Connect with us
★ Grathor.com এ আপনিও ✍ লেখালেখি করে আয় করুন★Click Here★

এন্ড্রয়েড টিপস

ভিটমেট এপস কিভাবে ডাউনলোড করবেন? ভিটমেট HD ভিডিও ডাউনলোডার

Online Desk

Published

on

স্বাগতম Grathor.com এ ।

আমরা অনেকেই জানি ভিটমেট হচ্ছে এমন একটি  অ্যান্ড্রয়েড এপ আমরা যেকোনো ধরনের ভিডিও অনলাইন থেকে এইচডি কোয়ালিটি তে ডাউনলোড করতে পারি।

ভিটমেট এপস প্রথমে গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যেত।  কিন্তু যখন প্লে স্টোর থেকে ডিলিট করা হয় তখন থেকে হয়তো অনেকেই জানেনা যে কিভাবে ভিটমেট এপটি  ডাউনলোড করতে হয়।

 আর তাই আজকে আমি আপনাদেরকে  দুইটি পদ্ধতি দেখাবো কিভাবে ভিটমেট এপ  ডাউনলোড করতে হয়।

১. এখানে ক্লিক করে সরাসরি ভিটমেট এপসটি  ডাউনলোড করতে পারবেন।

অথবা,

২. প্রথমে google.com এ যান।

 তারপর সার্চ বারে টাইপ করুন (Vidmate APK)

সার্চ রেজাল্টে  প্রথমে যেই লিঙ্ক পাবেন সেখান থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন ভিটমেট এপসটি।

 আশা করি এই দুইটি ডাউনলোড  ট্রিকস আপনাদের কাজে আসবে।

 যদি লেখাটি ভালো লাগে তাহলে অবশ্যই ফেসবুকে শেয়ার করবেন।

 ধন্যবাদ।

SCREEN STREAMING PRO APK DOWNLOAD [Continue Download]

Advertisement
7 Comments

7 Comments

  1. Mohammad Ariful Islam

    Mohammad Ariful Islam

    April 8, 2020 at 10:23 pm

    Ha Ha

  2. Dolon Kumar

    Dolon Kumar

    April 13, 2020 at 7:15 pm

    Good

  3. Shanjida Islam

    Shanjida Islam

    May 13, 2020 at 10:53 am

    Gd

  4. Humayun Kabir

    Humayun Kabir

    May 13, 2020 at 12:39 pm

    Good

  5. Fozle Rabbi Deen

    Fozle Rabbi Deen

    May 14, 2020 at 9:46 pm

    দারুন বলেছেন

  6. Albi Chy

    Albi Chy

    May 14, 2020 at 11:41 pm

    wow

  7. SD Dhruva

    SD Dhruva

    May 14, 2020 at 11:43 pm

    good

You must be logged in to post a comment Login

Leave a Reply

এন্ড্রয়েড টিপস

কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই আপনার ফোনের গুরুত্বপূর্ণ ফোল্ডার হাইড করুন

Atik Hassan

Published

on

কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই আপনার ফোনের গুরুত্বপূর্ণ ফোল্ডার হাইড করুন

এমন এক সময় আসে যখন আমরা আমাদের স্মার্টফোনটি বন্ধুদের বা পরিবারকে দিয়ে থাকি এবং আমাদের ফোনে ফটো, ভিডিও এবং অন্যান্য ফাইলগুলির মতো কয়েকটি জিনিস থাকে যা আমরা তাদের দৃষ্টিকোণ থেকে দূরে রাখতে চাই। অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমটি লিনাক্সের উপর ভিত্তি করে, এতে কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে যেমন ‘মাদারশিপ’ থেকে সরাসরি নেওয়া হয়েছে যেমন লুকানো ফোল্ডারগুলি তৈরি করার ক্ষমতা যাতে নির্দিষ্ট ফাইল এবং ফোল্ডার কেবল ফাইল ম্যানেজার অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে অ্যাক্সেস করা যায়। এটি বলার পরে, ব্যবহারকারীদের আর গুগল প্লে স্টোর থেকে কোনও তৃতীয় পক্ষের অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে না। আপনি যদি এটির অপেক্ষায় থাকেন তবে আপনার জন্য আমাদের সম্পূর্ণ প্রস্তুত গাইড এখানে।

