grathor-ads

ফেসবুক আইডি হ্যাকিং দেখুন প্রমান সহ

আসসালামু আলাইকুম। সবাইকে স্বাগতম গ্রাথোর সাইটে। আজ আমি আপনাদের ৯০% কাজ করবে এমন একটি ট্রিক দিবো আসা করি আপনাদের ভালো লাগবে যদিও অনেকের ভালো লাগতে না পারে। ফেসবুক আইডি হ্যাকিং দেখুন প্রমান সহ (কিভাবে কাজ করে প্রমান সহ দেখার একটি ভিডিও লিংক দিব এই আর্টিকেলে ভিতরে, ব্যাস আপনাকে সেই লিংক খুজে বের করতে হবে) এখন বকবক বাদ দিয়ে কাজের কথা বলি! 


📢 Promoted post: বাংলায় আর্টিকেল লেখালেখি করে ইনকাম করতে চান?

ফেসবুক আইডি হ্যাকিং দেখুন প্রমান সহ

এখন অনেকের প্রশ্ন আসলে কি ফেসবুক একাউন্ট হ‍্যাক করা সম্ভব 🤔
উত্তর : – হ‍্যা সম্ভব কিন্তু আপনি ডিরেক্টলি কোনো ফেসবুক একাউন্ট হ‍্যাক করতে পারবেন না এজন্য আপনাকে বিভিন্ন ধরনের মেথড ব‍্যবহার করতে হবে 😃।

👉Read more: ফুল নিয়ে ক্যাপশন (সাদা ফুল, কৃষ্ণচূড়া ফুল, সূর্যমুখী, সরষে ফুল, রঙ্গন ফুল) উক্তি, স্ট্যাটাস

তো আজকে আমি যেই ট্রিক এর কথা এই ট্রিক দিয়ে ফেসবুক আইডি হ‍্যাক করতে পারবেন আমি আপনাকে ৯০% সফল হওয়ার নিশ্চিয়তা দিতে পারি যদিও আমি টাইটেলে ১০০% দিয়েছি।
ট্রিক টি হচ্ছে কি-লগার ব‍্যবহার করে ফেসবুক আইডি হ‍্যাকিং করা।

এখন অনেকেই কি – লগার কি জানেন হয়তো বা ব‍্যবহার করেছেন আবার অনেকেই জানেন না!
যারা জানেন না তাদের জন্য বলি !
কি – লগার হচ্ছে এমন একটি সফটওয়্যার যা আপনি যদি আপনার ভিকটিম বা আপনার কোনো বন্ধুর ফোনো ইন্সটল করে দন তাহলে আপনি আপনার ভিমটিম বা বন্ধুর ফোনের কি বোর্ডের সব কিছু ওই সফটওয়্যারে দেখতে পারবেন অর্থাৎ আপনার ভিকটিম বন্ধু কি বোর্ড দিয়ে যা যা টাইম করছে সব দেখতে পারবেন।

grathor-ads

সফটওয়্যারটি ইন্সটল করার পর আপনি চাইলে হাইড করে দিতে পারবেন যাতে কেও কোনো সন্দেহ না করে আপনাকে।
ধরুন আপনি চাচ্ছেন আপনার বন্ধুর আইডি হ‍্যাক করতে তাহলে আপনি এই ট্রিক ব‍্যবহার করতে পারেন!
এর জন্য আপনি আপনার বন্ধুর ফোনে সফটওয়্যারটি ইন্সটল করে দিবেন এবং কিছুদিন পর বন্ধুর ফোন নিয়ে ওই সফটওয়্যারটিতে দেখতে পারবেন আপনার বন্ধু কি কি টাইম করেছে!

যদি আপনার বন্ধু তার ফেসবুক আইডি পাসওয়ার্ড টাইপ করে থাকে তাহলে সেটা দেখতে পারবেন,জিমেল আইডি পাসওয়ার্ড টাইপ করে থাকলে সেটাও দেখতে পারবেন এছাড়া যত যা টাইপ করেছে সব দেখতে পারবেন এমন না যে এই সফটওয়্যার দিয়ে শুধু ফেসবুক আইডি পাসওয়ার্ডই দেখা যায়!

