নরমাল সোফার ডিজাইন | সোফার নতুন দাম ২০২৩

শিরোনাম পড়ে নিশ্চই বুঝতে পেরেছেন আজকের আর্টিকেল জুড়ে আমরা মূলত নরমাল সোফার ডিজাইন | সোফার নতুন দাম ২০২৩ মানে সোফা সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানতে চলেছি।

সে প্রাচীনকাল থেকে প্রত্যেকের ঘরে ঘরে সোফার ব্যবহার শুরু হয়েছিল। এমনকি বর্তমান সময়ও লক্ষ করলে দেখবেন যে প্রায় সবার বাড়িতেই সোফার ব্যবহার দেখা যায়। যদিও বর্তমান বাজারে বিভিন্ন ধরনের সোফা দেখতে পাওয়া যায়। তবে বর্তমান সময়ে এসেও কাঠের তৈরি সোফার ব্যবহার মানুষ করে থাকছেন।

তবে কাঠের পাশাপাশি বিভিন্ন স্টিল সোফার দেখা পাওয়া যায় মার্কেটে। তবে সোফা কেনার পূর্বে যদি আপনি সোফার বিষয়ে ভালো ধারণা রাখতে পারেন তবে আপনার কেনা পণ্য ব্যবহার করে আপনাকে হতাশ হতে হবে না। আর তাই আজকে পুরো আর্টিকেল জুড়ে আপনাদের সোফা কি দিয়ে তৈরি বা কোন কাঠের সোফা বেশি মজবুত হবে সে ব্যাপারে বিস্তারিত গাইড করার চেষ্টা করবো। চলুন তাহলে দেরি না করে শুরু করা যাক।

সোফা কি দিয়ে তৈরি হয়?

এটা নিশ্চয় আমরা প্রত্যেকে জানি যে কাঠ দিয়ে মূলত সোফা তৈরি করা হয়। আমাদের দেশে সেগুন, গামারি, মেহেগুনি ইত্যাদি কাঠ দিয়ে মূলত বিভিন্ন ধরনের সোফা তৈরি করা হয়। এক্ষেত্রে এই কাঠ গুলো সোফা তৈরির ক্ষেত্রে বেশ জনপ্রিয় বলা যায়। কেননা বহুকাল আগে থেকেই এই কাঠের তৈরি সোফা মানুষ ব্যবহার করে আসছেন। আশা করছি আপনারা এটা বুঝে উঠতে পেরেছেন যে আমাদের দেশে মূলত এসব কাঠ দ্বারা সোফা তৈরি করা হয়।

নরমাল সোফার ডিজাইন এর ছবি

নরমাল সোফার ডিজাইন এর ছবি নরমাল সোফার ডিজাইন এর ছবি নরমাল সোফার ডিজাইন এর ছবি নরমাল সোফার ডিজাইন এর ছবি নরমাল সোফার ডিজাইন এর ছবি নরমাল সোফার ডিজাইন এর ছবি নরমাল সোফার ডিজাইন এর ছবি

কোন গাছের কাঠ ব্যবহার করলে সবচেয়ে মজবুত হয়?

একটু আগেই আপনাদের বলেছি যে আমাদের দেশে সাধারণত মেহেগুনি, সেগুন, আকাশি, গামারি ইত্যাদি কাঠের সোফা তৈরি করা হয়। এক্ষেত্রে একজন ক্রেতা হিসেবে নিশ্চই আপনার মাথায় প্রশ্ন আসতেই পারে যে হরেক রকম কাঠের মধ্যে কোন কাঠ সোফা তৈরির ক্ষেত্রে বেশি ভালো হবে। অর্থাৎ কোন কাঠ দিয়ে সোফা তৈরি করলে সেটা মজবুত হবে। সোফা কেনার পূর্বে এই বিষয়টি অবশ্যই আপনার নখদর্পণে থাকা উচিত।

এক্ষেত্রে আমি আপনাদের প্রথমত যে কাঠের নাম বলব সেটি হচ্ছে সেগুন। বাংলাদেশে যত ধরনের কাঠ রয়েছে তার মধ্যে সেগুন কাঠ অন্যতম। সেগুন কাঠের তৈরি যেকোনো ফার্নিচার অনেক মানসম্মত হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে যদি আপনি সোফা সেট তৈরি করার জন্য একটি মজবুত কাঠের সন্ধানে রয়েছেন, এবং আপনার বাজেট মোটামুটি বেশি হয় তবে আপনার জন্য একমাত্র টিপস হচ্ছে সেগুন কাঠ।