পদ্ধতি ১: একটি ডেডিকেটেড লুকানো ফোল্ডার তৈরি করুন

প্রথম পদ্ধতিটি হ’ল একটি নতুন ফোল্ডার তৈরি করা যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে লুকানো থাকে যাতে গ্যালারী, হোয়াটসঅ্যাপ, মিডিয়া প্লেয়ার, ইমেল ক্লায়েন্ট, অফিস সম্পাদক ইত্যাদি এপ্স।

একটি লুকানো ফোল্ডার তৈরি করতে,
নিচের পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন:

১. আপনার স্মার্টফোনে ফাইল ম্যানেজার অ্যাপ খুলুন।

২. একটি নতুন ফোল্ডার তৈরি করুন।

৩. ফোল্ডারের জন্য পছন্দমত একটি নাম লিখুন।

৪. একটি লুকানো ফোল্ডার তৈরি করতে ফোল্ডারের নামের আগে একটি ডট বিন্দু (.) যুক্ত করুন।

৫. এখন, আপনি যে ফোল্ডারটি গোপন করতে চান তাতে সমস্ত ডেটা স্থানান্তর করুন।

৬. এবার আপনি ফোল্ডার থেকে বের হয়ে ফাইল ম্যানেজারে আসুন, উপরে তিনটি ডট মেন্যু দেখতে পাবেন তাতে ক্লিক করুন এবং কন্সিল হিডেন ফাইলসে ক্লিক করুন। ব্যাস হয়ে গেলো হাইড।

পদ্ধতি ২: একটি এক্সিসটিং ফোল্ডার লুকান

দ্বিতীয় পদ্ধতিটি ব্যবহার করে আপনি ইতিমধ্যে এক্সিসটিং ফোল্ডার গোপন করতে পারবেন যেমন আপনি আপনার হোয়াটসঅ্যাপ মিডিয়া ফোল্ডারটি গ্যালারী বা অন্য কোনও ফোল্ডার যা আপনি অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশন এবং পরিষেবাগুলি থেকে রক্ষা করতে চান তা প্রদর্শন করতে আড়াল করতে চান। এছাড়াও, এটি করার জন্য আপনার একটি ফাইল ম্যানেজার অ্যাপের প্রয়োজন হতে পারে যা আপনাকে কোনও এক্সটেনশন ছাড়াই যেমন একটি নতুন ফাইল তৈরি করতে দেয় যেমন ইএস ফাইল এক্সপ্লোরার ইত্যাদি।

একটি লুকানো ফোল্ডার তৈরি করতে,
নিচের পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন:

১. আপনার স্মার্টফোনে ফাইল ম্যানেজার অ্যাপটি খুলুন।

২. আপনি যে ফোল্ডারটি আড়াল করতে চান তাতে নেভিগেট করুন।

৩. ‘নতুন ফাইল তৈরি করুন’ বিকল্পে ফোল্ডার এবং ট্যাব খুলুন।

৪. এখন ফাইল নাম হিসাবে ‘.nomedia’ টাইপ করুন।

৫. একবার হয়ে গেলে ফাইল ম্যানেজার থেকে প্রস্থান করুন এবং আপনার ফোনটি পুনরায় চালু করুন।

৬. আপনার ফোল্ডারটি এখন লুকানো থাকবে।






Continue Reading

এন্ড্রয়েড টিপস

এক বা একাধিক Apps যেভাবে ক্লোন করবেন

Rajib Saha

Published

on

আজকে একটা অন্যরকম ট্রিকস্ নিয়ে  আর্টিকেলটি লিখব।আর্টিকেলটি একটু মজাদার, কেন?সেটা পোস্ট শেষেই বুঝতে পারবেন।আজকে আমি লিখব কীভাবে App Clone করা যায়।হয়তো এই ট্রিকস্ টা অনেকেই জানেন আবার অনেকেই জানেন না।যারা জানেন তাদের এই পোস্ট কষ্ট করে না পড়াই বেটার। আর যারা এই ব্যাপারটি সম্পর্কে জানেন না, তাদের হয়তো কিছুটা হলোও উপকার হবে, অথবা উপকার না হলেও ইন্টারেস্টিং কিছু অবশ্যই জানতে পারবেন।