📢 Promoted Link: Unlimited Internet Package Teletalk 2022 3G, 4G

উক্ত সফটওয়্যার যদি আপনি ইন্সটল করার পর যদি সাথে আপনি আপনার জিমেল আইডি এডড করে দেন তাহলে আপনি আপনার জিমেলে কি-বোর্ডের লগ্সগুলো পাবেন মানে কি-বোর্ড যা টাইপ করেছে তা আপনার জিমেলে সেন্ড করবে কি-লগার সফটওয়্যারটি।

এই ভাবে আপনি আপনার বন্ধুকে অনেক বড় বাশ দিতে পারবেন।
শুধু বন্ধুকে নয় টারগেট সবাইকে পারবেন আমি ৯০% নিশ্চিয়তা দিতে।
তো এখন আপনাদের অনেকেরই প্রশ্ন ভাই তাহলে এই সফটওয়্যারটি কই পাবো!🤔

চিন্তা করার কোনো বিষয় না এই সফটওয়্যারটি কোথায় পাবেন কিভাবে কাজ করবে মোবাইল দিয়ে কি করা যাবে সব আগামী পোস্টে বলবো 😅। এখান থেকে ফেসবুক আইডি হ্যাকিং দেখুন প্রমান সহ । বাকিটা আগামী পোস্টে- 
এই পোস্টে বললে পোস্ট বড় হয়ে যাবে।
আসা করা যায় অনেকের পোস্টটি ভালো লেগেছে আবার অনেকের লাগেনি হয়তো অনেকে আগে থেকেই কি-লগার সম্পর্কে জেনেছে এবং ব‍্যবহার ও করেছে।

আবার অনেকে শুধু নাম শুনেছে কিন্তু ব‍্যবহার করেছি এবং সফটওয়্যারটি পায় ও নি।

তো এখন আমরা জানব কি-লগার এর প্রকারভেদ
মানে কি-লগার কয় ধরনের আছে এবং সাথে জানব এগুলো কিভাবে তৈরি করে।
তো শুরু করা যাক।

কি-লগার দুইধরনের হয় যথা :-
১) হার্ডওয়‍্যার বিত্তিক।
২) সফটওয়্যার বিত্তিক।

এখন আমরা জানব এই দুইধরনের কি-লগার সম্পর্কে এবং জানব এই দুইধরনের কি-লগারের মধ্যে কোনটা ভালো।

তো আবার বকবক শুরু করি 🙄।

১) হার্ডওয়‍্যার ভিত্তিক কি-লগার :-

এই কি-লগার সাধারণ একটি ফাইল আকারে থাকে যেটি কম্পিউটারে ইন্সটল করলে দেখা যায় না এবং বুঝা ও যায় না।
এই কি-লগারে অনেক সুবিধা থাকে।

এই কি-লগারের কিছু কিছু টির GUI ইন্টারফেস থাকে মানে Graphical User Interface।
এটি দুইভাবে কাজ করে। আপনি যদি এই কি-লগার আপনার ভিকটিমের কম্পিউটারে ইন্সটর করেন তাহলে এই কি-লগা আপনার ভিকটিমের তথ্য আপনার ইমেলে পাঠাবে এবং প্রতি 60 সেন্ডেন পর পর একটা একটা করে Screenshot পাঠাবে।

আপনি যদি প্রোগ্রামিং জানেন এবং Hacking এর দিকে আপনার ব‍্যসিক বা ইন্টারমিডিয়েট লেভেলের নলেজ থাকে তাহলে আপনি চাইলে এই কি-লগার টি মডিফাই করে আরো ভালো ভাবে বানাতে পারবেন এবং চাইলে 60 সেকেন্ডের পরিবর্তে আপনি 30 সেকেন্ড বা 20 সেকেন্ড এমনকি 10-5 সেকেন্ড করে দিতে পারবেন।

তো এই কি-লগারটি কোথায় পাবেন অনেকের এই প্রশ্ন আসতে পারে। সাধারণ এই কি-লগারটি অনলাইন ভালোভাবে খুজলেই পাওয়া যাবে তবে একটা কথা বলে রাখি অনলাইন থেকে ডাউনলোড করলে আপনি বিভিন্ন বিপদের সম্মুখীন হতে পারেন। যেমন : -স্পাই,ডেটা চুরি আরো অনেক সমস্যা হতে পারে। যার কারণে আপনি অনেক হয়রানির হতে পারেন।
এখন অনেকে বলবেন তাহলে কোথা থেকে ডাউনলোড করবেন।

