এর দরজায় পৌছাতে পারবেন এবং কোনভাবে ম্যানেজ করে অনেক ছোট পোস্ট থেকে শুরু করে হলেও চাকুরিতে জয়েন্ট করুন। ইনশাল্লাহ একদিন সেই ছোট পোস্টের চাকুরিই আপনার জীবনের সফলতা হয়ে যেতে পারে।

Continue Reading

চাকরি

পেশা নির্বাচন করুন চাকরির ক্ষেত্রে

Maria Hasin Mim

Published

on

আসসালামু আলাইকুম সুপ্রিয় পাঠক এবং পাঠিকাগন। কেমন আছেন আপনারা সবাই ?আশা করি আপনারা সকলে যে যার অবস্থানে ভালো আছেন এবং সুস্থ আছেন। আপনারা সকলে নিজ নিজ অবস্থানে ভালো থাকুন এবং সুস্থ থাকুন সেই কামনায় করি।

প্রত্যেকটি মানুষের জীবনের ক্ষেত্রে চাকরি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। প্রত্যেক শিক্ষার্থী তার পড়াশোনার পথ চুকিয়ে স্বপ্ন দেখে ভবিষ্যতে ভালো কোনো চাকরি পাবার প্রত্যাশায়। কিন্তু বাংলাদেশের ক্ষেত্রে চাকরির বাজার সোনার হরিণ পাবার থেকে কোনো কম বিষয় নয়। তাছাড়া বর্তমানে চলছে  করোনা মহামারী পরিস্থিতি। এমনি যেখানে চাকরিরি বাজার  সোনার পাবার সমতুল্য সেখানে অবশ্যই করোনা মহামারী পরিস্থিতির পর চাকরির বাজার হতে চলেছে তীব্র প্রতিযোগিতা। করোনা মহামারীতে মানুষ আসতে আসতে তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করে দিয়েছে। অনেক চাকরির পরীক্ষা ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে এবং অনেক পরীক্ষা ইতিমধ্যে চলছে। চাকরি পাবার জন্য যে প্রার্থীদের তীব্র প্রতিযোগিতার মধ্যে দিয়ে যেতে হয় তা বলার আর অপেক্ষা রাখেন না। শুধুমাত্র একটি পদ পাবার জন্য হাজার হাজার যোগ্য প্রার্থী লড়াই করে থাকে। যেহেতু করোনা মহামারীরই পর দেশে বিদেশে সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ইতিমধ্যে অনেক অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে তাই প্রতিষ্ঠান গুলো তাদের শূন্য পদে প্রার্থী নিতে অনেক দিক বিবেচনা করবে। আপনি যদি নতুন কোনো চাকরি প্রত্যাশী হয়ে থাকেন এবং একটি সুন্দর ক্যারিয়ার গঠনের স্বপ্ন দেখে থাকেন তাহলে আপনাকে নিচের বিষয়গুলো মেনে চলতে পারেন :

১.দেখেশুনে পেশা নির্বাচন করুন:
অনেক ভালো শিক্ষার্থী রয়েছেন যারা ভালো ফলাফল করেও ভালো পদে চাকরি করার সুযোগ হয় না। আবার অনেক শিক্ষার্থী রয়েছেন যারা খারাপ শিক্ষার্থী হয়েও কর্মজীবনে এগিয়ে আছেন। এইখানে মূল পার্থক্য হলো যোগ্য চাকরির তারতম্য। আপনি যে পদ বেঁচে নিবেন তার পূর্বেকার পরিস্থিতি আর বর্তমান পরিস্থিতি মাথায় রাখবেন। দেখবেন যোগ্য চাকরি নির্বাচনে  ভালো একটি সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন।

Place your ad code here

২.স্কুল থেকে শুরু করতে হবে প্রস্তুতি:
চাকরির জন্য পেশা নির্বাচনে সবার আগে প্রাধান্য দিতে হবে মাধ্যমিকের ধাপ কে। আপনি যে বিষয়ে পড়াশোনা করতে চান তার জন্য বিভাগ নির্বাচন করতে হবে মাধ্যমিকে। তাহলে আপনার কর্মউপযোগী শিক্ষা গ্রহন অর্জন করা হবে।

৩.ভালো করে জানুন পছন্দের পেশা সম্পর্কে :
আপনি যে পেশা হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার গুছাতে চান সেই পেশা সম্পর্কে ভালোভাবে জানার চেষ্টা করুন। দরকার হলে যারা সেই পেশায় অধিষ্ঠিত রয়েছে তাদের সাথে যুক্তি পরামর্শ করুন। কি কাজ, কেমন ধরণের কাজ করা হয় সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন। তাহলে আপনি পরবর্তীতে সেই পেশায় অন্যদের তুলনায় খানিকটা এগিয়ে থাকবেন।

৪.জোর দিবেন স্কিলের প্রতি:
বর্তমানে রেজাল্টের থেকে স্কিলকে প্রাধান্য দেওয়া হয় চাকরি প্রত্যাশীদের। তাই আপনি যত  বেশি পারেন স্কিল অর্জনের চেষ্টা করুন।বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন কোর্স অফার করে থাকে সার্টিফিকেট এর বিনিময়ে । তাই আজই নিজের স্কিল কে শানিত করে এগিয়ে থাকুন চাকরি বাজারে।

৫.নিজেকে যোগ্য করে তুলুন :
আজকাল আমাদের পড়াশোনা হয়ে উঠেছে চাকরিকেন্দ্রিক। কিন্তু তবুও পড়াশোনার পথ চুকিয়ে আমরা পাচ্ছিনা সেই চাকরি। কারণ আমাদের প্রয়োজনীয় দক্ষতার বড্ড অভাব। তাই যে পেশায় অধিষ্ঠিত হতে চান সেই পেশার প্রয়োজনীয় কাজ সমূহ শিখে রাখুন আগের থেকে। চাকরির জন্য প্রেজেন্টেশন স্কিল ,মাইক্রোসফট স্কিল সমূহ আয়ত্ত করতে শিখুন।

৬.প্রস্তুতি শুরু করুন লিখিত পরীক্ষার :
লিখিত পরীক্ষার জন্য নিজেকে যোগ্য করার উপযোগী করে গড়ে তুলুন। কম সময়ে বেশি প্রশ্নের সমাধান দেবার চেষ্টা করুন।

৭.প্রস্তুতি গ্রহণ করুন ইন্টারভিউ এর জন্য :
আপনি চাকরির বাজারে নিজেকে অধিষ্ঠিত করতে চাইলে আপনাকে আগে থেকে ইন্টারভিউ এর জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করুন। চাকরির যোগ্য করে তুলুন নিজেকে।

সামনে নতুন কোন টপিক নিয়ে হাজির হব আপনাদের সামনে। ধন্যবাদ সবাইকে।
ভালো থাকুন
সুস্থ থাকুন

Continue Reading






গ্রাথোর ফোরাম পোস্ট