তো চলুন শুরু করা যাক।

প্রথমেই অনেকের মনে প্রশ্ন যে App Cloning কী?এটাই প্রাথমিক ভাবে জানা জরুরী যে App Cloning জিনিস টা আসলে কী।প্রথমে জানতে হবে Cloning জিনিসটা কী?সহজ কথায় বলতে গেলে Cloning হচ্ছে একটা বস্তু থেকে সেইম ওই বস্তুর ই আরেকটা কপি করা।অনেকটা বলা যায় যে আমরা ফটোকপি করি।ফটোকপি করার ফলে একটা ডকুমেন্টেরই অনেকগুলো কপি হয়,যেটা একটা উদাহরণ হিসেবে বলা যায়,অর্থাৎ কাগজের ক্লোন।আশ্চর্যজনক আরেকটি উদাহরণ হচ্ছে আপনারও ক্লোনিং করা সম্ভব অর্থাৎ ক্লোনিং করে সেইম একেবারে হবহু আপনার মতো আরেকজন জমজ কাউকে বানানো সম্ভব, যদিও এটা স্বীকৃত নয়।যাইহোক অনেক উদাহরণ দিয়েছি, আশা করি এবার ক্লোনিং ব্যাপারটার সঙ্গে পরিচিত হয়েছেন।

এবার আসি App Cloning এর ব্যাপারে।App Cloning ও ঠিক একই রকম ভাবে বিভিন্ন Apps বা গেমের ডুপ্লিকেট করা।আর এক্ষেত্রে অরিজিনাল Apps টার সাথে এটার ও মিল থাকে।ধরা যাক আপনার ফোনে মেসেঞ্জার আছে কিন্তু মেসেঞ্জারে বেশী বেশী Account Add করা যায় না,অথচ আপনার দশটা আইডি।আর দশটা আইডি থেকেই গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ আদান প্রদান করা হয়।এখন কী করবেন?এখনই এই App Cloning এর মাধ্যমে এক টা Messenger থেকে তিনটা Messenger বানাতে পারেন।শুধু Messenger ই না যেকোন Apps ই এভাবে ক্লোন করা যায়।এবার আসি কীভাবে Apps Clone করবেন।

Apps Clone করার জন্য দরকার অবশ্যই একটা Application যেটার নাম Clone App.আর এরকম Apps, Play Store এ অনেক আছে, তবে এটাই ট্রাই করেন,আমি এটাই Recommend করছি। লিংকটি সরাসরি দিয়ে দিচ্ছি , যেখান থেকে আপনি সরাসরি Play Store এ চলে যেতে পারবেন[ বি.দ্র. এই Clone app লেখাটাতে ক্লিক করুন]।

এবার এপটি Download দিয়ে ইন্সটল হলে App টির ভিতরে ঢুকুন।যদি কোনো পারমিশন চায় তাহলে Allow করে দিন,ভয় পাবার কিছু নেই,এগুলো Play Store এর App.এবার App এ ঢুকলেই দেখবেন একটা (+) আইকন।এই আইকনটাতে ক্লিক করুন,তারপর আপনি যেই App টি চান ক্লোন করতে,সেটি ক্লোন করুন।তবে মাঝে মাঝে App লোড হয়,তাই যে App টি ক্লোন করতে চাচ্ছেন সেটি না আসলে একটু অপেক্ষা করুন।প্রথমবার কোনো App Clone করার পর,পরেরবার যখন আরেকটি App ক্লোন করবেন,তাহলে Watch Video তে ক্লিক করে Video দেখে নিন।আর এভাবেই এক বা একাধিক Apps Clone করতে পারবেন খুবই সহজে।

আশা করি আজকের আর্টিকেলটি একটু হলেও আপনাদের সবার কাজে দেবে।মনযোগ দিয়ে আর্টিকেলটু পড়ার জন্য ধন্যবাদ।
সবাই ভালো থাকবেন,সুস্থ থাকবেন।






