Love নাকি Friendship? দুটি থেকে কোনটিকে আপনি বেছে নিবেন?

আসসালামুআলাইকুম আশা করি সবাই অনেক ভালো আছেন।

আজকের আর্টিকেলটা আপনার জন্য যেমন অনেক প্রশ্নের উত্তর হতে চলেছে।অন্যদিকে আজকের আর্টিকেলে জানবেন Love নাকি Friendship কোনটাকে আপনি আপনার জীবনে বেশি প্রাধান্য দিবেন।

আপনার জীবনে যদি কখনো এমন পরিস্থিতি আসে যে ভালোবাসার মানুষ নাকি বেস্ট ফ্রেন্ড কোনটিকে আপনি বেছে নিবেন সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনি অনেকটা ডিপ্রেশনে পড়ে যাবেন।কিংবা আপনি নিজে নিজেই যদি ভাবেন যে কাকে আপনি বেছে নিবেন সেক্ষেত্রেও আপনি অনেক চিন্তা ভাবনায় চলে যান।

প্রথমে আসা যাক বন্ধুত্ব নিয়ে।বন্ধুত্ব হলো এমন একটি বন্ধন যেখানে ছোট থেকে আমরা বন্ধু ছাড়া বলতে গেলে চলতেই পারি না।কোথায় আছে ‘ বন্ধু ছাড়া লাইফ ইম্পসিবল’ এই কথাটির অর্থ কিন্তু অল্প নয় অনেক।কিন্তু সে বন্ধুত্বের কিছু ভাগ রয়েছে।যেমন ক্লাস টেন এর বন্ধুত্ব ক্লাস টেন পর্যন্ত।সেখান থেকে অনেক বন্ধু আপনার সাথে হয়তো কলেজে পড়ে কিন্তু অনেকে আবার বাহিরে কোথাও।

ঠিক একইভাবে কলেজের ক্ষেত্রেও যখন আপনি আপনার ব্যাক্তিগত জীবন নিয়ে ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবা শুরু করবেন তখন কিন্তু আপনি বন্ধুত্ব নিয়ে ভাবার ততটা সময় হয়তো পাবেন না।তখন হঠাৎ কোথাও যদি আপনার বন্ধুদের সাথে আপনার দেখা হয় তখন একটু কেমন আছিস, ভালো আছি একটু গল্পঃ তারপর শেষ।বাকিটা হয় ফেসবুক, মেসেঞ্জারে, এইটুকুতেই সীমাবদ্ধ হয়ে যায়।

সেক্ষেত্রে আপনার বন্ধু ও তার ব্যাক্তিগত ক্যারিয়ার নিয়ে ব্যাস্ত হয়ে পড়ে।এখন কথা হলো এখানে মধ্যে যে আপনার সত্যিকারের বেস্ট ফ্রেন্ড সে কিন্তু থেকেই যায়।কারণ রিয়াল ফ্রেন্ডশিপ কখনো হারিয়ে যায় না।তাই আপনার অবশ্যই এমন বন্ধুকে সময় দিতে হবে

<

এখন আসা যাক Love কিংবা ভালোবাসার বিষয় নিয়ে।আপনার জীবনে যখন ভালোবাসার মানুষ এসে যায় তখন কি করবেন?

দেখুন ভালোবাসা জিনিষটা কিন্তু খারাপ না।কারণ ভালোবাসার জন্য একজন মানুষ তার জীবনধারা নিয়ে ভাবতে শুরু করে, সে তার জীবযাত্রা কে অনেক ইমপ্রুভ করার চেষ্টা করে।সেক্ষেত্রে একজন ভালোবাসার মানুষ আর অন্যদিকে বন্ধুত্ব সেক্ষেত্রে আপনার চিন্তা করতে হবে আপনার যে বন্ধু সে আপনাকে কতটা মোটিভেট করে,কিংবা সে আপনার কতটা ভালো চাই এই নিয়ে।

আপনার প্রিয় মানুষটি মানে আপনার বন্ধুটি কিন্তু একসময় আপনাকে হিংসা করবেই। কথাটি শুনে অবাক হচ্ছেন?

কিন্তু এইটা সত্যি।একইসাথে একটি বন্ধুত্বের সম্পর্ক যখন হয় তখন একজন বন্ধু যখন অপর এক বন্ধুর তুলনায় এগিয়ে থাকে তখন সেখান থেকে শুরু হয়ে যায় প্রতিযোগিতামূলক একটি হিংসা করার পরিস্থিতি।

এইক্ষেত্রে সে অবশ্যই চাইবে আপনার থেকে এগিয়ে থাকতে। কিন্তু যদি আপনি মনে করে আপনার বন্ধু গুলো জাস্ট ফ্রেন্ড সেক্ষেত্রে আপনি আপনার ভালোবাসার মানুষকে বেশি প্রাধান্য দিবেন।কারণ ১০০জন নামমাত্র বন্ধুর তুলনায় ১জন ভালো জীবনসঙ্গী অনেকগুন ভালো।

কিন্তু যদি আপনার একজন ভালো বেস্ট ফ্রেন্ড থাকে তাহলে সেক্ষেত্রে আপনার উচিত তার সঙ্গ দেওয়া।কারণ একজন বেস্ট ফ্রেন্ড কিন্তু আপনাকে জীবনে চলার পথে অনেক অনুপ্রেরণা যোগাবে।

আপনার ভালোবাসার মানুষটি হয়তো আপনার সাথে ব্রেকআপ করতে পারে কিন্তু বন্ধুত্বে কখনো ব্রেকআপ নেই।

“সে মানুষটিকে কখনো হারিয়ে যেতে দিও না,

যে সবসময় তোমার ভালো চাই”

Related Posts