ভুতের গল্প।

একসময় একটা মানুষ একটা রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল।সে বাড়ি থেকে তার গিন্নির সাথে ঝগড়া করে সে হেঁটে হেঁটে বনের পাশ দিয়ে যাচ্ছিল। হঠাৎ হঠাৎ ছে কিছু অনুভব করছি সে অনুভব করছে যে তার আশেপাশে কেউ একজন ঘোরাফেরা করছে। আসলেই কি তার আসে মাসে কেউ ঘোরাফেরা করছে। তারতার আশে পাশে সত্যি কেউ ঘোরাফেরা করছে । যেতে যেতে সে বনের প্রায় মাঝখানের দিকে চলে গেল। হঠাৎ করে দেখলো যে তার পিছনে কেউ এক জন দাঁড়িয়ে আছে। আমরা গল্পটি অন্য মুকো খেয়াল না দিয়ে গল্পটি মন দিয়ে শুনো। তারপর যা হলো সে ভয় তে পিছনের দিকে তাকাতে পারছে না আবার সামনের দিকে হাঁটতে পারছে না। তখন সে কী করবে সেটা নিজে বুঝতে পারছে না। আসলে তার অনেক ভয় করছে কিন্তু ভয় করে এখানে তো থাকা যাবে না তাই ভয় করলে হয়তো সে আরো। বেশি ভয় পাবে। সে সাহস করে এগিয়ে গেল আগের দিকে সে দেখলো তার পিছনে সে লোকটা তার সাথে সাথে হেঁটে হেঁটে আগে দিকে যাচ্ছে ।সে অনুভব করল রে তার কিছু একটাএকটা সে তার ব্যাগের ভেতর থেকে বাহির করে নিল। সে বুঝতে পারল। তারপর সে তখনো পিছনের দিকে তাকায় নি কারন সে পিছনের দিকে তাকাতে চাইছিল না আর তাকাতে চাইবে বা কি করে তার অনেক ভয় করছিল। তারপর সে বলে উঠল পিছনে কে সাহস থাকলে সামনে এসে দেখাও। সে সাহস করে এই কথাটা বলল আর সে বলল যে আমাদের পরিবারে দুই জন সদস্য আর এই দুইজন সদস্য এর ভিতরে সারাদিন গ্যাঞ্জাম লেগেই থাকে আর সেই কথা শুনে পিছনের লোকটা ছিল সে ওকে সাহায্য করবে বলে আগে থেকে চলে আসলো তার পরে তাকে দাঁড় করায় তাকে বলল তোমার কি সমস্যা সে বলল যে আমার স্ত্রী আমাকে অনেক বকা ঝকা করে আমার সংসারে শান্তি নাই আমার সংসারে অনেক ঝামেলা আমার সংসারে ঝামেলা শেষ নাই আমি আর থাকতে চাইনা এই পৃথিবীতে আমি চলে যেতে চাই এই পৃথিবী ছেড়ে আমি এই ঝামেলা থেকে মুক্তি চাই বাঁচতে চাই আমি আর এই ঝামেলা চাইনা তাই আমি এই পৃথিবী ছেড়ে চলে যাব। তারপর পিছনে সেই লোকটা তার সামনে গিয়ে দাঁড়িয়ে বলল আরে পাগল সে জীবনে অনেক কঠিন সময় আসে আবার অনেক আরামের সময় আসে তাই বলে কি কঠিন এর কাছে হেরে গেলে চলবে কঠিনের কাছে তোকে বেঁচে থাকতে হবে তোর বেঁচে থাকার জন্য তোর মনোবল তৈরি করতে হবে। তুইতুই হেরে যাবে। নানা এটা কখনোই সম্ভব না। তুই একাই একশো তোকে আমি হাড়ে হাড়ে চিনি তুই ইচ্ছা করলে সব পারবি সব এভরিথিং ইজ সব সব সম্ভব। আমি জানি তুমি সব কিছু পারবে তাই নিজেকে একটু চিনতে শেখ নিজেকে একটু বুঝতে শেখ নিজেকে ছোট মনে করিস না নিজেকে ভালবাসতে শেখো ভালোবেসে আপন করে নিতে শেখ।