মাত্র ১০ হাজার টাকার পুজি দিয়ে মাসে ২ লাখ টাকা আয়ের ৩টি বেস্ট বিজনেস আইডিয়া

আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভালো আছেন। করোনা ভাইরাস থেকে বাচতে সবাই সচেতন হন।

প্রতিদিন আমরা আপনাদের সাথে নিত্য নতুন বিজনেস টিপস শেয়ার করছি। জীবনে সফলতা কঠিন নয় যদি আপনি বিশেষ কিছু কৌশল ও সঠিত বিজনেস করতে পারেন। তাই বিজনেস সেরা ৩টি আইডিয়া আজকে শেয়ার করব। আশা করছি, জানার সবাই বিস্তারিত পড়বেন।

১) রেল ও বিমানের টিকিট বুকিংঃ



আমরা রেল ও বিমানের টিকিট করে থাকি স্টেশন ও বিমানবন্দর থেকে। কিন্তু বর্তমানে আমরা সেটা বাসায় বসে করতে পারছি শুধু মাত্র ইন্টারনেট ব্যবহার মাধ্যমে। আমাদের রেল ও বিমান অত্যন্ত নিরাপদ চলাচল করা যায় কোনো রকম সমস্যা হয় না। যোগাযোগ ব্যবস্থা এতো উন্নত হয়েছে যে ট্রেন ও বিমান কোন জায়গা আছে তা দেখা যায়। যাত্রীরা খুব সহজে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাওয়া আসা করতে পারছে। টিকিট দাম বেশি হলেও যাত্রীদের কে সুন্দর ভাবে পৌঁছে দেয়।

২) ট্রাভেল আর ট্যুরিজমঃ
ট্রাভেল বলতে আমরা বুঝি বন্ধুদের,পরিবারদের কে নিয়ে কোনো দূরে জায়গা যাওয়া। ট্রাভেল করে থাকি বাসের,গাড়িতে,লঞ্চে,ট্রেনে ইত্যাদি মাধ্যমে। আমরা যেসব জায়গায় ঘুরতে যাই সেগুলো হলো কক্সেবাজার,সুন্দরবন,রাঙামাটি, বন্দরবন, ইত্যাদি অনেক সুন্দর জায়গা গিয়ে থাকি।সেগুলো আমরা পরিদর্শন করে থাকি।

৩) ট্রেকিং এজেন্সি ও ট্রেকিং গিয়ার ভাড়াঃ
ট্রেকিং বলতে আমরা বুঝি কাউকে ট্রেক করা। সে কোথায় আছে তার দেখা যায় ট্রেকিং মাধ্যমে। চোর,ডাকাত খুজতে পুলিশ ট্রেকিং ব্যবহার করে থাকে। ট্রেকিংয়ের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা থাকতে হবে। পাশাপাশি দরকার পাহাড়ের প্রতি ভালবাসা ও প্যাশন।

ট্রেকিং এজেন্সিতে অল্প পুঁজিতে লাভজনক ব্যবসা।একবার ট্রেক শুরু করার পর কোনও ভুল শোধরানোর সু্যোগ পাবে না। তাই ট্রেকিং করা আগে সব ঠিক মতো এবং খেয়াল করে দিতে হবে না হলে সমস্যা হবে। নাম্বারে দিয়ে ট্রেকিং করা যায়। এর পাশাপাশি ট্রেকিংয়ের প্রয়োজনীয় যাবতীয় জিনিস বিক্রি ও ভাড়া দেওয়া যায়। তাঁবু, স্লিপিং ব্যাগ, ম্যাট্রেস সহ একাধিক জিনিস প্রয়োজন পড়ে ট্রেকারদের।

বছরে একবার বেড়াতে গেলে জিনিস গুলো ভাড়া নেওয়া সহজ মনে হয়।এজেন্সিরা সেগুলো জিনিস ভাড়া দিতে পারেন অন্য ট্রেকারদের।এছাড়া ট্রেকারদের শ্যু,জ্যাকেট,রুকস্যাক ইত্যাদি থাকে। পুলিশরা ট্রেকিং মাধ্যমে অনেক সহজে চোর,ডাকাত ধরে ফেলে।

আজকে এই পর্যন্ত থাক। আমরা জানি কোভিং১৯ অনেক বেড়েছে। সবাই সাবধান থাকবেন। আমার পোস্ট দেখবেন। কোভিং১৯ থেকে সচেতন থাকবেন ও নিরাপদ থাকবেন।