★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

প্রয়োজনীয় দক্ষতা অর্জন করে এই ব্যবসা করে অতি দ্রুত সফল হওয়া সম্ভব

আসসালামু আলাইকুম সকলকে। আমরা প্রতিদিন বিভিন্ন বিজনেস আইডিয়া শেয়ার করি। আজ যে দুইটি বিজনেস আইডিয়া শেয়ার করব তা থেকে অনেক টাকা আয় করা সম্ভব। তবে এরজন্য প্রয়োজন দক্ষতা ও প্রশিক্ষণ। চলুন শুরু করি

১) রেল এবং বিমানের টিকিট বুকিং

অনলাইনে টিকিট কেনার সুবিধা থাকলেও প্রায়শই যাত্রীদের টিকিট পেতে সমস্যা হয়। যাত্রীদের লং ডিস্টেন্স এর পথের জন্য টিকেট বুকিং করে রাখে এবং এর জন্য তারা প্রায়শই বুকিং এজেন্টগুলির উপর নির্ভর করে। এক্ষেত্রে কম মূলধন দিয়ে এই ব্যবসাটি শুরু করা সম্ভব।



এজেন্ট হওয়ার সুযোগ কেবল তখনই পাওয়া যায় যদি আপনি রেলওয়ে বা বিমান কর্তৃপক্ষকে কিছু রেজিষ্ট্রেশন ফি প্রদান করেন। বিভিন্ন ট্যুর অপারেটরদের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করে নিয়মিত ব্যবসা করা সম্ভব। এছাড়াও অন্যান্য সংস্থাগুলির সাথে চুক্তি করা যেতে পারে যাতে অতিরিক্ত যাত্রী আপনার কাছ থেকে টিকিট বুক করতে পারে।

অনেক সংস্থার কর্মকর্তাদের বিভিন্ন প্রয়োজনে নিয়মিত শহরে বা দেশের বাইরে যেতে হয় এবং এই পরিষেবার জন্য তাদের বাইরের এজেন্টগুলির উপর নির্ভর করতে হয়। অতচ এই টিকিটগুলি বুক করার জন্য কোনও নির্দিষ্ট কর্মচারী নেই। তাই এই ব্যবসাটিতে সফলতা লাভের জন্য আপনাকে অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যে আপনি কম সময়ে প্রয়োজনীয় টিকিট বুক করতে পারবেন। আপনি যদি এটি করতে পারেন তবে আপনার গ্রাহকের আস্থা বাড়বে।

২) ট্রেকিং এজেন্সি এবং ট্রেকিং গিয়ার ভাড়া (ট্র্যাকিং এজেন্সি এবং ট্র্যাকিং গিয়ার ভাড়া):

যদিও এটি মূলত একটি ট্র্যাভেল এজেন্সি মতই, তবে এর ব্যবসায়ের ধরণ, গ্রাহক, প্রয়োজনীয় দক্ষতা ইত্যাদি খুব আলাদা। আপনার যদি ট্রেকিংয়ের পর্যাপ্ত অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতা থাকে তবে এই ব্যবসাটি শুরু করার বিষয়ে ভাবতে পারেন।

ট্র্যাকিং এজেন্সিও একটি লাভজনক ব্যবসা। কারণ এখন অনেকে ট্র্যাকিংয়ের জন্য এজেন্সির উপর নির্ভর করে।

বিভিন্ন ট্রেকিং রুটের বাস্তবতা জানা এই ব্যবসাটি শুরু করার পূর্বশর্ত। এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই স্থানীয় গাইড এবং অন্যান্য লোকের কথা শুনতে হবে। আপনি আপনার বন্ধুদের এবং পরিচিতদের সাথে শুরু করতে পারেন। সবধানে পুরো জিনিসটি আগে থেকেই পরিকল্পনা করে শুরু করাই ভালো।

একবার ট্রেক শুরু করার পরে আপনি কোনও ভুল সংশোধন করার সুযোগ পাবেন না।তাই যাত্রা শুরু করার আগে, আপনাকে অবশ্যই আপনার প্রয়োজনীয় সমস্ত কিছু লক্ষ্য করতে হবে এবং সবকিছু আগে থেকে নিশ্চিত করতে হবে। কিছুটা অসতর্কতা মারাত্মক হতে পারে।

এগুলি ছাড়া, আপনি চাইলে ট্রেকিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত জিনিস বিক্রয় এবং ভাড়া শুরু করে করে আয় করতে পারবেন। এতে মোটামুটি কোনো রিস্ক নাই।

অল্প পুঁজি দিয়ে আপনি কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে পারেন, সেগুলি আপনার নিজস্ব এজেন্সির জন্য ব্যবহার করতে পারেন বা অন্য কোনও ট্রেকার ভাড়া নিতে পারেন। এছাড়াও, আপনি যদি ট্রেকিংয়ের জুতা, জ্যাকেট ইত্যাদি তৈরি এবং বিক্রয় করতে পারেন তবে এটি লাভজনক ব্যবসা হতে পারে