দ্বিতীয় আপনাদের যে কাঠ সম্পর্কে বলব সেটি হচ্ছে আকাশি কাঠ। আপনারা নিশ্চয়ই অনেকেই আকাশি কাঠের ফার্নিচার সম্পর্কে জানেন। বাংলাদেশে আকাশি কাঠের ফার্নিচার বেশ ব্যবহার্য। এক্ষেত্রে এই কাঠের তৈরি আসবাপত্র বেশ মজবুত এবং টেকসই হয়ে থেকে। সুতরাং সোফা তৈরির ক্ষেত্রেও আপনারা চাইলে আকাশি কাঠ ব্যবহার করতে পারেন। আকাশি কাঠের তৈরি ফার্নিচার বেশ মানসম্মত হয়ে থাকে। তবে কাঠ কেনার সময় অবশ্যই সে কাঠের মান যাচাই করে নেওয়া উত্তম।

সবশেষ আপনাদের যে কাঠের সাজেস্ট করব সেটি হচ্ছে কাঠাল কাঠ। বাংলাদেশে যত ধরনের ভালো কাঠ রয়েছে তাদের মধ্যে কাঠাল কাঠ একটি। যেকোনো ফার্নিচার তৈরির ক্ষেত্রে কাঠাল কাঠ ব্যবহার করা যেতে পারে। এক্ষেত্রে আপনি যেহেতু একটি মজবুত সোফা তৈরি করতে চাচ্ছেন সেহেতু আপনি কাঠাল কাঠ ব্যবহার করতে পারেন।

উপরে আমি আপনদের তিন দিনের কাঠের সম্পর্কে বলেছি। এই তিন ধরনের কাঠ দিয়ে আপনি আপনার জন্য একটি সোফা সেট তৈরি করে নিতে পারেন। এবং এই কাঠ গুলো ব্যবহারে সোফা তৈরি করলে আপনাকে মানের বিষয়ে আপোষ করতে হবে না।

বর্তমান বাজারে সোফার দাম কিরকম?

বাজারে আপনি বিভিন্ন মানের এবং বিভিন্ন দামের মধ্যে সোফা পেয়ে যাবেন। এবং এক্ষেত্রে সোফার দামের মধ্যেও বেশ পার্থক্য দেখতে পারবেন। তবে বর্তমানে জনপ্রিয় কয়েকটি সোফা সেট নাম এবং তার বাজার দাম নিচে দিয়ে দিচ্ছি। এতে আপনি সোফার দাম সম্পর্কে কিছুটা ধারণা নিয়ে নিতে পারবে।

১।Andaman-184 – 36,350 BDT
২। Organ-304 – 90,250 BDT
৩। Ocean-117 – 59,900 BDT
৪। Madison-106 – 38,600 BDT
৫। Harbor-183 – 33,900 BDT
৬। Cloudberry-254 – 31,800 BDT
৭। Cardiff-253 – 40,650 BDT
৮। Camden-288 – 153,567 BDT

Source: Hatil

আপনারা যারা রেডিমেট ফার্নিচার কেনার ব্যাপারে ভাবছেন তারা এই দাম থেকে একটা ধারণা নিতে পারেন। তবে স্বাভাবিকভাবে একটি সোফা সেট তৈরীর ক্ষেত্রে নূন্যতম ৪০-৫০ হাজার টাকা খরচ ধারণায় রাখা যেতে পারে।

সব থেকে দামি সোফা কোনগুলো?

কোন ধরনের সোফার দাম সবচেয়ে বেশি সেটা নির্ভর করে আপনি কোন ধরনের সোফা তৈরি করতে চাচ্ছেন তার উপরে। তবে সেগুন কাঠের সোফার দাম এক্ষেত্রে তুলনামূলক বেশি বলা যায়। এক্ষেত্রেও দাম নির্ভর করে আপনি কোন ডিজাইনের মধ্যে সোফা সেট তৈরি করতে চাচ্ছেন তার উপর।

পরামর্শ: আপনি যে ধরনের সোফা তৈরি করেন না কেন বাজেট অনুযায়ী কাঠ নির্ধারণ করুন প্রথমে। অনেক ক্ষেত্রে ফার্নিচার ব্যবসায়ীদের কাঠের ব্যাপারে জিজ্ঞ্যেস করলেও তারা তাদের সুবিধার্থে আপনাকে অন্য কাঠ ব্যবহার করার বিষয়ে বলতে পারেন। সুতরাং যদি আপনি কাঠের বিষয়টা আগে থেকে মাথায় রাখতে পারেন তবে পরবর্তীতে আপনার সোফা তৈরির ক্ষেত্রে সমস্যা হবে না।

শেষ উক্তি

আজকে আপনাদের ফার্নিচার কিভাবে তৈরি হয় এবং ফার্নিচার তৈরির কাঠ সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে বলেছি। নরমাল সোফার ডিজাইন সম্পর্কে পোস্টটি কেমন লাগলো দয়া করে কমেন্টে জানাবেন, যদি ভাল লেগে থাকে তাহলে অবশ্যয় শেয়ার করবেন, পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ। এমন সব দারুন দারুন পোস্ট পেতে Grathor এর সাথেই থাকুন এবং গ্রাথোর ফেসবুক পেইজ ও ফেসবুক গ্রুপ এ যুক্ত থাকুন, আল্লাহ হাফেজ।

Related Posts

2 Comments

মন্তব্য করুন