Continue Reading

এন্ড্রয়েড টিপস

অ্যান্ড্রোয়েড ফোন সম্পর্কিত কুসংস্কারগুলো

Rajib Saha

Published

on

আজকে যেই আর্টিকেলটি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি তা,একটি গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেল হতে যাচ্ছে।যেই লেখাগুলো পড়লে কিছুটা হলেও উপকৃত হবেন। Android এর সম্পর্কে অনেক গুলো ধারণা আছে যা সঠিক বলে মেনে নিয়েছেন সবাই, তবে এই ধারণাগুলোতে কিছুটা ভুল আছে বা সীমাবদ্ধতা আছে।তাই এইসব বিষয় নিয়েই আলোচনা হবে।তো চলুন শুরু করা যাক আজকের আর্টিকেল।

আমরা সবাই Android User.অর্থাৎ প্রায়ই সকলেরই Android Phone অনেক আগে থেকেই চালাচ্ছি। অনেকেই অনেক দিন ধরেই অনেক ভুল ধারণা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছি ।অনেকটা কুসংস্কারের মতোই, যেন আমরা মনে করি আমরা যা করছি সেগুলো ফোনের মঙ্গলের জন্যই করছি,কিন্তু আসলে তা নয়,বরং বলা যেতে পারে ফোনের ক্ষতি করে চলেছি নিজের অজান্তেই, যার ফলে ফোনে নানান ধরণের প্রবলেম হয়।তো চলুন সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা যাক।

-আমরা অনেকেই বিভিন্ন ধরণের অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার গুলো অনলাইন থেকে ডাউনলোড করি,তবে এগুলো কতটুকু কাজ করে??অনেকে তো আবার প্লে স্টোর ছাড়াও বিভিন্ন লিংক থেকেও অন্ধের মতো ডাউনলোড করে ফেলে,আর এর ফলে তাদের মোবাইলে বিভিন্নরকম ম্যালওয়ার,বা ক্ষতিকারক ফাইল ঢুকে যাচ্ছে। এতে ফোনের মারাত্মক ক্ষতি হচ্ছে।যদি প্রয়োজন হয়, আপনার ফোনেই দেখবেন ক্লিনার অপশন আছে।সেটা ব্যবহার করাই নিরাপদজনক।

-আমরা অনেকেই ব্যাটারি সেভার Use করে থাকি,ভাবি আমাদের ব্যাটারি সেফ থাকবে,কিন্তু এই ব্যাটারি সেভার ও কিন্তু আপনার ফোনের আর ব্যাটারির ক্ষতি করতে পারে।তাই ব্যাটারি সেভার অন না রাখার চেষ্টা করবেন

-অবশ্যই ফোনের চার্জ ২০% এ নেমে আসলে চার্জে লাগান,নাহলে পরবর্তীতে দেখবেন আপনার ব্যাটারির ক্ষতি হচ্ছে,তাড়াতাড়ি চার্জ শেষ হয়ে যাবে।আর চার্জ ৯০% এ আসলেই খুলে ফেলুন ১০০% এর জন্য অপেক্ষা না করাই ভালো

-আমরা অনেকেই Recent apps গুলো বারবার কেটে থাকি।না এটা কাটা খারাপ না।তবে ধরুন আপনি এখন ফেসবুক চালিয়েছেন আর এখন আপনি অন্য একটা কাজ করবেন,তাই ফেসবুক Recent Apps থেকে ক্লিয়ার করে দিলেন,কিন্তু আপনি আবারই ফেসবুকে ঢুকবেন জানেন, তা জেনেও কেটে দিলেন।কেটে দেয়ার পর যখন আবার কয়েকমিনিট পর ঢুকবেন তখন ব্যাটারি উপর একটু চাপ পড়বে,ফলে ব্যাটারি লাইফের ক্ষতি হয।তাই যে App গুলো কিছুক্ষণ পর পরই চালাবেন সেগুলো কিছুক্ষণ পর পর ক্লিয়ার না করে একেবারে ঘুমানোর আগে ক্লিয়ার করে ঘুমান।

আজ এ পর্যন্তই।আশা করি সবাই অনেক কিছুই জানতে পেরেছেন।তাই আগে যে ভুল গুলো করতেন,এখন সেগুলো শুধরে ফেলুন।
সবাই ভালো থাকবেন,সুস্থ থাকবেন,ধন্যবাদ।






Continue Reading