বর্তমানে আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্সের গুরুত্ব

Artificial Intelligence বা কৃএিম বুদ্ধিমওা একধরনের বিশেষ প্রযুক্তি যা দ্বারা মানুষ যেভাবে চিন্তা – ভাবনা করে। কৃএিম উপায়ে কম্পিউটারকে সেভাবে চিন্তা – ভাবনার রুপদান দেওয়া হয়। ৫মম প্রজন্মের কম্পিউটারগুলো একই সময়ে বহুবিধ কাজ অতি দ্রুততার সাথে সম্পন্ন করতে পারে। কিন্তু মানুষ একই সময়ে বিভিন্ন চিন্তা করতে পারে না। Artificial Intelligence বা কৃএিম বুদ্ধিমওা হচ্ছে কম্পিউটারের একটি শাখা, যেখানে মানব জাতির বুদ্ধিমওার মতো কম্পিউটার আচরন করতে পারে। কম্পিউটার কিভাবে মানুষের চিন্তা করবে কিভাবে অসম্পূর্ন তথ্য দিয়ে পূর্নাঙ্গ সিদ্ধান্তে পৌছাবে, কিভাবে সমস্যা সমাধান করবে, কিভাবে বিচক্ষণতার সাথে পরিকল্পনা প্রনয়ন করবে,কীভাবে সফলতার সাথে খেলাধুলা করবে ইত্যাদি বিষয়গুলোর জন্যই কৃএিম বুদ্ধিমওার উপর গবেষনা করা হচ্ছে। রোবট উপলদ্ধি সম্পর্কিত প্রাকৃতিকভাবে ভাষার প্রক্রিয়াকরন, সুনিপুন ব্যবস্হা, নিরপেক্ষ নেটওর্য়াক, স্বপ্নময় সত্যি, যুক্তি ইত্যাদি ক্ষেএে কৃএিম বুদ্ধিমওার বিশেষ ব্যবহার পরিলক্ষিত হচ্ছে।
Artuficial Intelligence বা কৃএিম বুদ্ধিমওা সম্পর্কে সর্বপ্রথম ধারনা দেন ১৯৭০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের MIT – এর John McCarthy.তার মতে Getting a computer to do thing which, when done by people, are said to involve intelligence. তখন থেকে অদ্যবধি এই টেকনোলজিটি নিয়ে ব্যাপক গবেষনা হয়েছে এবং মানুষ সফল ও হয়েছে। রোবোটিক্স, ন্যাচারাল ইন্টারফেস ইত্যাদি Artificial Intelligence বা কৃএিম বুদ্ধিমওার প্রকৃত উদাহরন। এছাড়া জটিল গানিতিক সমস্যার সমাধান, কল্পনাকে বাস্তবে রুপদান, অর্জন ও তার প্রয়োগ, অসম্পূর্ন ও এুটিপূর্ন তথ্যকে মোকাবিলা করা, পরিকল্পনা করা ইত্যাদি কাজে প্রয়োগ করা হয়।
Artificial Intelligence বা কৃএিম বুদ্ধিমওাকে প্রয়োগ করার জন্য বিভিন্ন ধরনের প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের ব্যবহার করা হয়। যেমন – LISP,CLISP,PROLOG,C/C++ ইত্যাদি। আবার আমাদের দৈনন্দিন দিনে বিভিন্ন কাজে Artificial Intelligence এর প্রয়োজন হয়। আবাব এর মাধ্যমে ভিবিন্ন বুদ্ধিমওার কাজ করা হয়। যা মানুষের দ্বারা সম্ভব হয় না, তা কম্পিউটার বা বিভিন্ন বস্তু দ্বারা করা যায়।আর এসব সম্ভব একমাএ Artificial Intelligence এর মাধ্যমে করা হয়ে থাকে। কিন্তু আমরা বিভিন্ন কাজ কম্পিউটার মাধ্যমে করে থাকি। যেমন – গননাকরা, বিভিন্ন ধরনের যান্ত্রিক কাজ করা যায়। যা একমাএ কম্পিউটার দ্বারা সম্ভব হয়। এবং বর্তমান যুগে কম্পিউটার গুরুত্ব অনেক বেশি। যা মানুষের বিভিন্ন কাজে প্রয়োজন হয়। আর Artificial Intelligence বা কৃএিম বুদ্ধিমওা দিয়ে মষ্তিক পরীক্ষা করা যায়। যার মাধ্যমে বর্তমানে অনেক কিছু করা সম্ভব হয়। এবং কি আমরা বিভিন্ন কাছে ব্যবহার করে থাকি।

Related Posts

9 Comments

মন্তব্য করুন