উত্তর :- আপনার এই কি-লগারটি গিটহাব থেকে ডাউনলোড করবেন তাহলে কোনো সমস্যায় পরবেন না। সেখানে অাপনি কি-লগারের সম্পর্কে জানতে পারবেন readme.txt ফাইলে এবং চাইলে কি-লগারের কোড কপি করে নিজের মতো বানাতে পারবেন বা মডিফাই করে আরো শক্তিশালী করতে পারবেন।

২) সফটওয়্যার ভিত্তিক কি-লগার :-

এখন আমরা জানব সফটওয়্যার ভিত্তিক কি-লগারের ব‍্যাপারে এবং এর বিস্তারিত।
সফটওয়্যার ভিত্তিক কি-লগারটি সাধারণ একটা সফটওয়্যার বা অ‍্যাপের মতো হয়ে থাকে এই কি-লগারের সাহায্যে আপনারা আপনাদের ভিকটিমের তথ্য দুইভাবে হাতিয়ে নিতে পারবেন। চাইলে আপনার ইমেলে নিতে পারবেন। আবার চাইলে ভিকটিমের ফোনো ডেটা কি-বোর্ডের ডেটা গুলো জমা রেখে পরে কোনো সময় ডেটা গুলো এক্সপোর্ট করে নিজের ফোনে এক্সপোর্ট করা ফাইলটি নিয়ে পরে তার কি-বোর্ডের ডেটা গুলো দেখতে পারবেন।

এই কি-লগার কম্পিউটার ও মোবাইলে ব‍্যবহার করা এইটা হচ্ছে সুবিধা এই কি-লগারের। তবে আপনি হার্ডওয়‍্যার ভিত্তিক কি-লগারের মতো এই কি-লগারটি ইন্সটল করার হাইড করতে পারবেন কিন্তু যদি সার্চ করেন তাহলে আপনার সামনে এসে পরবে এবং ঠিক একই কাজ মোবাইল ফোনে ও করবে তাই এইটাতে সিকিউরিটি ব‍্যাপারটি কম কারণ ভিকটিমের চোখে এই সফটওয়্যারটি পরলে সে সয়তো আর্বজনা ভেবে আনিস্টল করে দিতে পারে।

আবার আপনি চাইলে এই কি-লগারের অাইকনটি হাইড করতে পারবেন এবং বিভিন্ন আইকন এডড করতে পারবেন তবে আপনি এই সফটওয়্যারে দিয়ে থাকা আইকন গুলোয় শুধু এডড করতে পারবেন নিজের মতো কোনো আইকন আপলোড করে চেন্জ করতে পারবেন না। আসা করি আপনারা বুঝতে পেরেছেন।

এখন আবার অনেকের একটা প্রশ্ন থাকতে পারে এই কি-লগারটি কোথায় পাবো এবং এটি ইন্টারনেটের কোথা থেকে ডাউনলোড করলে ভালো হবে।

উত্তর :- এই কি-লগার যেহেতু ফোন ও মোবাইলে ব‍্যবহার করা যায় তাই আপনারা চাইলে প্লে-স্টোর থেকে Flash Keylogger সফটওয়্যারটি ব‍্যবহার করতে পারেব মোবাইল ফোনের জন্য তবে এই কি-লগারটি আপনাকে কোনো ইমেজ বা Screenshot পাঠাবে না 60 সেকেন্ড পর।

আপনি চাইলে আপনার জিমেল এডড করে জিমেলের ইনবক্স বা স্প‍্যাম বক্স থেকে কি-বোর্ডের লর্গস গুলি দেখতে পারবেন এই ছিল সফটওয়্যার ভিত্তিক কি-লগার।
বিশেষ কথা –
এই দুইধরনের কি-লগারে যেহেতু ইমেল এডড করে ইমেলে কি-লর্গস গুলো নেওয়া সম্ভব তাই আপনার মেইলেই ডেটা গুলো নিবেন।

এই ক্ষেত্রে আপনার যদি জিমেল ব‍্যবহার করেন সেক্ষেত্রে অনেক সময় হয়তো আপনার মেইলে দেখবেন ডেটা গুলো সেন্ট করতেছে না।

এর কারণ টা হলো আপনি আপনার জিমেলের লেস-সিকিউর পারমিশনটি অন করেন নাই তাই।
তবে আমি বলবো Yahoo Mail ব‍্যবহার করতে তাহলে কোনো সমস্যা হবে না।
Yahoo Mail এ কি-লর্গস গুলো সরাসরি ইনবক্সে আসে।
সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন।
~আল্লাহ হাফেজ

Related Posts

7 Comments

মন্তব্য করুন