জিমেইল এর কমন ও লাভজনক কিছু টিপস

আসসালামু আলাইকুম। আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজকে আপনাদের সাথে একটি অতি পরিচিত বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। সেই বিষয়টি সম্পর্কে আমরা কমবেশি সবাই জানি। কিন্তু সেরকম গুরুত্ব দেইনা। আর সেই জিনিসটি হল জিমেইল(Gmail) ‌। বর্তমানে এই ইন্টারনেটের জগতে জিমেইল ব্যবহৃত হয় না এমন ক্ষেত্র খুবই কম। প্রত্যেকটি জায়গায়, প্রত্যেকটি ক্ষেত্রে, পদে পদে আমাদের জিমেইল ব্যবহার করতে হয়।

জিমেইল একাউন্ট খোলা তেমন কোনো কঠিন কাজ নয়। খুব সহজেই এই অ্যাকাউন্ট খুলে ফেলা সম্ভব। এন্ড্রয়েড ফোনের অ্যাপ এবং কম্পিউটারের বিভিন্ন কাজ করতে জিমেইল একাউন্ট বাঞ্ছনীয়। কিন্তু একাউন্ট খোলার পর আমরা অ্যাকাউন্টটি অপটিমাইজ করার ব্যাপারে তেমন কোন গুরুত্ব দেইনা। যার ফলে জিমেইলের সঠিক ব্যবহার এবং উপকার পেতে আমরা অক্ষম হই। এমনকি বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আমরা জিমেইলের নাম এবং পাসওয়ার্ড পর্যন্ত ভুলে যাই। কিন্তু কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করলেই আমরা এই সকল সমস্যা এড়াতে পারি এবং জিমেইলের মাধ্যমে মোবাইলের অপটিমাইজেশন কে আরও সুন্দর করতে পারি। আজকে সেই রকম কিছু টিপস নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করব আশা করি আপনাদের উপকারে আসবে।

  • ১. জিমেইল একাউন্ট খোলার সময় নাম যে নম্বর দিয়ে জিমেইল খোলা হচ্ছে সেই নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড একটি নির্দিষ্ট জায়গায় লিখে রাখি অথবা কোন সময় আমরা স্ক্রিনশট নিয়ে সেভ করে রাখতে পারি। এতে করে বারবার জিমেইল এর পাসওয়ার্ড চেঞ্জ এবং জিমেইল হারানোর ভোগান্তি পোহাতে হবে না।
  • ২. যেহেতু বিশ্বের বেশির ভাগ মানুষই এখন অ্যান্ড্রয়েড ফোন ইউজ করে সেহেতু জিমেইলের গুরুত্ব ব্যাপক ফোন ইউজারদের মধ্যে।
  • ৩. জিমেইল একাউন্ট অপটিমাইজেশন করতে আমাদের সর্বপ্রথম মোবাইলের গুগোল অ্যাপে প্রবেশ করতে হবে।
  • ৪. এখন যে জিমেইল দিয়ে আপনি লগইন করেছেন সেই জিমেইল পরে ডান পাশে দেখাবে।
  • ৫. সেখানে ক্লিক করলেই আপনি জিমেইল সংক্রান্ত বিভিন্ন অপশন খুজে পাবেন।
  • ৬. আপনি যদি গুগোল একাউন্ট এর ভেতরে কোন কিছু পরিবর্তন বা পরিবর্ধন বা অপসারণ করতে চান তবে
  • Manage your Google account অপশনটি সিলেক্ট করুন এবং সেখানে গিয়ে আপনার কাজ সম্পাদন করুন।
  • ৭. যদি আপনি গুগল একাউন্ট দ্বারা ফোনকে অপটিমাইজেশন করতে চান তবে settings অপশনটিতে প্রবেশ করুন।

৮. আপনি যদি মোবাইল ডাটা ইউজার হয়ে থাকেন তবে General অপশনে গিয়ে Data Saver অপশনটিকে ক্লিক করুন। এতে করে আপনার মোবাইল ডাটা অনেকাংশে সেভ হবে।

৯. এই অপশন গুলোর মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অপশন টি হল-Hide explicit results‌ । এই অপশন টি ব্যাপক উপকারে আসে ওয়েব ব্রাউজিং করার সময়। বিশেষ করে এডাল্ট কনটেন্ট এবং ভালগার কনটেন্ট হতে বিরত থাকার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং কার্যকরী অপশন এটি। যদিও এটি গুগল ক্রোম ব্যতীত অন্য কোন ডাউনলোডকৃত ব্রাউজারের উপর কার্যকর হবে না এবং গুগোল এর অ্যাপসগুলোতেই এই অপশনটি কাজ করবে। যার কারণে শিশুদের হাতে ফোন দিয়েও আপনি নিশ্চিন্ত বোধ করবেন।

  • ১০. এর মাধ্যমে আপনি গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট এর মধ্যেও বিভিন্ন ধরনের চেঞ্জ বা অপটিমাইজ করতে পারবেন ।
  • ১১. আপনি চাইলেই ল্যাঙ্গুয়েজ অপশন এ গিয়ে আপনার মাতৃভাষা সেলেক্ট করে তা গুগোল অ্যাপস এরমধ্যে ইউজ করতে পারবেন।

আশা করি পোস্টটি আপনাদের সকলের উপকারে আসবে।

ধন্যবাদ।

Related Posts

17 Comments

মন্তব্য করুন