আর তুই তো কোন পুরুষ না দেখছি যে একটা মেয়ের কথা শুনে বাড়ি থেকে চলে এসে আর তো হত্যার পথ নেই সে একটি পুরুষ হতে পারে না পুরুষ মানে সাহসী পুরুষ মানে বুদ্ধি পুরুষ মানে মানে সাহসী তাই পুরুষরা কখনো ভয় পায় না পুরুষরা সবসময় সাহসী হতে হবে পুরো দেশটাকে যুদ্ধ করেছিল নারীরাও করেছিল কিন্তু তার সংখ্যা ছিল খুবই কম তাই পুরুষ আর একটি নারীর কথা শুনে পুরুষরা বাড়ি থেকে চলে গিয়ে আত্মহত্যা করবে এটা একদম মানায় না। তুইতুই আজকে এভাবে যেতে পারিস না তুমি থেকে যা আর আমার কথা শুনবে সংসারে ঝামেলা একটু আসে কিন্তু সেই ঝামেলা নিয়ে। অনেক দিন কাটাতে হবে তোদের তারপর তোদের জীবনেও অনেক সুখ আসবে এই বলে দিলাম তারপর সে লোকটা চলে আসলো বাড়ির দিকে রওনা দিতে লাগলো বাড়ি দিকে রওনা দিতে দিতে সে অনেক রাত্রে বাড়ি চলে এসে দেখলো যে তার জন্য তার স্ত্রী অপেক্ষায় আছে সে এটা দেখে অনেক খুশি হয়ে গেল সে ভাবলো না আমার স্ত্রী আমার জন্য অনেক অপেক্ষা করে আছে আমার রাগে পড়ে আমি ওরকম করছিলাম। তারপরতারপর তাদের সংসার ভালোভালো ভাবে সংসার কাটতেকাটতে লাগল । সে আরআর কোন ঝামেলা থাকলো না সে সংসারে সংসার ট অনেক সুন্দর হয়ে গেল সংসারে অনেক সুখ শান্তি ঢুকে গেল তারপর একদিন ওই লোকটার সাথে দেখা হলো লোকটা আবার বলল যে তোমার সংসারের কি অবস্থা সে বলল আপনি যদি সেদিনকে আমার কথাগুলো না বলতেন তাহলে হয়তো আমি সত্যিই আত্মহত্যা করতাম আমার সংসারটা এখন অনেক ভালো আমার সংসারটা অনেক শান্তি আমার সংসারে আর কোনো অশান্তি নেই আমার সংসারে অনেক শান্তির বসবাস এখন আপনি চলেন আমাদের বাসায় আমাদের সংসারটা দেখে আসবেন কিন্তু সে বলল না আমি চাইবো না আমার অনেক কাজ আছে তাই আমি যেতে পারব না কিন্তু এতসব সেই লোকটার না আমি শুনলাম না যে লোকটা আমার পাশে ছিল তাই আমরা শেষ পর্যন্ত তাদের সংসারে অনেক সুখ শান্তি করতে দেখলাম তাই আমরা কখনো হঠাৎ করে কোন প্ল্যান কিংবা কোন বুদ্ধি বের করে আমরা কোন কাজ করব না সবকিছুর জন্য সময় আছে সবকিছুর জন্য সময় আছে সেই জন্য আমরা সময়ের অপেক্ষায় থাকবো সময় যখন বলবে যা করার তখন তা করতে হবে আমরা ভালো ভাবে সেটা পালন করলে আমাদের জীবনে অনেক সুখ শান্তি আসবে আমাদের জীবনে অনেক শান্তি আসবে আমাদের জীবনে অনেক ফুলের মত পবিত্র হয়ে যাবে আমরা ভালো ভাবে বাঁচতে শিখব। আমরাআমরা আমাদের এই ছোটছোট জীবনে আমরা আমরা কিছু ওহো করব তো দর্শক সবাই আমার কথা বুঝতে পারছেন। আমিআমি আপনাদের সাথে রায়হান আমার সাথে যোগাযোগ করতে হলে আমাকে ফেসবুক অথবা ফোনে যোগাযোগ করতে পারেন আমার ফোন নম্বর হলো জিরো ওয়ান সেভেন 9502 0757।

<

Related Posts